এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > দিদির নয় দাদার পুলিশ দিয়ে লোকসভায় ভোট হবে, দিদিমণির নবান্ন ঘেরাও হবে: দিলীপ ঘোষ

দিদির নয় দাদার পুলিশ দিয়ে লোকসভায় ভোট হবে, দিদিমণির নবান্ন ঘেরাও হবে: দিলীপ ঘোষ

রাজ্য পুলিশ নয় কেন্দ্রীয় বাহিনী দিয়ে হবে লোকসভা নির্বাচন। এদিন সে কথায় ঘোষণা করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।  লোকসভা ভোটের নিরাপত্তা প্রসঙ্গে শুক্রবার খড়গপুর গ্রামীণ এলাকার মুকসুদপুর বাজারের এক দলীয় সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি বলেন,”লোকসভা ভোটে দিদির পুলিসকে বুথে যেতে দেব না। ঘরে ঢুকে থাকতে হবে। ভোট করবে দাদার পুলিস।”

বিজেপির রাজ্য সভাপতি এদিন আরও বলেন, “পুলিস যদি তৃণমূলের ক্যাডারের মতো কাজ করে, তাহলে তাদেরও তৃণমূল ক্যাডারদের সমান ট্রিটমেন্ট করা হবে। এখানে পুলিস তৃণমূলের ক্যাডারের মতো কাজ করছে। এটা চলতে থাকলে আমরাও তৃণমূল ক্যাডারদের মতই আচরণ করব পুলিশের সাথে। ”

লোকসভা ভোটের আগে পুরসভা ও করপোরেশনের ভোট না হওয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, “তৃণমূল ভয় পেয়ে গিয়েছে। তাই পুরসভা, কর্পোরেশনের ভোট করল না।” এছাড়াও রাজ্যে পরিবর্তন প্রসঙ্গে দিলীপ জানান, “সিপিএম সীমাহীন অত্যাচার করেছিল তাই রাজ্যে পরিবর্তন হয়েছে। কিন্তু, তৃণমূল তো সিপিএমের চেয়েও বেশি অত্যাচার করছে। আর সেই কারণেই আবার পরিবর্তনের ডাক দিয়েছে বিজেপি। দুর্নীতি, মিথ্যাচার, লুটপাটের রাজনীতি বন্ধ করতেই পরিবর্তন চাই।

বাংলার পরিবর্তন দরকার আছে। এই পরিবর্তন একমাত্র বিজেপি দিতে পারে। তাই গণতন্ত্রকে বাঁচাতে রাজ্যবাসীর স্বার্থে পরিবর্তনের জন্য বিজেপি লড়াই করছে। পরিবর্তন হবেই। তার জন্যই গণতন্ত্র বাঁচাও রথযাত্রা।তৃণমূল প্রতি এই রথযাত্রা আটকানোর চেষ্টা করে তবে তার যোগ্য উত্তর দেওয়া হবে। চামচা পুলিস আর গুণ্ডা দিয়ে বিজেপির সভা আটকাতে এলে কাউকে ছাড়ব না। দরকার হলে দিদিমণির নবান্ন ঘেরাও করা হবে। ”

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এমনকি এদিন তিনি ফিরহাদ হাকিমকে মেয়র করার প্রসঙ্গেও তৃণমূলকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি। তিনি বলেন,” দিদিমণির তো এখন কাজের লোকের চাইতে কাছের লোকের বেশি দরকার। তাই আইন বদল করে কাউন্সিলারদের বাইরে থেকে কলকাতার মেয়র করতে হল। এটা সাংবিধানিকভাবে হয়েছে কি না আমরা তা খতিয়ে দেখছি।”পাশাপাশি শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বিজেপিতে যোগদানের সম্ভাবনা নিয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “আগে উনি দল ছাড়ুন, তারপর আমাদের দলে আসবেন কি না ভাবব।”

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!