এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > আদালত খুললেই সরকারি কর্মচারীদের করা মামলার পরিপ্রেক্ষিতে ঠিক হবে পঞ্চায়েতের ভাগ্য?

আদালত খুললেই সরকারি কর্মচারীদের করা মামলার পরিপ্রেক্ষিতে ঠিক হবে পঞ্চায়েতের ভাগ্য?

আজ কলকাতা হাইকোর্ট খুললেই কি ঠিক হয়ে যাবে রাজ্যের আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনের ভাগ্য? রাজ্যের বর্তমান রাজনৈতিক অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপি প্রভাবিত সরকারি কর্মচারী পরিষদের আহ্বায়ক দেবাশিস শীলের করা জনস্বার্থ মামলার শুনানি হবে বলে জানিয়ে দিল কলকাতা হাইকোর্ট। আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে নিরাপত্তাজনিত কারণে তিনটি জনস্বার্থ মামলা হতে চলেছে আজ। একটি প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরীর করা, দ্বিতীয়টি বিজেপি প্রভাবিত সরকারি কর্মচারী পরিষদের আহ্বায়ক দেবাশিস শীলের করা এবং তৃতীয়টি আইনজীবী শ্রীধর বাগুই এর করা। আর তাই আজ সকাল ১০:৩০ টায় আদালতের কাজ শুরু হতেই এই তিনটি মামলার শুনানি হতে চলেছে বলে জানা যাচ্ছে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের ধারণা, সবমিলিয়ে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের করা মামলাটি সবথেকে বেশি গুরুত্ত্বপূর্ন। কেননা, এই মামলায় কোনো রাজনৈতিক দল জড়িয়ে নেই, আছে সাধারণ সরকারি কর্মচারী ও সাধারণ মানুষের নিরাপত্তার প্রশ্ন। তাই এই মামলার বিগত শুনানিতে আদালত কমিশন ও রাজ্য প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছিল বুথভিত্তিক নিরাপত্তার কি ব্যবস্থা করা হচ্ছে তা যেন আদালতকে হলফনামা দিয়ে জানানো হয়। সূত্রের খবর, আজ মামলার শুনানিতে রাজ্য সরকারের তরফে থাকবেন অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত, নির্বাচন কমিশনের তরফে থাকবেন আইনজীবি শক্তিনাথ মুখার্জী, বিজেপি প্রভাবিত সরকারি কর্মচারী পরিষদের আহ্বায়ক দেবাশিস শীলের পক্ষে থাকবেন আইনজীবী ইন্দ্রজিৎ দাশগুপ্ত, অধীর চৌধুরীর পক্ষে থাকবেন কংগ্রেস নেতা ও আইনজীবী ঋজু ঘোষাল। সবমিলিয়ে আদালত খুললেই পঞ্চায়েতের ভাগ্য নির্ধারিত হয়ে যাওয়ার সমূহ সম্ভাবনা সরকারি কর্মচারীদের হাত ধরে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!