এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরসভার গেস্টহাউসেই চলছিল দেহ ব্যবসার আসর,অবাক কান্ড

পুরসভার গেস্টহাউসেই চলছিল দেহ ব্যবসার আসর,অবাক কান্ড

মধুচক্রের আসর বসেছে পুরসভায়! রমরমিয়ে চলছে দেহব্যবসার কাজ। ঘন্টার হিসাবে ঘর ভাড়া দেওয়া হচ্ছে। স্যোশাল মিডিয়াকে ব্যবহার করে তরুণীর ছবি পাঠানো হচ্ছে খদ্দেরদের কাছে। পছন্দ হলেই কেল্লাফতে ব্যবসায়ীদের! ঠিকানা দিয়ে দেওয়া হচ্ছে ‘বিশ্রামিকা’ গেস্ট হাউজের। দালালদের মাধ্যমে কোন্নগড়ের নিকটবর্তী শেওড়াফুলি,বৈদ্যবাটি,তারকেশ্বর থেকে বিভিন্ন বয়সী তরুণীদের আনা হত গেস্ট হাউজে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

স্থানীয়দের অভিযোগ দীর্ঘদিন ধরেই এই বেআইনি কাজ চলছে কোন্নগড় পুরসভায়। এ ব্যাপারে পৌরসভা কর্তৃপক্ষকে জানিয়েও লাভ হয়নি কোনো। এরপর গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সিআইডি অর্তকিতেই হানা দেয় ওই গেস্ট হাউজে। এরপর ‘হাতেনাতে’ ১২ জনকে পাকরাও করলেই জানা যায় এ তথ্য। এদের মধ্যে ছিল ৮ জন মহিলা এবং ৪ জন পুরুষ। এছাড়াও উদ্ধার করা হয় বহু আপত্তিকর ভিডিও, কন্ডোম,নগদ ১০ হাজার টাকা সহ ১০ টি মোবাইল। এরপরও ওই এলাকায় রাতভর তল্লাশি চালায় সিআইডির ওই বিশেষ বাহিনী। আপতত ওই গেস্টহাউজটি সিল করে দিয়ে এসেছে সিআইডি।

এই ঘটনার খবর প্রকাশ্যে আসায় তীব্র গুঞ্জন শুরু হয় গোটা এলাকায়। ঘটনার সম্পূর্ণ দায় গিয়ে পড়েছে কোন্নগড় পুরসভা কর্তৃপক্ষের ঘাড়ে। তবে পুরসভার চেয়ারম্যান বাপ্পাদিত্য চট্টোপাধ্যায় এই দায় একরকম নাকচ করে পাল্টা দাবী করেন যে, বিষয়টি সম্পর্কে বিন্দুমাত্র ধারণা ছিল না তাঁর। বছর দুয়েক আগে গেস্টহাউজটি শ্যামল মন্ডল নামের এক স্থানীয় ব্যক্তিকে লিজ দেওয়া হয়। এই বেআইনি কান্ডটি প্রকাশ্যে আসায় লিজ বাতিল করা হয় অবিলম্বে।

এমনটাই জানান তিনি। পুরসভার তরফ থেকে শ্যামল মন্তলের নামে থানায় অভিযোগও দায়ের করা হয় এদিন। ওদিকে সিআইডি কর্তৃপক্ষও শ্যামলবাবুর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছে। অন্যদিকে,এ ব্যাপারে স্থানীয় বিধায়ক প্রবীর ঘোষাল কড়া পুলিশি ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিলেন এদিন। স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলর এবং পুরসভার প্রাক্তন চেয়ারম্যান স্বপন দাস আবার দাবী করেছেন যে,পুরসভার অন্দরেই এই অনৈতিক কাজ বহু দিব যাবত্ চলছে। বাধা দিতে গেলে পাল্টা মারধোর করা হয়। তাই মুখে কুলুপ এঁটে থাকে সবাই।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!