এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > পচা আলুদের দলে নিয়ে লাভ নেই, স্বীকৃতি সম্মেলনে দাবি অনুব্রতর!

পচা আলুদের দলে নিয়ে লাভ নেই, স্বীকৃতি সম্মেলনে দাবি অনুব্রতর!

Priyo Bandhu Media

দল ক্ষমতায় না থাকার সময় যে সমস্ত কর্মীরা লড়াই করেছিলেন, ক্ষমতায় আসার পর সেই সমস্ত কর্মীরা আর সেভাবে পাত্তা পাচ্ছিলেন না তৃণমূল কংগ্রেসে। যার ফলে সেই দুর্দিনে পুরাতন বসে যাওয়া কর্মীদের সক্রিয় করতে প্রশান্ত কিশোরের পরামর্শ মতো তৃণমূলের তরফে “বাংলার গর্ব মমতা” কর্মসূচির মধ্যে রাখা হয়েছিল স্বীকৃতি সম্মেলন। কিছুদিন আগেই রাজ্যের প্রতিটি বিধানসভা কেন্দ্রে তৃণমূলের পুরানো কর্মী-সমর্থকদের এই সম্মেলনের মাধ্যমে সম্মান জানানো হয়, বাদ ছিল না বীরভূম জেলাও।

যার অঙ্গ হিসেবে রামপুরহাট তৃণমূল কংগ্রেসের কার্যালয়ে উপস্থিত হন অনুব্রত মণ্ডল। আর সেখানেই পুরাতন কর্মীদের সম্মান জানানোর কথা শোনা যায় তার গলায়। তিনি বলেন, “যারা সত্যি করেই দলের পুরোনো কর্মী, যারা দলের সঙ্গে কাজ করতে চান, তাদের জন্য সবসময় দরজা খোলা ছিল।” তবে কিছু কর্মীদের ব্যাপারে এদিন গুরুত্বহীনতার কথাও শোনা যায় অনুব্রত মণ্ডলের গলায়। তিনি বলেন, “যে আলু একেবারে পচে গিয়েছে, তাকে নিয়ে দলের কোনো কাজ হবে না। তাকে নিয়ে লাভও নেই।”

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

এদিকে সাধারণের জন্য যাতে সকলে কাজ করেন, তার জন্যেও এদিন সকলকে নির্দেশ দেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি। সিউড়িতে বীরভূম জেলা পরিষদের কনফারেন্স হলে আয়োজিত কর্মচারী সমিতির নবম সম্মেলনে যোগ দিয়ে তিনি বলেন, “34 বছর ধরে আপনারা কেউ কেউ পরিষেবা দিচ্ছেন। কোনো দল আমরা করি না। একটা জায়গায় দাঁড়িয়ে বলতেই হবে, এইরকম মুখ্যমন্ত্রী পাওয়া যাবে না। যিনি উন্নয়নের জন্য পাগল। তিনি উন্নয়ন ছাড়া কিছু বোঝেন না।”

তিনি আরও বলেন, “কাজের নিরিখে জেলা পরিষদকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। যাতে জেলা পরিষদের কাজ দেখে মানুষের দৃষ্টি আকর্ষণ হয়।” এদিকে পুরাতন কর্মীদের সম্মান জানানো সম্পর্কে এদিন রামপুরহাট তৃণমূল বিধায়ক তথা রাজ্যের কৃষিমন্ত্রী আসিস বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “দলকে আরও শক্তিশালী করতে, প্রবীণ ও নিষ্ক্রিয় কর্মীদের সক্রিয় করে তুলতেই এই কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে।” সবমিলিয়ে রাজ্যের অন্যান্য বিধানসভা কেন্দ্রের মত অনুব্রত মণ্ডলের গড়েও পুরাতন তৃণমূল কর্মীদের স্বীকৃতি সম্মেলন অনুষ্ঠিত হল।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!