এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > সমর্থন করেও শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত সপা-বসপা, চিন্তায় রাহুল

সমর্থন করেও শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত সপা-বসপা, চিন্তায় রাহুল

দেশের মসনদ থেকে বিজেপিকে সরাতে সমস্ত বিরোধীদলকে যে একজোট হওয়া দরকার তা বুঝেই কর্নাটকের মুখ্যমন্ত্রী কুমারস্বামীর শপথ গ্রহণের দিন সেই সমস্ত বিরোধী দলের নেতারা কার্যত এক সারিতে বসেছিলেন। আর বিরোধীদলের এই ঐক্য দেখে প্রবল চাপে পড়ে ছিল কেন্দ্রও।

কিন্তু এবারের রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ ও ছত্তিশগড়ে সেই কংগ্রেসের সরকার স্থাপন ও মুখ্যমন্ত্রীর শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠানের মঞ্চে আমন্ত্রণ জানালেও উত্তরপ্রদেশের সপা সুপ্রিমো অখিলেশ সিং যাদব এবং বসপার মায়াবতীর অনুপস্থিতি প্রবল ধাক্কা দিল সেই বিরোধী মহাজোটেই।

সূত্রের খবর, এই তিন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ গ্রহণের অনুষ্ঠানে হাজির থাকার জন্য দেশের সমস্ত বিজেপি বিরোধী দলকে আমন্ত্রণ পাঠায় কংগ্রেস। কিন্তু মধ্যপ্রদেশ ও রাজস্থানে সমাজবাদী পার্টি এবং বহুজন সমাজবাদী পার্টির তরফে কংগ্রেসকে সমর্থন দেওয়া হলেও শপথগ্রহণে সেই দলের তরফে কেউ উপস্থিত না হওয়ায় শুরু হয়েছে তীব্র জল্পনা।

অনেকেই ভেবেছিলেন, যেহেতু এই মধ্যপ্রদেশ ও রাজস্থানে কংগ্রেসকে উত্তরপ্রদেশের অখিলেশ এবং মায়াবতী সমর্থন করেছেন সেহেতু তারা এই শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকবেন। কিন্তু এদিন সেখানে সেই দুই দলের তরফে কোনও প্রতিনিধি না থাকায় বিরোধী মহাজোট এবং কংগ্রেসের “সবাইকে নিয়ে চলার বার্তা” অনেকটাই ধাক্কা খেল বলে মত ওয়াকিবহাল মহলের।

জানা যায়, এদিন রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেন অশোক গেহলট, উপমুখ্যমন্ত্রী হন শচীন পাইলট। অন্যদিকে দুপুর একটায় ভোপালে মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ কমলনাথ। আর বেলা চারটায় রায়পুরে মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নেন ভূপেশ বাঘেল। আর এই শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে কংগ্রেসের তরফ উপস্থিত ছিলেন দলের সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধী।

অন্যদিকে মায়াবতী ও অখিলেশ অনুপস্থিত থাকলেও তৃণমূলের প্রতিনিধি হিসেবে সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী, রাজস্থানের শপথ গ্রহণে অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডু, কর্ণাটকের এইচডি কুমারস্বামী, জম্মু-কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ফারুক আব্দুল্লা, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী এইচ ডি দেবগৌড়া, প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী শরদ পাওয়ার, বিহারের শরদ যাদব, আরজেডির তেজস্বী যাদব, ডিএমকের স্তালিন সহ একগুচ্ছ বিরোধী মহাজোটের অন্যতম মুখরা উপস্থিত ছিলেন।

কিন্তু কদিন আগেই কর্নাটকের শপথ গ্রহণে যে বিরোধী ঐক্যের চিত্র দেখা গেল দেশের তিন রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচনের ফলাফল এবং সেই রাজ্যগুলিতে শপথ গ্রহণের কেন সেই বিরোধী ঐক্যেই ফাটল ধরতে শুরু করল? তাহলে কি এতে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে বিরোধী মহাজোটে ইফেক্ট পড়বে?

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

বিশেষজ্ঞদের মতে, এই অবস্থাকে কাটাতে হলে কংগ্রেসকেই উদ্যোগ নিতে হবে। ফলে এখন মায়াবতী এবং অখিলেশের মান ভাঙিয়ে কংগ্রেস কতটা তাঁদের বিরোধী মহাজোটে আনতে পারে সেদিকেই এখন তাকিয়ে থাকতে হবে সকলকে।

Top
error: Content is protected !!