এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > ঘুরে দাঁড়াতে ফের পুরোনো কর্মীদের ফেরানোর উপর জোর তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতার, দিলেন নয়া নিদান

ঘুরে দাঁড়াতে ফের পুরোনো কর্মীদের ফেরানোর উপর জোর তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতার, দিলেন নয়া নিদান

লোকসভা নির্বাচনে উত্তরবঙ্গে ভরাডুবি হয়েছে তৃণমূলের। নির্বাচনের পরে পরেই কোচবিহারের বিভিন্ন এলাকায় গোষ্ঠীসংঘর্ষ শুরু হয়। এরপর একের পর এক স্থানীয় কর্মী সমর্থক দল বদলে বিজেপিতে যাওয়া শুরু করেন। রাজ‍্যের অন‍্যান‍্য জেলার মত কোচবিহারেও ব‍্যাপক ভাঙন ধরে দলীয় সংগঠনে। এই পরিস্থিতিতে দিনহাটায় সভা করতে এসে দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে কোচবিহার কেন্দ্রে দলের প্রার্থীর পরাজয়ের কারণ পর্যালোচনা করলেন তৃণমূল রাজ‍্য সম্পাদক সুব্রত বক্সী। এই কর্মীসভায় দলীয় কর্মীদের হুঁশিয়ারি দিয়ে তিনি বলেন, ‘‘কোথায় কোথাও আমাদের আচার আচরণ ও ব্যবহারের মধ্যে দিয়ে মানুষ আমাদের শিক্ষা দেওয়ার চেষ্টা করেছেন।’’

সোমবার দিনহাটা শহরের সাহেবগঞ্জ রোডে স্থানীয় একটি ইংরেজি মাধ্যম স্কুলের মাঠে ২১ শে জুলাই শহিদ দিবসের প্রস্তুতি হিসেবে এই কর্মিসভার আয়োজন করা হয়। এইদিনের কর্মীসভায় সভাপতিত্ব করেন দিনহাটার বিধায়ক উদয়ন গুহ। এছাড়া এই সভায় উপস্থিত ছিলেন তৃণমূল রাজ‍্য সভাপতি সুব্রত বক্সী, দলের জেলা সভাপতি বিনয়কৃষ্ণ বর্মন, উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ, দলের কার্যকরী সভাপতি পার্থপ্রতিম রায়, বিধায়ক মিহির গোস্বামী প্রমুখ।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

এর আগে, গত ২৪ শে জুন তৃণমূলের রাজ্য সভাপতি নির্বাচন পরবর্তী রাজনৈতিক উত্তাপে জর্জরিত কোচবিহারের বিভিন্ন এলাকায় এসেছিলেন। সে সময় তাঁর সামনেই স্থানীয় নেতাকর্মীদের মধ‍্যে অশান্তি শুরু হয়। এরপর কয়েক দিন আগে দিনহাটায়় বিধায়ক উদয়ন গুহর উপরে হামলার ঘটনা ঘটে। তাঁর গাড়ি ভাঙচুর করা হয়। সে কারণেই গতকালের সভার জন‍্য যথেষ্ট পুলিশি নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছিল।

আদতে কর্মীসভা হলেও ব‍্যাপক জনসমাগম হওয়ার ফলে কর্মীসভা একরকম জনসভায় পরিণত হয়। ভিড় দেখে অনুপ্রাণিত হয়ে সুব্রত বক্সী বলেন, ‘‘বহু সহকর্মী আমাদের রয়েছেন, তাঁরা কিন্তু আপনার কাছে কোন পদ চান না, টিকিট চান না। শরীরের ঘাম ঝরিয়ে দল করবেন, শুধু একটু সম্মান চাইবেন। সেই সম্মানটা তাঁদের দিতে হবে। শুধু মাত্র আমি থাকব, আর কেউ থাকবে না, আমি যা বলব তাই করব, এটা হতে পারে না।’’

পাশাপাশি সুব্রত বক্সী এ দিন দলীয় কর্মীদের উদ্দেশে কড়া বার্তা দিয়ে বলেন, ‘‘বাংলার মাটিতে দাঁড়িয়ে তৃণমূলের শেষ কথা যদি কেউ বলেন, তিনি হলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আমরা যাঁরা মঞ্চে কিংবা দর্শকাসনে বসে আছি, তাঁরা কিন্তু কেউ আমাদের দেখে দল করেন না। আমরা সকলে দল করি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দেখে।’’

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!