এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুলিশকে জখম থেকে তৃণমূল নেতা খুনে অভিযুক্ত অবশেষে পুলিশের জালে, শুরু বিচার প্রক্রিয়া

পুলিশকে জখম থেকে তৃণমূল নেতা খুনে অভিযুক্ত অবশেষে পুলিশের জালে, শুরু বিচার প্রক্রিয়া

অবশেষে পুলিশের আক্রান্ত হওয়া থেকে শুরু করে তৃণমূল নেতা খুনে ফেরার অভিযুক্ত প্রদীপ গুহকে হাতেনাতে ধরল পুলিশ। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, গত 2015 সালের 18 আগস্ট ট্যাংরা থানার বৈশাখী মোড়ে দুই গোষ্ঠীর সংঘর্ষে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়।

ইটবৃষ্টি ও ব্যাপক বোমাবাজিতে বেশ কয়েকটি পুলিশের গাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পাশাপাশি তিনজন পুলিশকর্মী আক্রান্তও হন। আর এরপরই এই ঘটনায় একাধিক ব্যক্তির বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা রুজু করে পুলিশ। যার মধ্যে অভিযুক্ত হিসেবে নাম ছিল প্রদীপ গুহ নামে এক ব্যক্তিরও।

এদিকে এই মামলায় চার্জশিট পেশের পরবর্তী সময়ে অভিযুক্তদের সকলে জামিন পেয়ে গেলেও শুনানি শুরু হওয়ার সময় কেবলমাত্র কোর্টে গরহাজির থাকতে দেখা যায় সেই প্রদীপ গুহকে। ফলে মামলার শুনানিও অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ হয়ে যায়। আর এহেন একটা পরিস্থিতিতে আদালতের পক্ষ থেকে পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয় যে, সেই প্রদীপ গুহর বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করে অবিলম্বে তাকে খুঁজতে।

পাল্টা পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয় যে ,অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাশি চালালেও এখনও পর্যন্ত তার টিকিটিও খুঁজে পাওয়া যায়নি। আর এই পুলিশ জখম মামলায় যখন সেই প্রদীপ গুহকে খুঁজতে আদালত কড়া নির্দেশনামা জারি করছে, ঠিক তখনই এই বছরেরই মার্চ মাসে ট্যাংরারার তৃণমূল নেতা বাবু সরকার খুনেও সেই অভিযুক্ত হিসেবে নাম উঠে আসে প্রদীপ গুহর।

এই ঘটনার পর শিয়ালদহ আদালত সেই অভিযুক্তর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির পাশাপাশি হুলিয়া জারির নির্দেশ দিলে অন্তরালে থেকেই সেই খুনের মামলা থেকে জামিন পেতে আইনজীবীকে দিয়ে দক্ষিণ 24 পরগনা জেলা দায়রা ও জজের এজলাসে একটি আবেদন জানায় সেই প্রদীপ গুহ। এরপরই তার মক্কেল এই খুনে জড়িত নয় বলে সেই প্রদীপ গুহর ব্যাপারে আদালতে জামিনের আবেদন জানান তার আইনজীবী।

যদিও বা সরকারি আইনজীবী এই পুরো ঘটনার প্রবল বিরোধিতা করেন। আর এরপরই আদালত সমস্ত নথিপত্র দেখে সেই অভিযুক্ত প্রদীপ গুহের জামিনের আবেদন নাকচ করে দেন। এদিকে অন্তরালে থেকেও শেষ রক্ষা হল না প্রদীপবাবুর। সম্প্রতি উত্তর কলকাতা থেকে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে সেই অভিযুক্ত প্রদীপ গুহকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর মূল অভিযুক্ত গ্রেফতার হওয়ায় এবার পুলিশের জখম এবং ট্যাংরার তৃণমূল নেতা খুনের মামলার জট অনেকটাই কেটে যাবে বলে মনে করছে তদন্তকারী কর্তারা। এদিন এই প্রসঙ্গে সরকারি আইনজীবী বরুন দত্ত বলেন, “তৃণমূল নেতা খুনের মামলা ও পুলিশ জখমের মামলাটি একই এজলাসে চলবে। বর্তমানে এই অভিযুক্ত হাজতে রয়েছে। আর তাকে জেল হেফাজতে রেখেই এই দুই মামলার শুনানির জন্য আমরা কোর্টে আবেদন জানাব।”

আপনার মতামত জানান -
Top