এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > পুরুলিয়াকে ফিরে পেতে প্রশান্ত কিশোরের নয়া সিদ্ধান্ত, জেনে নিন

পুরুলিয়াকে ফিরে পেতে প্রশান্ত কিশোরের নয়া সিদ্ধান্ত, জেনে নিন

লোকসভা নির্বাচনে দলের ভরাডুবির পরই ভোটগুরু হিসেবে পরিচিত প্রশান্ত কিশোরকে নিজের দলে নিয়োগ করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের যে সমস্ত জায়গায় তৃণমূলের খারাপ ফলাফল হয়েছে, সেখানে “দিদিকে বলো” কর্মসূচি করে জনসংযোগে যেতে হচ্ছে স্থানীয় নেতা থেকে জনপ্রতিনিধিদের।

আর তৃণমূলের জনপ্রতিনিধি থেকে নেতারা এই কাজ ঠিকমতো করছেন কিনা, তার প্রতি কড়া নজরদারি রাখছে প্রশান্ত কিশোরের টিম। তবে শুধু নজরদারি রাখাই নয়, কর্মসূচি শেষ হলে তার সমস্ত তথ্য, ছবি যাতে হোয়াটসঅ্যাপে পাঠানো হয়, তার জন্যও নির্দেশ আসছে ওপর থেকে।

সূত্রের খবর, বৃহস্পতিবার সকালে পুরুলিয়ার মানবাজার বিধানসভা কেন্দ্রের পুঞ্চা এলাকায় “দিদিকে বলো” কর্মসূচি সারলেন রাজ্যের অনগ্রসর শ্রেণী কল্যাণ বিভাগের মন্ত্রী সন্ধ্যারানী টুডু। জানা যায়, প্রশান্ত কিশোরের টিমের তরফে দেওয়া সমস্ত কাগজ নিয়েই উক্ত এলাকায় যান তৃণমূলের এই মন্ত্রী। এমনকি সেখানে নির্দেশ মোতাবেক পুঞ্চার বাসিন্দা রামকৃষ্ণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়িতে রুটি, সবজি খেয়ে রাতও কাটাতে হয় মন্ত্রীকে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

পাশাপাশি প্রশান্ত কিশোরের টিমের নির্দেশ মত এলাকার বিশিষ্টজনের সঙ্গে দেখাও করেন সন্ধ্যারানী টুডু। যেখানে অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক সত্যনারায়ণ মুখোপাধ্যায় এবং শিক্ষক নারায়ন বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করে বাড়ি বাড়ি ঘুরে কার কি অভাব অভিযোগ রয়েছে, তা শোনেন তৃণমূলের এই নেত্রী।

অনেকে বলছেন, সন্ধ্যারানী টুডু যে এলাকায় এই জনসংযোগ কর্মসূচি করতে গিয়েছিলেন, সেখানে বিজেপির উত্থান ছিল চোখে পড়ার মতো। পিকের টিমের তথ্য অনুযায়ী, এখানে 3607 টি ভোটের মধ্যে বিজেপি পায় 2050 টি ভোট এবং তৃণমূল পায় 1215 টি ভোট। বিশেষজ্ঞদের মতে, আসলে প্রশান্ত কিশোরের টিমের তরফে তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা, মন্ত্রীদের সেই সমস্ত জায়গাতেই জনসংযোগে পাঠানো হচ্ছে, যেখানে বিজেপির উত্থান অভূতপূর্ব ভাবে লক্ষ্য করা গেছে।

এদিন এই প্রসঙ্গে সন্ধ্যারানী টুডু বলেন, “এই গনপ্রচার কর্মসূচী একেবারে স্কুলের মত ক্লাসের পড়া ধরা। সময় মতো কর্মসূচি সেরে তার তথ্য না দিলেই প্রশান্ত কিশোরের টিমের ফোন আসছে। যেখানেই যাচ্ছি এই কর্মসূচিতে ব্যাপক সাড়া পাচ্ছি।”

Top
error: Content is protected !!