এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > প্রেমচাঁদ ঝাকে প্রার্থী মানছেন না দলেরই একাংশ! গোঁজ-কাটায় বিদ্ধ হতে চলেছে পদ্মশিবির?

প্রেমচাঁদ ঝাকে প্রার্থী মানছেন না দলেরই একাংশ! গোঁজ-কাটায় বিদ্ধ হতে চলেছে পদ্মশিবির?

2016 সালে খড়গপুর বিধানসভা কেন্দ্র থেকে জয়লাভ করেছিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আর তিনি তার জয়ের যাত্রা শুরু করে গোটা বাংলায় বিভিন্ন জায়গায় পদ্ম ফোটাতে সচেষ্ট হয়েছিলেন। অনেক ক্ষেত্রে তা ব্যাপক সাফল্য পেয়েছে। যার ফসল সদ্যসমাপ্ত 2019 এ ঘরে তুলেছে গেরুয়া শিবির।

তবে খড়গপুর বিধানসভার বিধায়ক দিলীপ ঘোষ সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে মেদিনীপুর লোকসভা কেন্দ্রে বিজেপির টিকিটে দাঁড়িয়ে জয়লাভ করেন। আর এরপরই তিনি লোকসভার সদস্য হয়ে যান। যার ফলে তাঁর ছেড়ে যাওয়া খড়গপুর বিধানসভা আসনে উপনির্বাচনের দামামা বাজে।

নির্বাচন কমিশনের ঘোষণা অনুযায়ী, আগামী 25 নভেম্বর এই কেন্দ্রে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। তবে কমিশন দিনক্ষণ ঘোষণা করলে সমস্ত রাজনৈতিক দল তাদের প্রার্থী ঘোষণা করে দেয়। কিন্তু বিজেপির প্রার্থী তালিকা নিয়ে দেরি হওয়ায় নানা মহলে জল্পনা তৈরি হয়েছিল। তৃণমূল খড়গপুরে প্রদীপ সরকারকে প্রার্থী করে এই আসন দখলে রাখতে তৎপর হয়ে উঠেছে।

কিন্তু কে হবে বিজেপির ভূতপূর্ব বিধায়ক দিলীপ ঘোষের ছেড়ে যাওয়া আসনে প্রার্থী! তা নিয়ে গেরুয়া শিবিরে ব্যাপক গুঞ্জন ছড়িয়েছিল। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছে গিয়েছিল যে, দিলীপ ঘোষের ছেড়ে যাওয়া আসনে যাকে-তাকে প্রার্থী করলে, তারা মানবেন না বলেও দলের একাংশকে প্রকাশ্যে বিদ্রোহ ঘোষণা করতে দেখা যায়।

অবশেষে এই খড়গপুর বিধানসভা কেন্দ্রের প্রার্থী ঘোষণা করল বিজেপি। সূত্রের খবর, শনিবার বিকেলে বিজেপির তরফে এই কেন্দ্রের প্রার্থী হিসেবে প্রেমচাদ ঝাঁয়ের নাম ঘোষণা করা হয়। এদিকে প্রার্থী ঘোষণা হওয়ার সাথে সাথেই এবার খড়্গপুরে তীব্র গোষ্ঠী কোন্দলে বিদ্ধ হতে শুরু করল গেরুয়া শিবির।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

জানা গেছে, কোনভাবেই তারা দলীয় প্রার্থীকে মানবেন না বলে ইতিমধ্যেই “বিজেপি বাঁচাও কমিটির” নাম দিয়ে নির্দল হয়ে ভোটে দাঁড়ানোর প্রস্তুতি নিয়েছেন বিজেপির পাঁচবারের প্রার্থী প্রদীপ পট্টনায়েক। যা নির্বাচনের আগে রীতিমতো অস্বস্তিতে ফেলে দিয়েছে গেরুয়া শিবিরকে বলে দাবি রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের। কিন্তু বিজেপির মত শৃঙ্খলাপরায়ন দলে তো এটা হওয়া উচিত নয়, এইভাবে চলতে থাকলে কি বিজেপি খড়গপুর তাদের দখলে রাখতে পারবে!

এদিন এই প্রসঙ্গে জেলা বিজেপির সভাপতি সমিত দাস বলেন, “প্রেমচাঁদ ঝা আমাদের দলের প্রার্থী হয়েছেন। রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের ছেড়ে যাওয়া আসনে দলের প্রার্থীর জয় শুধু সময়ের অপেক্ষা।” এদিকে প্রদীপ পট্টনায়কের মতো প্রবীণ বিজেপি নেতার এইভাবে দলের প্রার্থীর বিরুদ্ধে বিজেপি বাঁচাও কমিটির নাম দিয়ে ভোটে দাঁড়ানোর প্রস্তুতি নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে রাজ্য বিজেপি নেতা তুষার মুখোপাধ্যায় বলেন, “দল যাকে প্রার্থী করেছে, আমরা তার হয়েই কাজ করব। খড়্গপুরের বাসিন্দা আগের মতই বিজেপিকে জয়ী করবেন। যারা বিজেপি করে, বিজেপিকে ভোট দেন, তারা বিজেপির সঙ্গেই আছেন।”

কিছু যেখানে দল একতার কথা বলছে, সেখানে তিনি কেন দলীয় প্রার্থীর বিরুদ্ধে দাঁড়ানোর প্রস্তুতি নিচ্ছেন! এদিন এই প্রসঙ্গে প্রদীপ পট্টনায়েক বলেন, “আমি 40 বছর বিজেপি করেছি। বিজেপি বাঁচাও কমিটির নাম দিয়ে মানুষের কাছে যাব। যারা প্রকৃত বিজেপি সমর্থক, বিজেপি মনোভাবাপন্ন তারাই ঠিক করবেন কে প্রকৃত বিজেপি প্রার্থী!”

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, খড়গপুর বিজেপির শক্ত মাটি হলেও যেভাবে দলীয় প্রার্থী নিয়ে দলের অন্দরে অসন্তোষ দেখা দিচ্ছে, তাতে এখানে তৃণমূল যে অনেকটাই অ্যাডভান্টেজ পেয়ে যাবে, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত সকলেই। তবে এখন কোন্দল মিটিয়ে বিজেপি কতটা লড়াই দিয়ে আবার এই আসন নিজেদের দখলে আনতে পারে, সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!