এখন পড়ছেন
হোম > অন্যান্য > পেঁয়াজের জন্য চোখের জল না ফেলে বাড়িতেই সহজে করতে পারেন সমাধান! কিভাবে? জেনে নিন বিস্তারিত

পেঁয়াজের জন্য চোখের জল না ফেলে বাড়িতেই সহজে করতে পারেন সমাধান! কিভাবে? জেনে নিন বিস্তারিত

পেঁয়াজের দাম নিয়ে ইতিমধ্যে নাকের জলে চোখের জলে অবস্থা সাধারণ নাগরিকের। পেঁয়াজের ঝাঁজ সামলাতে নাজেহাল হতে হচ্ছে সবাইকে। পেঁয়াজের বাজার দর রীতিমতো অগ্নিমূল্য। 70-80 পেরিয়ে ক্রমশ পিয়াজের মূল্য দেড়শ টাকা/ কেজি হতে চলেছে। এই পরিস্থিতিতে সাধারণ মানুষের মাথায় হাত পড়েছে। কারণ রান্নাঘরে মধ্যবিত্তের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের মধ্যেই পরে পেঁয়াজ। পেঁয়াজ ছাড়া কোন রান্না ভাবাই যায় না। তবে পেঁয়াজের দাম যেভাবে পাল্লা দিয়ে বেড়ে চলেছে তাতে লাগাম দিতে বাড়িতেই অন্যরকম সমাধানের কথা ভেবে দেখা উচিত।

পেঁয়াজের দাম এবার ছুঁতে চলেছে দেড়শ টাকার গন্ডি। এই পরিস্থিতিতে বাজারে গিয়ে পেঁয়াজ ছুঁতে পারছেন না গৃহস্থরা। এদিকে হেঁসেলেও পিঁয়াজ ছাড়া চলবে না। অতএব পকেটের টান পড়েছে তাঁদের। মধ্যবিত্ত পরিবার পেঁয়াজ নিয়ে টানাপোড়েনে ভুগছেন। পেঁয়াজ দিয়ে রান্না করবেন না পেঁয়াজ ছাড়া রান্না করবেন তা নিয়ে। তবে পেঁয়াজের দামের সাথে পাল্লা দেওয়া দিনদিন অসম্ভব হয়ে উঠছে। এই পরিস্থিতি থেকে বাঁচার একটাই রাস্তা। তা হলো, নিজেদের বাড়িতেই পেঁয়াজ চাষ করার কথা ভাবা উচিত। পেঁয়াজ চাষ করতে গেলে যে পদ্ধতিতে করতে হবে তার সম্পূর্ণ বিবরণ দেওয়া হলো।

পেঁয়াজ চাষের জন্য প্রয়োজন মাঝারি আকারের একটি টবের। একান্তই মাঝারী আকারের টব না পেলে ছোট টবেও কাজ চালানো যেতে পারে। আলাদা একটি পাত্রে বেলে এবং দোআঁশ মাটি মিশিয়ে টবে ভর্তি করতে হবে। বাজার থেকে শিকড় বেরনো বা শিকড় না বেরোনো যেকোনো পেঁয়াজ কিনে আনলেই হবে। যদি পিঁয়াজের শিকড় না বেরোয়, তাহলে তার মুখের দিক ও পিছনের দিকে সামান্য অংশ কেটে ফেলতে হবে। শিকড় হওয়া পিঁয়াজের ক্ষেত্রে এসবের প্রয়োজন নেই।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

টব ভর্তি মাটির মধ্যে এবার আঙ্গুল দিয়ে গর্ত করে পিঁয়াজটি ঢুকিয়ে দিয়ে উপরে হালকা মাটির আস্তরণ দেওয়া যেতে পারে। এবার হালকা হাতে অল্প করে জল দিয়ে সূর্যের আলো আসে এমন জায়গায় টবটিকে রাখুন। 6 থেকে 10 দিন পর দেখা যাবে টবের মধ্যে পেঁয়াজ পাতা বেরিয়েছে। পেঁয়াজ পাতা বেঁকে গিয়ে গাছের ঘাড় বা গলা শুকিয়ে ভেঙে গেলে বুঝতে হবে, পিঁয়াজ তোলার সময় এসে গেছে। পিঁয়াজ টবে পোঁতার 110 থেকে 120 দিনের মধ্যেই তোলার সময় এসে যায়। তাই পরামর্শ অনুযায়ী বাড়িতেই টবে পিঁয়াজ গাছ করলে আখেরে লাভ হবে নিজেরই।

বিগত কয়েক দিন ধরেই রান্নাঘরের পিঁয়াজের ঊর্ধ্বমুখী দাম হবার ফলে সাধারণ মানুষের মাথায় হাত পড়েছে। তবে কেন্দ্রীয় সরকার ইতিমধ‍্যে বিভিন্ন পদ্ধতি প্রয়োগ করতে শুরু করেছে পেঁয়াজের দাম কমানোর জন্য। পেঁয়াজের দাম বৃদ্ধির কারণ হিসেবে ধরা হয়েছে, মহারাষ্ট্র এবং মধ্য প্রদেশের বন্যা পরিস্থিতি। দেশের মধ্যে সবথেকে বেশি পিঁয়াজ উৎপাদন হয় মহারাষ্ট্রে। এবার মহারাষ্ট্রে বন্যা হওয়ার ফলে উৎপাদন হ্রাস পেয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। আর এর ফলেই পেঁয়াজের দাম দ্রুতহারে বেড়ে চলেছে। সর্বস্তরের পেঁয়াজ পরিস্থিতি সামাল দিতে ইতিমধ্যে কেন্দ্রীয় সরকার পেঁয়াজ রপ্তানিতে কড়া নজর দিয়েছে। অন্যদিকে পেঁয়াজ নিয়ে যাতে কালোবাজারি না হয়, সেদিকেও নজর রেখেছে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব। আপাতত পেঁয়াজের দাম কমানোর প্রচেষ্টার ফলে সাধারণ গৃহস্থের ঘরে কি প্রভাব পড়ল সেদিকে নজর রাখবে ওয়াকিবহাল মহল।

আপনার মতামত জানান -
ট্যাগড
Top
error: Content is protected !!