এখন পড়ছেন
হোম > আন্তর্জাতিক > জুন মালিয়ার বিয়ে দিতে গিয়ে প্রবাসী প্রখ্যাত অধ্যাপকের জীবন দুর্বিষহ করলেন বঙ্গের মিডিয়াকুল

জুন মালিয়ার বিয়ে দিতে গিয়ে প্রবাসী প্রখ্যাত অধ্যাপকের জীবন দুর্বিষহ করলেন বঙ্গের মিডিয়াকুল

বিগত বেশ কিছুদিন ধরেই সংবাদ শিরোনামে বারবার এসেছে প্রখ্যাত সেলিব্রিটি অভিনেত্রী জুন মালিয়ার বিয়ের খবর। খবরে প্রকাশ জুন মালিয়া তাঁর দীর্ঘদিনের বন্ধু সৌরভ চট্টোপাধ্যায়কে বিয়ে করতে চলেছেন আগামী ডিসেম্বরে। কিন্তু, সেই খবর প্রকাশ করতে গিয়ে, বাংলার বেশ কিছু প্রথম শ্রেণীর মিডিয়া যে ছবিটি ব্যবহার করছেন – তাতেই চরম সামাজিক অসম্মানের মুখে পড়েছেন আরেক সৌরভ চট্টোপাধ্যায়।

জুন মালিয়ার ‘বন্ধু’ বলে যে ছবিটি প্রচারিত হচ্ছে, তা আদতে ইন্ডিয়ান স্ট্যাটিস্টিকাল ইনস্টিটিউট (আইএসআই) থেকে মাস্টার করে, স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি থেকে পিএইচডি করা ও অধুনা আমেরিকার ক্যালিফোর্নিয়া প্রবাসী অধ্যাপক সৌরভ চট্টোপাধ্যায়ের। অধ্যাপক সৌরভবাবুর সঙ্গে জুন মালিয়ার কোনো সম্পর্ক তো দূরের কথা, কোনো পরিচয়ই নেই। অসম্ভব মেধাবী অধ্যাপক সৌরভবাবু, অল্প বয়সেই পৌঁছেছেন খ্যাতির প্রায় মধ্যগগনে।

অধ্যাপক সৌরভবাবু নিজের পিএইচডি শেষ করে ক্যালিফোর্নিয়া ইউনিভার্সিটিতে ২০০৬ সালে ভিসিটিং অ্যাসিস্ট্যান্ট প্রফেসর হিসাবে যোগ দেন। ওই বিশ্ববিদ্যালয়েই মাত্র ৩ বছরের মধ্যে তিনি অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর পদে উন্নীত হন। ওই বছরই সেপ্টেম্বর মাসে তাঁর মেধার জন্য তাঁকে নিউইয়র্ক ইউনিভার্সিটি অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর পদে ডেকে নেয়। এরপর ২০১২-১৩ সালে স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে ভিসিটিং অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর হিসাবে কাজ শুরু করেন। পরে ২০১৩ সালেই তাঁকে স্ট্যানফোর্ড ইউনিভার্সিটি পূর্ণ সময়ের অধ্যাপকের পদে নিযুক্ত করে।

ফলে, দেশ-বিদেশে অধ্যাপক সৌরভবাবুর একদিকে যেমন অসংখ্য ছাত্র-ছাত্রী ছড়িয়ে আছে, তেমনই আছেন অসংখ্য গুণমুগ্ধ শুভানুধ্যায়ী। ব্যক্তিজীবনে তিনি বিবাহিত ও এক সন্তানের পিতা। কিন্তু, তাঁর সেই সুখের জীবনে হঠাৎই নেমে এসেছে – চরম সামাজিক অসম্মানের পরিবেশ! অধ্যাপক সৌরভবাবুর মেধা ও সুখ্যাতির জন্য গুগলে ‘সৌরভ চ্যাটার্জি’ বলে সার্চ করলে – স্বাভাবিকভাবেই প্রথমেই তাঁর ছবিটি সামনে উঠে আসে। আর এক শ্রেণীর মিডিয়া কোনো কিছু ‘ভেরিফাই’ না করেই সেই ছবিকেই জুন মালিয়ার ‘হবু বর’ বলে দিব্যি চালিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ!

