এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ছাড় নেই সরকারি কর্মচারীদেরও! বিরোধীদের পার্টি অফিসের দখল অব্যাহত তৃণমূলের বিরুদ্ধে

ছাড় নেই সরকারি কর্মচারীদেরও! বিরোধীদের পার্টি অফিসের দখল অব্যাহত তৃণমূলের বিরুদ্ধে

ক্ষমতায় আসার পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দলের কর্মীদের বিরোধীদলের পার্টি অফিস দখল না করে দলে মাটির পার্টি অফিস গড়ে মানুষকে পরিষেবা দেওয়ার কথা বলেছিলেন। কিন্তু কালের নিয়মে সেই দলীয় সুপ্রিমোর কথায় কর্নপাত করে শাসকদলের কর্মীদের বিরুদ্ধে উঠল বিরোধীদের পার্টি অফিস দখলের অভিযোগ।ঘটনাস্থল আলিপুরদুয়ারে কুমারগ্রামের কামাখ্যাগুড়ি এলাকা।

সিপিএমের অভিযোগ, গত 13 ই জুলাই এইখানে অবস্থিত তাঁদের সরকারি কর্মচারী সংগঠন কো-অর্ডিনেশন কমিটির ভবন দখল করে নেয় তৃনমূল। জানা গেছে, তৃনমূল দলের শীর্ষ নেতৃত্ব এই ব্যাপারে সায় দেয়নি নীচুতলার কর্মীদের। তবুও এইভাবে পার্টি অফিস দখল করায় শনিবার দুপুরে সেই তালা ভেঙে সিপিএম তা উদ্ধার করলে ফের তা দখল করে নিয়ে সেখানে তৃনমূলের পতাকা লাগিয়ে দেয় শাসকদলের কর্মীরা।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

এপ্রসঙ্গে সিপিএমের কো অর্ডিনেশন কমিটির জেলা সম্পাদক বিষ্নুপদ চক্রবর্তী বলেন,” প্লথমবার জবরদখল হয়ে যাওয়া অফিস মুক্ত করলেও ফের তৃনমূলের কর্মীরা তা জবরদখল করে। এখন দেখি এব্যাপারে তৃনমূলের জেলা নেতৃত্ব ঠিক কি পদক্ষেপ নেয়। এদিকে আলিপুরদুয়ার জেলার তৃনমৃলের সহ সভাপতি তথা কুমার গ্রামের দলীয় পর্যবেক্ষক এব্যাপারে দলীয় কর্মীদের পাশে না থাকারই হুশিয়ারী দিয়েছেন। তিনি বলেন, “এঘটনার সাথে দলের যারা যুক্ত তাঁদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।”

Aরাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, একেই সদ্যসমাপ্ত পঞ্চায়েত নির্বাচনে কুমারগ্রামে দলের ভালো ফলাফল না হওয়ায় দলনেত্রীর রোষে পড়ে পদ খোয়াতে হয়েছে জেমস কুজুরকে। আর তারপরে সেই দলনেত্রী তথা মুখ্যমন্ত্রীর মতের বিরুদ্ধে গিয়ে বিরোধীদের পার্টি অফিস দখল করলেও নিচুতলার কর্মীদের পাশে না থেকে কঠোর বার্তা দিচ্ছে কুমারগ্রামের তৃনমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব।

 

Top
error: Content is protected !!