এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় এবার রামের জন্য ঘর চাই – দাবী বিজেপি সাংসদ

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় এবার রামের জন্য ঘর চাই – দাবী বিজেপি সাংসদ

প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনায় এবার রামের জন্য ঘর চেয়ে মোদী সরকারকে অস্বস্তিতে ফেললেন উত্তরপ্রদেশের ঘোসির বিজেপি সাংসদ হরিনারায়ণ রাজভার। বক্তব্যে তিনি জানিয়েছেন, ভগবান রামকে এখানে তাঁবুতে বাস করতে হচ্ছে। তাই তাঁর জন্যে এই যোজনার আওতায় একটি ঘর চেয়ে অযোধ্যার জেলাশাসকের কাছে চিঠি লিখেছেন তিনি। বলেছেন, উত্তরপ্রদেশের গৃহহীনের প্রবল ঠান্ডার হাত থেকে বাঁচানোর জন্যে সরকার যথাসাধ্য চেষ্টা করছে। তাদের আশ্রয়ের ব্যবস্থা করে দেওয়ার জন্য বদ্ধপরিকর সরকার অথচ রাম মন্দির নির্মান নিয়ে কোনো মাথাব্যাথা নেই মোদীর।

উল্লেখ্য,সম্প্রতি উত্তরপ্রদেশের বিজেপি বিধায়ক সুরিন্দর সিং গণমাধ্যমে রাম মন্দির নিয়ে আক্ষেপ করে বলেছিলেন, হিন্দুত্ববাদী নেতার হাতে দেশের শাসনভার রয়েছে, যোগী-র মতো হিন্দুত্ববাদী নেতা উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রীর কুর্সিতে রয়েছেন। অথচ তাঁদের আমলেও রামের ঠাঁই সেই তাঁবুতেই রয়ে গেল! অত্যন্ত উদ্বেগ প্রকাশ করে এটাকে ভারত এবং হিন্দু সমাজের দুর্ভাগ্য বলেই বর্ণনা করেছিলেন তিনি। সঙ্গে এটাও বলেছিলেন এমন পরিস্থিতি তৈরি করতে হবে যাতে অযোধ্যায় রাম মন্দির নির্মাণ হয়।

যদিও এটা বলার পর মোদী-শাহের রোষের শিকার হতে হয়েছিল তাকে। একই ধরণের কথার পুনরাবৃত্তি করার জন্যে হরিনারায়ণ রাজভার বিজেপির কোপের মুখে পড়েন কিনা তা নিয়ে জল্পনা শুরু হয়েছে রাজনৈতিকমহলে। প্রসঙ্গত, অযোধ্যার রামমন্দিন নির্মান নিয়ে বিতর্ক বহুদিনের। ১৯৯২ সালে বাবরি মসজিদ ধ্বংসের পর থেকেই মন্দির তৈরির দাবী জোড়ালো হয়। একইসঙ্গে অযোধ্যার জমি নিয়েও তৈরি হয় বিতর্ক। দীর্ঘদিন সুপ্রিম কোর্টে এই ইস্যুতে মামলাও চলে।

২০১৪ সালের লোকসভা ভোটের আগে রাম মন্দির নির্মানের প্রতিশ্রুতি দিয়েই কেন্দ্রের ক্ষমতায় আসেন। অথচ এখনো মোদী জামানায় রাম মন্দির নির্মান হল না। এ নিয়ে প্রতিবাদে বিরোধীরা যেমন সরব,তেমনি এই ইস্যুতে মোদী আরএসএস, শিবসেনা, বিশ্ব হিন্দু পরিষদের ত্রিমুখী চাপও সহ্য করতে হয়েছে। তবুও এখনো এই রামমন্দির ইস্যুর নিষ্পত্তি হল না। ফের আসতে গেল আরো একটা লোকসভা নির্বাচন।

তবে বাবরি মসজিদ ধ্বংসের পর পূর্ণাঙ্গভাবে রামমন্দির নির্মান না হলেও অযোধ্যায় অস্থায়ী একটি রামমন্দির তৈরি করা হয়েছিল। সেই মন্দিরে রাম এবং তাঁর তিন ভাই লক্ষণ,ভরত এবং শত্রুঘ্নের মূর্তি রাখা রয়েছে। গতবছর দেবতাদের অবহেলার অভিযোগ তুলে বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে মুখ খুলতে শুরু করেছিল বিশ্ব হিন্দু পরিষদ।

ঠিক তার পরের শীতেই অস্বাস্থী রামমন্দিরটিতে একটি ব্লোয়ার বসানো হয় রাম লালা অর্থাৎ শিশু রামকে ঠান্ডার হাত থেকে রক্ষা করার জন্যে। এখন এই প্রেক্ষিতে রামের জন্যে বাড়ি চেয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে চিঠি দিলেন যোগীর রাজ্যের বিজেপি সাংসদ। এখন চিঠি নিয়েই জোর চর্চা শুরু হয়েছে রাজনৈতিকমহলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!