এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > এবার লোকসভায় উঠতে চলেছে শিক্ষকদের পিআরটি বঞ্চনার কথা? সৌজন্যে বিজেপি টিচার্স সেল

এবার লোকসভায় উঠতে চলেছে শিক্ষকদের পিআরটি বঞ্চনার কথা? সৌজন্যে বিজেপি টিচার্স সেল

রাজ্যের হাজার হাজার প্রাথমিক শিক্ষকদের দীর্ঘদিন ধরেই দাবি পিআরটি স্কেলের। রাজ্য সরকার কেন্দ্রীয় নিয়ম অনুসরণ করে রাজ্যের শিক্ষকদের জোর করে তাঁদের শিক্ষাগত যোগ্যতা বাড়িয়ে নিতে বাধ্য করেছেন। ফলে, বুড়ো বয়সেও অনেককেই বই-খাতা নিয়ে নতুন করে প্রস্তুতি নিয়ে দিতে হয়েছে পরীক্ষা। কিন্তু শিক্ষাগত যোগ্যতার কেন্দ্রীয় নিয়ম মানলেও, রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষকদের কেন্দ্রীয় হারে বেতন দিতে নারাজ রাজ্য সরকার। ফলে, বর্তমানে ভারতীয় রেলের একজন সাফাইকর্মীর থেকেও কম বেতন পান এই রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষকরা।

এর আগে, এই নিয়ে রাজ্যজুড়ে বহুবার বহুভাবে আন্দোলনে নেমেছেন রাজ্যের প্রাথমিক শিক্ষকরা। কিন্তু, বেতন বৈষম্য ঘোচার বদলে কপালে জুটেছে শুধুই অপমান! কখনো শিক্ষামন্ত্রী ‘অযোগ্য’ বলে অপমান করেছেন, তো কখনো রাজ্য সরকার পুলিশ দিয়ে শিক্ষকদের গ্রেপ্তার করিয়েছেন। ফলে, বর্তমান রাজ্য সরকারের হাত ধরে পিআরটি যন্ত্রণার যে কোনো সমাধান হবে না তা একপ্রকার নিশ্চিত রাজ্যের শিক্ষকরা। তাই তো সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনের পোস্টাল ব্যালটে তাঁরা বর্তমান শাসকদলের উপর চূড়ান্ত অনাস্থা দেখিয়ে দুহাত ভোরে ভোট দিয়েছেন বিজেপিকে।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

আর এবার, তাই বাংলা থেকে নির্বাচিত লোকসভার সদস্যদের মাধ্যমে লোকসভায় এই পিআরটি যন্ত্রনা তুলে ধরতে চান রাজ্যের শিক্ষকরা। আজ কলকাতায় রাজ্য বিজেপি সদর কার্যালয়ে বিজেপি শিক্ষক সেলের পক্ষ থেকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয় রানাঘাট লোকসভা কেন্দ্রের বিজয়ী প্রার্থী জগন্নাথ সরকারকে। এই সংবর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিজেপি শিক্ষক সেলের রাজ্য কনভেনার দীপল বিশ্বাস, রাজ্য কো-কনভেনার অসিত মন্ডল, বিজেপি শিক্ষক সেলের প্রাথমিক, পার্শ্ব শিক্ষক, অধ্যাপক এবং অন্যান্য শাখার রাজ্য কার্যকর্তারা।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন জেলার শতাধিক শিক্ষক। বিজেপি শিক্ষক সেলের রাজ্য কনভেনার দীপল বিশ্বাস বলেন, জগন্নাথবাবু আমাদের শিক্ষক সেলেরই একজন। উনি পেশায় উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক। আমরা গর্বিত আমাদের একজন শিক্ষক মহাশয় লোকসভায় প্রতিনিধিত্ব করছেন। এদিকে নিজের সহকর্মীদের কাছে এইভাবে সংবর্ধনা পেয়ে আপ্লুত জগন্নাথবাবু শিক্ষক সমাজকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি বিজেপি টিচার্স সেলের দাবিমত পিআরটি বঞ্চনার কথা লোকসভায় তোলার পাশাপাশি, সাঝিক্ষক সমাজ যেভাবে বাংলায় বিজেপির উপর আস্থা রেখেছেন, সেই ব্যাপারে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন।

এদিন জগন্নাথবাবু বলেন, বিগত লোকসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গের সমস্ত শিক্ষক সমাজ বিজেপির পাশে দাঁড়িয়ে বিজেপিকে বিপুল সংখ্যায় ভোট দিয়েছেন। শিক্ষক সমাজের পাশে দাঁড়িয়ে তিনি আরও বলেন, শিক্ষকদের বর্তমান সমস্যা এবং বেতন বঞ্চনার কথা তিনি লোকসভায় তুলে ধরবেন। এদিকে বিজেপি শিক্ষক সেলের প্রাথমিক শাখার রাজ্য কো-ইনচার্জ সব্যসাচী ঘোষ জগন্নাথবাবুকে অনুরোধ করেন পশ্চিমবঙ্গের প্রাথমিক শিক্ষকদের পিআরটি স্কেলের বঞ্চনার কথা লোকসভায় তুলে ধরে সমস্যা সমাধানের উপায় বের করতে। জগন্নাথবাবু এই অনুরোধ গুরুত্ব সহকারে বিবেচনার আশ্বাস দেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!