এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > বড়সড় জয় পেল পার্শ্বশিক্ষকরা, জেনে নিন

বড়সড় জয় পেল পার্শ্বশিক্ষকরা, জেনে নিন


 

পার্শ্বশিক্ষকদের আন্দোলনে বারেবারেই অস্বস্তিতে পড়তে হয়েছে রাজ্য সরকারকে। আর এবার এই আন্দোলনের ফলস্বরূপ কলকাতা হাইকোর্টে বড়সড় ধাক্কা খেল রাজ্য। বস্তুত, বেশ কিছুদিন আগে নদীয়ার কল্যাণীতে নিজেদের দাবীদাওয়া নিয়ে আন্দোলন করতে দেখা যায় পার্শ্ব শিক্ষকদের।

অভিযোগ, সেখানে সেই আন্দোলনরত শিক্ষকদের ওপর রাতের অন্ধকারে নির্বিচারে পুলিশের পক্ষ থেকে লাঠিচার্জ করা হয়। আর এই ঘটনা নিয়ে গোটা রাজ্যজুড়ে প্রবল সোরগোল পড়ে যায়। পরবর্তীতে বিকাশ ভবনের সামনে এই পার্শ্বশিক্ষকদের অবস্থান করবার জন্য একটি আবেদন জানায়। কিন্তু সেখানেও অভিযোগ ওঠে যে, বিধাননগর পুলিশ আইন শৃংখলার দোহাই দিয়ে তাঁদের অবস্থান-বিক্ষোভের অনুমতি দিচ্ছে না।

এদিকে এই ঘটনার পরই আন্দোলনকারীরা তাদের আন্দোলন করবার জন্য কলকাতা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন। যেখানে আন্দোলনকারীদের পক্ষেই রায় দিতে দেখা যায় কোলকাতা হাইকোর্টকে। আর এতেই চরম অস্বস্তিতে পড়ে রাজ্য সরকার।

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

জানা যায়, গত বুধবার হাইকোর্টে এই মামলা চলার সময় কেন এমনটা করা হল, তা নিয়ে রাজ্যের কাছে জানতে চান বিচারপতি দেবাংশু বসাক। যার উত্তরে রাজ্যের আইনজীবী অর্ক নাগ বলেন, “ওখানে বিকাশ ভবন এবং জলসম্পদ ভবন সহ একাধিক গুরুত্বপূর্ণ দপ্তর রয়েছে, হাসপাতাল রয়েছে। তাই ওখানে 144 ধারা জারি রয়েছে। ফলে পার্শ্বশিক্ষকদের অবস্থান-বিক্ষোভের অনুমতি দেওয়া হয়নি।”

কিন্তু বিকাশ ভবনের থেকে দেড়শ ফুট দূরে যদি পার্শ্বশিক্ষকরা সমাবেশ করেন, তাহলে তাতে অসুবিধে কোথায়! এই ব্যাপারে পাল্টা প্রশ্ন করেন বিচারপতি দেবাংশু বসাক। আর এবার পার্শ্বশিক্ষকদের দিকেই রায় দিয়ে সরকারের অস্বস্তি বাড়িয়ে দিল কলকাতা হাইকোর্ট। সূত্রের খবর, রবিবার কলকাতা হাইকোর্টের বিশেষ বেঞ্চের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়, বিকাশ ভবনের পাশে থাকা প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বিধানচন্দ্র রায়ের সামনেই পার্শ্বশিক্ষকরা তাদের অবস্থান করতে পারবেন।

কিন্তু পার্শ্বশিক্ষকদের অবস্থান-বিক্ষোভে প্রতিবাদীদের সংখ্যা যাতে 300 না ছাড়ায় সেই ব্যাপারেও আদালতের পক্ষ থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে সংশ্লিষ্ট সংখ্যা যদি ছাড়িয়ে যায়, তাহলে তা যাতে 500 মিটার দূরে থাকে, সেই ব্যাপারেও জানিয়ে দিয়েছে আদালত। আর পার্শ্বশিক্ষকদের অবস্থান-বিক্ষোভের অনুমতি দিয়ে রাজ্য সরকারের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন করায় কলকাতা হাইকোর্টে রাজ্য অনেকটাই চাপে পড়ল বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!