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

‘আত্মীয়স্বজন, বন্ধুবান্ধব, শুভানুধ্যায়ী ও সৌরভবাবুর ছাত্রছাত্রীদের কাছে আমাদের মাথা লজ্জায় কাটা যাচ্ছে!’ ক্যালিফোর্নিয়া থেকে ফোনে রীতিমত আতঙ্কিত শোনায় অধ্যাপক সৌরভবাবুর স্ত্রী এষাদেবীর গলা! তিনি আরও জানান, আমরা তো প্রথমে কিছু জানতামই না! কিন্তু, হঠাৎ করেই আত্মীয়স্বজনদের ফোন পেতে শুরু করি! সবারই একটাই প্রশ্ন – তোদের মধ্যে কি হয়েছে? সৌরভ কি সত্যিই জুন মালিয়াকে বিয়ে করছে? তুই কি জানতিস ব্যাপারটা? আর, এইসব শুনে রীতিমত লজ্জা লাগছে!

এষাদেবীর বক্তব্য, সবথেকে খারাপ হয়েছে – ছাত্রছাত্রী মহলে ও (সৌরভবাবু) অসম্ভব জনপ্রিয়, সবাই ওকে অসম্ভব সম্মান করেন। যাকে বলে একেবারে আইডিয়াল ক্যারেক্টার। বিশেষ করে ভারতেও ওর প্রচুর ছাত্রছাত্রী আছে – তাদের সবার মধ্যেই এই নিয়ে গুঞ্জন – যা সামাজিকভাবে রীতিমত অস্বস্তি বাড়াচ্ছে দিনদিন। সবথেকে বড় কথা, ঐসব সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে, তারা এই ভুল সংশোধনে বিন্দুমাত্র আগ্রহী নয়! যা রীতিমত সামাজিক অসম্মানের পাশাপাশি, আমাদের মানসিক শান্তি নষ্ট করছে প্রতিনিয়ত!

ঐসব সংবাদমাধ্যমের কাছে, এই ‘ভুলের’ কোনো প্রতিকার না পেয়ে, ইতিমধ্যেই ক্যালিফোর্নিয়া প্রবাসী চট্টোপাধ্যায়-দম্পতি আইনের স্মরণাপন্ন হয়েছেন। এই প্রসঙ্গে তাঁদের আইনজীবী পৃথ্বীশ গাঙ্গুলির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, বাংলার বেশ কিছু প্রথমশ্রেণীর মিডিয়ার এই অপরিণত পদক্ষেপে অধ্যাপক সৌরভ চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর পরিবার যথেষ্ট মানসিক উদ্বেগ ও অসম্মানের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছেন। অবিলম্বে ওই খবরের ভুল স্বীকার করে সৌরভবাবুর হৃত সম্মান পুনরুদ্ধারের প্রক্রিয়া হিসাবে পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য, সংশ্লিষ্ট মিডিয়া হাউসগুলিকে লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

পৃথ্বীশবাবুর আরও বক্তব্য, সৌরভবাবুর যা সম্মানহানি হওয়ার, তা তো হয়েই গেছে। তবুও একজন দায়িত্বশীল নাগরিক হিসাবে আমরা কিছুদিন অপেক্ষা করে দেখব। যদি তারপরেও এই ধরনের অপরিণত পদক্ষেপের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট মিডিয়া হাউসগুলি কোনো সদর্থক পদক্ষেপ না নেয়, তাহলে যথাযথ আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে। সবমিলিয়ে, অভিনেত্রী জুন মালিয়ার বিয়ের খবর করতে গিয়ে প্রখ্যাত অধ্যাপকের জীবন দুর্বিষহ করার অভিযোগে এবার দুষ্ট হলেন বাংলার সাংবাদিককুল!

এই বিষয়ে কি বলছেন সৌরভবাবু নিজে ও তাঁর আইনজীবী পৃথ্বীশবাবু? দেখে নিন একনজরে –

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!