এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > প্রাথমিক শিক্ষকদের করা মামলায় সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে চাপে রাজ্য

প্রাথমিক শিক্ষকদের করা মামলায় সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে চাপে রাজ্য

রাজ্যে পাঠশালায় শিক্ষাদান পদ্ধতি উঠে যাওয়ার পর গ্রামগুলিতে প্রাথমিক বিদ্যালয় চালু হলে সেখানে অনেকেই শিক্ষকতা করার সুযোগ পেয়েছিলেন। কিন্তু পরবর্তীতে অনেকেই অভিযোগ করেন যে তাঁরা চাকরি পাননি। যদিও বা এক্ষেত্রে সেই অভিযোগকারীদের বয়স ও শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে আনেকে প্রশ্ন তুলতে শুরু করেন। আর এরপরই “ওয়েস্টবেঙ্গল প্রাইমারি সংগঠক শিক্ষক সমিতি” র নামে কিছু ব্যাক্তি  একজোট হয়ে আদালতের দ্বারস্থ হয়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

শিক্ষক পদের জন্য তাঁদেরও যাতে স্ক্রুটিনি করা হয়, সেই ব্যাপারেও আবেদন জানানো হয় সুপ্রিম কোর্টে। আর তাই প্রাথমিকে শিক্ষকদের এই চাকরির ব্যাপারে রাজ্যের মত জানতে চাইল সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি ক্যুরিয়ন জোসেফ ও বিচারপতি সঞ্জয় কিষান কওলের ডিভিশন বেঞ্চ।

তবে এর আগে বিদ্যালয়ের শিক্ষাসচিব, অতিরিক্ত সচিব, প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের চেয়ারম্যানকে নিয়ে এর আগে তিন সদস্যের একটি “ভেরিফিকেশন কমিটি” গড়ে দিলেও এদিন তার কাজেও অসন্তোষ প্রকাশ করেছে আদালত।তাই এদিন স্কুটিনির জন্য “পশ্চিমবঙ্গ লিগাল এইড অথরিটি”কেও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সব মিলিয়ে শিক্ষকদের প্রাথমিকে নিয়োগ নিয়ে রাজ্যের কাছে মতামত জানতে চাইল সুপ্রিম কোর্ট।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!