এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > পার্কিং লটে রাখা গাড়ি খুলতেই বেরল কোটি কোটি নগদ টাকা এবং সোনার বাঁট

পার্কিং লটে রাখা গাড়ি খুলতেই বেরল কোটি কোটি নগদ টাকা এবং সোনার বাঁট

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী নোটবন্দির সময় আশ্বাস দিয়েছিলেন এবার বন্ধ হবে কালো টাকার রমরমা। কিন্তু বাস্তবে দেখা গেলো পুরো উল্টো ছবি। এক অভিনব কায়দায় মোট ১৬৩ কোটি টাকা এবং ১০০ কেজি সোনা লুকিয়ে রেখেছিলেন এসপিকে ও কো এক্সপ্রেসওয়ে প্রাইভেট লিমিটেড সংস্থার এমডি নাগারাজন সেয়াদুরাই। দীর্ঘদিন ধরে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁর বাড়ি ও আরও কয়েকটি জায়গায় তল্লাশি চালায় আয়কর বিভাগ।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তাঁর বাড়ি থেকে উদ্ধার হয় মাত্র ২৪ লক্ষ টাকা। বাকি টাকার খোঁজ করতে গিয়ে জানা যায় সেয়াদুরাই তাঁর বাড়ির গ্যারাজে কাজ চলার আজুহাতে বেশ কয়েকটি গাড়ি সংস্থার বিভিন্ন কর্মী ও তাঁর পরিচিতদের বাড়িতে রেখেছেন। এই তথ্য পাওয়ার পরই সেইসব বাড়িতে হানা দেয় আয়কর বিভাগের তদন্তকারীরা।মোট ১০ টি জায়গায় হানা দিয়ে মোচ ১৬৩ কোটি টাকার নগদ ও ১০০ কেজির সোনার বাঁট উদ্ধার ও বাজেয়াপ্ত করেন তাঁরা।

এছাড়া বেহিসেবি সম্পত্তির সঙ্গে জড়িত বেশ কয়েকটি দলিলপত্র, ডায়েরি, নথি এবং হার্ড ডিস্কও আটক করা হয়। কালো টাকা উদ্ধারের সাম্প্রতিকতম ইতিহাসে এরকম নজির নেই বলেই মনে করছেন আয়কর দপ্তরের কর্তারা। শেষবার বড় সংখ্যায় কালো টাকা মিলেছিল চেন্নাইয়ের এক খনি মালিকের কাছ থেকে – ১১০ কোটি। সেই সময় সদ্য শেষ হয়েছে নোটবন্দী। তবে নাগারাজন বেহিসেবি সম্পত্তির তালিকা আরো লম্বা হবে বলে মনে করছেন কর্তারা।

এদিকে অনেক এআইএডিএমকে নেতার সঙ্গেই নাগারাজনের ওঠাবসা থাকায় সেটাকে ইস্যু করে বিরোধী দল ডিএমকে বুক বেঁধেছে আশায়। আর কোন কোন রাঘব বোয়ালের নাম উঠে আসে সেই দিকেই তাকিয়ে তারা।

আপনার মতামত জানান -
Top