এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > উত্তরবঙ্গ > পাঁচ বছরে বদলে গিয়েছে রাজনৈতিক মানচিত্র- রায়গঞ্জে তৃণমূলের প্রার্থী নিয়ে তীব্র জল্পনা শুরু দলের অন্দরেই

পাঁচ বছরে বদলে গিয়েছে রাজনৈতিক মানচিত্র- রায়গঞ্জে তৃণমূলের প্রার্থী নিয়ে তীব্র জল্পনা শুরু দলের অন্দরেই

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যের কোন জেলায় শাসকদলের তরফ থেকে কে প্রার্থী হবেন তা নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রবল জল্পনা ছড়িয়ে পড়েছে। যেখানে ব্যতিক্রম নয় উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রটিও। সূত্রের খবর, এবার এখানে তৃণমূলের প্রার্থী হিসেবে জেলার কোন নেতাকেই দাঁড় করানো হতে পারে। যদিও বা সেই বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত রাজ্য নেতৃত্বই নেবে বলে খবর।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত 2014 র লোকসভা নির্বাচনে অনেক আশা করে প্রয়াত কংগ্রেস নেতা প্রিয়রঞ্জন দাশমুন্সির ভাই সত্যরঞ্জন দাশমুন্সিকে দাঁড় করিয়ে এই রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রটি নিজেদের দখলে রাখতে চেয়েছিল শাসক দল। কিন্তু সেই আশা পূর্ণ হয়নি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

কংগ্রেসের দীপা দাশমুন্সির বিরুদ্ধে সামান্য ভোটে জিতে এই আসন নিজেদের দখলে এনেছিলেন সিপিএমের মহম্মদ সেলিম। এদিকে তৃতীয় স্থানে বিজেপি এবং চতুর্থ স্থানে ছিল তৃণমূল। কিন্তু তৎকালীন সময়ের থেকে রায়গঞ্জের বর্তমান রাজনৈতিক চিত্রের অনেকটাই ফারাক রয়েছে।

বর্তমানে উত্তর দিনাজপুর জেলার নটি বিধানসভা আসনের মধ্যে পাঁচটি, উত্তর দিনাজপুর জেলা পরিষদ, নটি পঞ্চায়েত সমিতি, অধিকাংশ পঞ্চায়েত ও পৌরসভা তৃণমূলের দখলে রয়েছে। ফলে এই জেলায় শাসকদলের ভিত এখন অনেকটাই মজবুত। কিন্তু এই মজবুত ভীতে তৃনমূলের সারথি হবেন কে?

এদিন এই প্রসঙ্গে উত্তর দিনাজপুর জেলা তৃণমূলের সভাপতি অমল আচার্য বলেন, “আগামী লোকসভা নির্বাচনে এই জেলা থেকেই কেউ লোকসভার প্রার্থী হতে পারেন। তবে এর বেশি আর কিছুই বলব না”। সব মিলিয়ে এখন রায়গঞ্জ লোকসভা কেন্দ্রে তৃণমূলের প্রার্থী ঠিক কে হন এখন সেই দিকেই তাকিয়ে রাজনৈতিক মহল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!