এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > 100 দিন পরে ভোট, তৃণমূলকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ প্রশান্ত কিশোরের, জোর জল্পনা!

100 দিন পরে ভোট, তৃণমূলকে প্রস্তুত থাকার নির্দেশ প্রশান্ত কিশোরের, জোর জল্পনা!

প্রায় প্রতিটি রাজনৈতিক দলেরই উচিত, নিজেদের কর্মকাণ্ড এমনভাবে তৈরি করা, যাতে যে সময়ই নির্বাচনে আসুক না কেন, তারা যেন তার সম্মুখীন হতে পারে। বিশেষজ্ঞ থেকে রাজনৈতিক মহল, প্রায় প্রত্যেকেই রাজনৈতিক দলগুলোকে ভোটে সাফল্য পাইয়ে দেওয়ার জন্য এই টনিকই দিয়ে থাকেন। আর এবার 2021 এর বিধানসভা নির্বাচনে তৃতীয় বারের জন্য তৃণমূল কংগ্রেস যাতে রাজ্যের ক্ষমতা দখল করে, তার জন্য গোটা তৃণমূল পরিবারকে সেই নির্দেশই দিলেন ভোটগুরু প্রশান্ত কিশোর।

বেঁধে দিলেন 100 দিনের সময়সীমা। বস্তুত, গত লোকসভা নির্বাচনে সারা রাজ্য জুড়ে বিজেপি আঠারোটি আসন নিজেদের দখলে রেখেছে। যেখানে তৃণমূল কংগ্রেস 22 টা আসন পেয়ে কোনোরকমে নিজেদের মুখ রক্ষা করেছে। তবে রাজ্যজুড়ে ঘাসফুলের বাড়বাড়ন্ত হলেও কেন এই স্বল্প আসনে জিততে হল তৃণমূলকে! তা নিয়ে চলে জোর পর্যালোচনা। যেখানে দেখা যায়, দলের কর্মসূচির অভাব, দলীয় নেতৃত্বের একাংশের মধ্যে দুর্নীতি এবং জনসংযোগের অভাব প্রধানভাবে দায়ী।

আর এরপরই দলের রননীতিকার হিসেবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রশান্ত কিশোরের হাতে দায়িত্ব তুলে দেন। যার পরে “দিদিকে বলো” কর্মসূচির মাধ্যমে গোটা রাজ্যজুড়ে তৃণমূলের প্রতি সাধারণ মানুষের আবেগ ফেরাতে সক্ষম হন প্রশান্ত কিশোরর। জনসংযোগ কর্মসূচির মধ্য দিয়েই যে সদ্যসমাপ্ত রাজ্যের তিন বিধানসভা উপনির্বাচনে ঘাসফুল শিবির সাফল্য পেয়েছে, তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এই পরিস্থিতিতে দলের সংগঠনকে আরও চাঙ্গা করতে এবং দলকে কর্মসূচির মধ্যে দিয়ে নিয়ে যেতে দলীয় নেতৃত্বদের একগুচ্ছ নির্দেশ দিলেন ভোটগুরু প্রশান্ত কিশোর। জানা গেছে, বিগত লোকসভা নির্বাচনে উত্তর 24 পরগনা জেলায় তৃণমূলের ঘাড়ের উপর নিঃশ্বাস ফেলেছে বিজেপি। এখানকার দুটি আসন দখল করে নিয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টি। আর একসময় তৃণমূলের একচ্ছত্র ক্ষমতা থাকা উত্তর 24 পরগনা জেলার যাতে আগামী বিধানসভায় খারাপ ফল না হয়, তার জন্য এখন থেকেই সেখানকার জেলা নেতৃত্বকে নির্দেশ দিতে শুরু করেছেন তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব।

কলকাতা সংলগ্ন এই জেলার সবকটি বিধানসভা আসনেই যাতে জয়লাভ করা যায়, তার জন্য এবার সেখানকার নেতৃত্বকে সব সময় প্রস্তুত থাকতে বললেন ভোট কৌশলী প্রশান্ত কিশোর। সূত্রের খবর, এদিন তিনি বলেন, “ভোটের জন্য এমন ভাবে প্রস্তুতি নিতে হবে, যাতে প্রয়োজনে 100 দিনের মধ্যে ভোট হলেও সব তৈরি থাকে।” অর্থাৎ প্রশান্ত কিশোরের এই মন্তব্য থেকে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশ বলছেন, তৃণমূলের অনেক নেতাকর্মীরা ক্ষমতায় আসার পর আলস্যতাকে গ্রাস করে নিয়েছেন।

তাই বর্তমানে তৃণমূল কংগ্রেসকে তিনি যেভাবে কর্মসূচির মাধ্যমে সচেষ্ট করে তুলেছেন, তাতে যদি তৃণমূল নেতারা আবার ঝিমিয়ে পড়ে, তাহলে তাঁদের উজ্জীবিত করা বড় সমস্যা। ফলে সেদিক থেকে বছর ঘুরতেই পৌরসভা নির্বাচন এবং তারপর বিধানসভা নির্বাচনের জন্য এখন থেকেই দলকে প্রস্তুত হওয়ার নির্দেশ দিলেন ভোটগুরু বলে মত রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের। কিন্তু প্রশান্ত কিশোর তৃণমূলের ভালোর জন্য জেলা নেতাদের এহেন নির্দেশ দিলেও তা কতটা সুষ্ঠুভাবে পালন করে তৃণমূল নেতৃত্ব! এখন সেদিকেই তাকিয়ে গোটা রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!