এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > ১৫ লক্ষ করে টাকা দেবার কথা বলেননি প্রধানমন্ত্রী, দাবী বিজেপি সংসদের

১৫ লক্ষ করে টাকা দেবার কথা বলেননি প্রধানমন্ত্রী, দাবী বিজেপি সংসদের

“বিরোধীরা প্রধানমন্ত্রীর নামে এই প্রতিশ্রুতির কথা বলে জনমানসে ভুল বোঝাবুঝি,বিভ্রান্তি তৈরি করছেন মিথ্যে তথ্য দিয়ে। ১৫ লক্ষ টাকা করে প্রতিটি নাগরিকের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে দেওয়ার কথা বিজেপির ইস্তেহারেও নেই।” এমন কথাতেই গর্জে উঠলেন এদিন বিজেপির সাংসদ অমর সাবলে এক সাংবাদিক সম্মেলনে। সম্প্রতি চার বছর পূর্ণ হয়েছে এনডিএ সরকারের। তাই মহাসমারোহে উদযাপণ পর্ব চলছে দেশের বিভিন্ন জায়গায়। এরকম পরিস্থিতিতেই লোকসভা ভোটের আগে এই মন্তব্য করলেন বিজেপির প্রিয় সাংসদ। তাঁর এই বিতর্কিত মন্তব্যের জেরে গুঞ্জন শুরু হয়েছে বিরোধী মহলে। প্রতিশ্রুতি পালনে ব্যর্থ মোদী সরকার এমনটাই দাবী করছেন তাঁরা।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

প্রসঙ্গত, রাজনৈতিক সূত্রের খবর থেকে জানা যাচ্ছে যে, ভারতের প্রধানমন্ত্রীর কার্যভার গ্রহণের আগে নরেন্দ্র মোদী আশ্বাস দিয়েছিলেন যে বিদেশ থেকে কালো টাকা উদ্ধার করে তা সাদা করে বিলিয়ে দেবেন দেশের আমজনতার ভিতর। ২০১৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে এমনটাই বলেছিলেন তিনি। সেই কর্মসূচিকে বাস্তবায়িত করতে প্রত্যেক নাগরিককে জনধন যোজনা প্রকল্পের আওতায় আনতে চেয়েছিলেন তিনি। মোদীজির কথা অক্ষরে অক্ষরে ভরসা করে দেশের প্রতিটি নাগরিকই জিরো ব্যালেন্সের একাউন্ট খুলেছিলেন ব্যাঙ্কে। কথা ছিল প্রত্যেকে নাগরিকের একাউন্টে ঢুকবে ১৫ লক্ষ টাকা। কিন্তু দেশের শাসনভার গ্রহণ করার পর ৪ বছর কেটে গেলেও সেই প্রতিশ্রুতি পূরণ হয়নি। এখন আবার বিজেপির সাংসদ জোর গলায় দাবী করছেন যে মোদীজি এমন কোনো কথা বলেননি। এরকম পরিস্থিতিতে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন যে এই পরিকল্পনার বাস্তবায়ন সম্ভবই ছিল না, তাই বিজেপি এখন কথার খেলাপ করছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!