এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > টানা ২৩ দিন অনশনের পর মিলতে চলেছে সমাধানসূত্র, শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের পর দাবি চাকরিপ্রার্থীদের

টানা ২৩ দিন অনশনের পর মিলতে চলেছে সমাধানসূত্র, শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের পর দাবি চাকরিপ্রার্থীদের

একটানা ২৩ দিনের অনশনের পর বরফ গলার ইঙ্গিত পেলেন এসএসসি চাকরিপ্রার্থীরা। সমাধান সূত্র মিলেছে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের তরফ থেকে। ২০১৬ সালে নবম-দশম এবং একাদশ-দ্বাদশ শ্রেনির শিক্ষক নিয়োগের লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হলেও ইন্টারভিউের পর চাকরি মিলছে না অনেকেরই।

বেশিরভাগ চাকরিপ্রার্থীরা ওয়েটলিস্টেড হয়ে আছেন। এমতাবস্থায় এসএসসির নিয়োগ প্রক্রিয়ায় চরম অনিয়মের অভিযোগ তুলে মেয়ো রোডে প্রেস ক্লাবের সামনে অনশনে বসেছিলেন এসএসসির কয়েকশো চাকরি প্রার্থীরা ৷ দাবী ছিল নিয়োগ প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা আনতে শিক্ষামন্ত্রীর সরাসরি হস্তক্ষেপের।

অবশেষে শিক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের পর একটু স্বস্তির নিঃশ্বাস ফেলেছে চাকরিপ্রার্থীরা। নিয়ম মেনেই এসএসসিতে নিয়োগ হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। অনশনকারীদের অভিযোগ খতিয়ে দেখতে মণীশ জৈনের নেতৃত্বে কমিটি তৈরি হয়েছে ৷ ২ দিনের মধ্যে অভিযোগ জানাতে বলেছেন তিনি ৷ এবং আগামী ১৫ দিনের মধ্যে অভিযোগ খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন দেওয়া হয়েছে শিক্ষামন্ত্রীর তরফ থেকে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

প্রসঙ্গত,গত ২৭ ফেব্রুয়ারি এসএসসির শূন্যপদের ভিত্তিতে নিয়োগে স্বচ্ছতা আনার দাবীতে প্রায় ৪০০ জন প্রার্থী মেয়ো রোডে প্রেস ক্লাবের সামনে অনশনে বসেছিলেন। একটানা ২৩ দিন অনশনের জেরে অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন অনেকেই। গর্ভের সন্তান হারিয়েছেন একজন সন্তানসম্ভবা। এছাড়া ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন তিনজন। সবমিলিয়ে পরিস্থিতির প্রতিকূলতা রোজই বাড়ছে। অনশনকারীদের তরফ থেকে অভিযোগ ছিল,বিভিন্ন মহল থেকে অনেকেই তাঁদের এই প্রতিকূল সময়ে পাশে এসে দাঁড়ালেও নিষ্ক্রিয় মনোভাব দেখিয়েছে প্রশাসন।

শুক্রবার অনশনকারীদের সঙ্গে অনশনে যোগ দিয়ে পাশে থাকার বার্তা দিয়েছেন কবি মন্দাক্রান্তা সেন। কবি চাকরিপ্রার্থীদের প্রতি সরকারের এধরণের অসহযোগী মনোভাব দেখে প্রশাসনের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিয়ে বলেছেন,’শহরের রাস্তার ওঁরা গরু ছাগলের মতো পড়ে রয়েছে, কেউ ফিরেও তাকাচ্ছে না। এ বিষয়ে প্রশাসন দুর্ব্যবহার করছে। সব মিলিয়ে এতগুলো ছেলেমেয়েকে কেউ কোনও সমধানের রাস্তা দিতে পারছে না। মন থেকে চাই সরকার এদের ভবিষ্যতের কথা ভেবে একটা সমাধানসূত্র দিক।’

এরপর লোকসভা ভোটের সূত্র টেনে তৃণমূল সরকারকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে বলেছেন,’এর পরেও কি প্রচারে বেরিয়ে ভোট চাইতে লজ্জা করবে না নেতাদের? জানি না, সরকার আদৌ কিছু করবে কি না। সরকারের সদিচ্ছাই আমাদের একমাত্র কাম্য।’ যাইহোক,শেষমেশ কানে জল ঢুকেছে প্রশাসনের। অনশনকারীদের সঙ্গে বিভিন্নমহলের সম্মিলিত প্রতিবাদে সাড়া দিলেন শিক্ষামন্ত্রী। সমাধানসূত্র জেনে আপাতত জয়ের হাসি হাসছে অনশনকারী চাকরিপ্রার্থীরা। তবে প্রশাসন কথার খেলাপ করলে ফের বৃহত্তর আন্দোলনের পথে যাবে বলেই হুঁসিয়ারী দিয়েছেন তাঁরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!