এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > কদিনের বিরাম নিয়ে – পুজোর পরেই কি ‘অল-আউট’ অ্যাটাকে নামছে বিজেপির যুব-মোর্চা?

কদিনের বিরাম নিয়ে – পুজোর পরেই কি ‘অল-আউট’ অ্যাটাকে নামছে বিজেপির যুব-মোর্চা?

পুজো আসতে মাত্র কয়েকদিন বাকি। তাই পুজোর পরই কোমর বেঁধে তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে পথে বিক্ষোভ মিছিল করার সিদ্ধান্ত নিল কোচবিহার বিজেপির যুব মোর্চা।  এদিন জেলায় সংগঠনের বৈঠকের আয়োজন করা হয়েছিল। সেখানেই সুকান্ত মঞ্চে দাঁড়িয়ে ভাষণ দেওয়ার সময় এ ব্যাপারে কর্মীদের নির্দেশ দিলেন যুব মোর্চার রাজ্য সভপতি দেবজিৎ সরকার। সঙ্গে এটাও জানিয়ে দিলেন,নভেম্বর থেকে রাজ্যে নাগরিকপঞ্জির দাবী তুলে আন্দোলনে নামবে বিজেপি যুব মোর্চা। এদিনের বৈঠকে যুব মোর্চার প্রায় সব সদস্যই হাজির ছিলেন। লোকসভা ভোটকে পাখির চোখ করে আসন্ন যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত থাকার বার্তা দেন দেবজিৎ বাবু।

জানা গিয়েছে,আগামী ডিসেম্বরেই সর্বভারতীয় বিজেপি সভাপতি অমিত শাহের উত্তরবঙ্গ সফরে আসার পরিকল্পনা রয়েছে। উপত্যকায় বিজেপি সংগঠনের হালচাল তদারক করতে আসবেন তিনি লোকসভা ভোটের আগে। তার প্রস্তুতি নিয়েও এদিন বৈঠকে আলোচনা করা হয়। জেলা যুব মোর্চার নতুন কমিটিও গঠন করা হয় বৈঠকে। মুখে তৃণমূল প্রতিরোধের কথা বললেও বিজেপি যুব মোর্চার সংগঠন যে নড়বড়ে সেকথা স্বীকার করেন দলীয় নেতারাই। তাই লোকসভা ভোটের আগে সংগঠনের ভীত মজবুত করাই অন্যতম লক্ষ্য তাঁদের। রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ বারবার উত্তরবঙ্গ সফরে এসে অলআউট অ্যাটাকের বার্তা দিয়ে গিয়েছেন অনুগামীদের। বলেছেন সেখানে যুব মোর্চাই ‘ওপেনিং ব্যাটসম্যান’এর ভূমিকায় থাকবে শীর্ষ নেতার কথা অক্ষরে অক্ষরে পালন করার লক্ষ্যেই হাঁটছেন তাঁরা,এমনটাই জানা যাচ্ছে বিজেপি যুব মোর্চার সূত্র থেকে।

এদিনের বৈঠকে দেবজিৎবাবু নানাভাবে তৃণমূল কংগ্রেসের গলদ তুলে ধরে সহযোদ্ধাদের উদ্দীপিত করার চেষ্টা করলেন। প্রসঙ্গে তুলে ধরলেন পঞ্চায়েত নির্বাচনে বিজেপির সঙ্গে হওয়া অবিচারের কথা। বললেন নানাভাবে শাসকদল বিজেপি প্রার্থীদের মনোনয়ন পত্র জমা দিতে বাধা দিয়েছে। তৃণমূলের সন্ত্রাসের কবলে পড়ে কীভাবে বিজেপির কর্মী সমর্থকরা বলি হয়েছেন।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

পঞ্চায়েত বোর্ড গঠন পর্বেও শাসকদল প্রলোভন দেখিয়ে, আতঙ্ক ছড়িয়ে বিজেপির সংগঠন ভাঙার চেষ্টা করছে। একের পর এক মিথ্যা মামলায়,গাঁজা কেসে ফাঁসিয়ে দিচ্ছে বিজেপিকে। গোটাই রাজ্যেই তৃণমূলের দাপট চলছে। গনতন্ত্রের মারনযজ্ঞ শুরু করেছে তাঁরা শাসনের নামে। এসব বলেই দলীয় সদস্যদের লোকসভা ভোট যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত করতে উদ্যোগী হলেন যুব মোর্চার রাজ্য সভাপতি। এর সঙ্গে জুড়ে জানালেন,’পুজোর মাস শেষ হোক। তারপর আগুন অন্য পক্ষের উঠোনে পৌঁছে দিতে হবে। প্রশাসনের বেলচা দিয়ে যে গরম কয়লা আমাদের উপর এতদিন দেওয়া হয়েছে, আইনি বেলচা দিয়ে সেই গরম কয়লাই এবার তৃণমূলের ঘরে পৌঁছে দেব।’ তবে বিজেপি যুব মোর্চা দূর্বল সংগঠন নিয়ে কতোটা শাসক দলের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে সক্ষম হবে সে নিয়ে আশঙ্কা থেকে যাচ্ছে।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!