এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > এবার কি পাকাপাকিভাবে শাসক দলে যোগ দিচ্ছেন প্রশান্ত কিশোর! জল্পনা তুঙ্গে!

এবার কি পাকাপাকিভাবে শাসক দলে যোগ দিচ্ছেন প্রশান্ত কিশোর! জল্পনা তুঙ্গে!


বেশ কিছুদিন আগে জেডিইউ থেকে বহিষ্কৃত হয়েছেন বিশিষ্ট নির্বাচনী রননীতিকার প্রশান্ত কিশোর। আর ভোটগুরু বলে পরিচিত এই ব্যক্তিত্ব জেডিইউ থেকে বহিষ্কৃত হওয়ার পর তার পরবর্তী রাজনৈতিক ভবিষ্যত কী হবে, তা নিয়ে নানা মহলে তৈরি হয়েছিল জল্পনা। কেননা জেডিইউয়ের নীতীশ কুমার দলের সঙ্গে বিভিন্ন বিষয় মতানৈক্যের জন্য প্রশান্ত কিশোরকে বহিস্কার করেছেন ঠিকই।

কিন্তু তার মত নির্বাচনী রণনীতিকারকে কাছে পেতে যে মরিয়া হবে সকল রাজনৈতিক দলই, তা প্রায় স্পষ্ট ছিল সকলের কাছে। তাই জেডিইউ থেকে বহিষ্কৃত হওয়ার পর নিতিশ কুমার কি করেন, তার দিকে নজর যেমন ছিল পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের, ঠিক তেমনই দিল্লির শাসক দল আম আদমি পার্টির। কেননা জেডিইউয়ের দায়িত্বে থাকলেও এই দুই রাজনৈতিক দলের দায়িত্ব সামলেছেন প্রশান্ত কিশোর।

সম্প্রতি দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে আম আদমি পার্টি সাফল্যের পেছনেও তার অবদান রয়েছে বলে দাবি করেন একাংশ। তাই শুধুমাত্র রণনীতিকার হিসেবেই নয়, পাকাপাকিভাবে যদি তিনি এই দুই দলের মধ্যে কোনো একটি দলে যোগ দেন, তাহলে সেই দল যে অত্যন্ত লাভবান হবে, সেই ব্যাপারে নিশ্চিত ছিল প্রত্যেকেই।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এমনকি নিতিশ কুমার প্রশান্ত কিশোরকে বহিস্কার করে দেওয়ার পরেই তিনি যদি তৃণমূল কংগ্রেসে আসেন, তাহলে তাদের কোনো আপত্তি নেই বলে জানিয়ে দিয়েছিলেন তৃণমূল মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তবে তারপরেও পাকাপাকিভাবে তৃণমূল কংগ্রেসের না লিখিয়েই রণনীতির হিসেবে কাজ করে গেছেন প্রশান্তবাবু। তবে এবার আম আদমি পার্টিতে প্রশান্ত কিশোরের অন্তর্ভুক্তি নিয়ে জল্পনা বাড়িয়ে দিলেন আম আদমি পার্টির নেতা সঞ্জয় সিং।

সূত্রের খবর, এদিন এক সাংবাদিক সম্মেলনে সঞ্জয় সিং বলেন, “প্রশান্ত কিশোর যদি আম আদমি পার্টিতে যোগদান করতে চান, তাহলে দলের তরফে কোনো আপত্তি থাকবে না। তবে এটা প্রশান্ত কিশোরকেই ঠিক করতে হবে যে তিনি আমাদের দলে যোগ দেবেন কিনা।” আর সঞ্জয়বাবুর এই কথাতেই এখন ছড়িয়ে পড়েছে জল্পনা। অনেকেই বলছেন, হঠাৎ করে কেন প্রশান্ত কিশোর সম্পর্কে এই রকম মন্তব্য করতে গেলেই সঞ্জয় সিং!

তাহলে কি তারা জেনে বুঝেই আম আদমি পার্টিতে তাদের দলের রণনীতিকার প্রশান্ত কিশোরের পাকাপাকিভাবে নাম লেখানোর পক্ষে সওয়াল করে তাকে দলে স্বাগত জানানোর চেষ্টা করলেন! তবে অতীতেও প্রশান্ত কিশোরকে নিজেদের দলে পেতে অনেক রাজনৈতিক দল চেষ্টা করেছেন। কিন্তু জেডিইউ থেকে বহিষ্কার হওয়ার পর এখন তার রাজনৈতিক অভিষেক কোথায় ঘটে, আদৌ তিনি কোনো রাজনৈতিক দলের নাম লেখান, নাকি বিভিন্ন দলের রণনীতিকার হিসেবেই কাজ করে যান, সেদিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!