এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পুরুলিয়া-ঝাড়গ্রাম-বাঁকুড়া > তৃণমূলের দাপুটে বিধায়কের হাত ধরে পঞ্চায়েতে জয়ী নির্দল সহ শতাধিকের শাসকদলে যোগ

তৃণমূলের দাপুটে বিধায়কের হাত ধরে পঞ্চায়েতে জয়ী নির্দল সহ শতাধিকের শাসকদলে যোগ

পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর রাজ্যজুড়ে শক্তিবৃদ্ধি করেই চলেছে রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেস। মুকুল রায় তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেই ঘোষণা করেছিলেন তাঁর পুরোনো দলের সংগঠন নাকি ‘ঝুরঝুর’ করে ভেঙে পড়বে, কিন্তু সে অর্থে কোন বড় মাপের নেতা এখনো গেরুয়া শিবিরে নাম লেখাননি। উল্টে বিভিন্ন বিরোধী দলের হেভিওয়েট বিধায়ক বা নেতারা নাম লেখাচ্ছেন ঘাসফুল শিবিরেই। তবুও নীচুতলায় বিভিন্ন দল ভেঙে গেরুয়া শিবিরে যোগদানের প্রবণতা বেশ লক্ষ্যণীয়। কিন্তু পঞ্চায়েতে জয়ী অন্যান্য দল বা নির্দল সদস্যদের প্রথম পছন্দের জায়গা যে তৃণমূল কংগ্রেস আবার প্রমান হয়ে গেল।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর সেই প্রবণতাকেই আরো দৃঢ় করে পুরুলিয়ার মানবাজার ২নং ব্লকের বারীজাগদা গ্রাম পঞ্চায়েতে জয়ী নির্দল সদস্য কৃষ্ণবরন সিং এদিন বান্দোয়ানের দাপুটে তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক রাজীবলোচন সরেনের হাত ধরে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেন। তাঁর সঙ্গেই তাঁর অনুগামী বলে পরিচিত আরো ১৫০ টি পরিবারও এদিন হাতে ঘাসফুলের পতাকা তুলে নেন। এক ছোটোখাটো ঘরোয়া অনুষ্ঠানে নবাগতদের হাতে দলীয় পতাকা তুলে দেন বিধায়ক রাজীবলোচন সরেন, নিয়তি মাহাত ও অন্যান্য স্থানীয় তৃণমূল কংগ্রেস নেতৃত্ব। পঞ্চায়েতে এই জেলায় গেরুয়া শিবিরের ভালো ফল করার পরে, গেরুয়া শিবিরের প্রতি সমর্থনের একটা চোরাস্রোত বইছিল, সেখানে গেরুয়া শিবিরে যোগদান না করে শাসকশিবিরে নাম লেখানো বেশ তাৎপর্যের বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!