এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > সুপ্রিম কোর্টে পঞ্চায়েত মামলা – কি হল আদালতের রায়? কি জানাল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় হয় নিয়ে?

সুপ্রিম কোর্টে পঞ্চায়েত মামলা – কি হল আদালতের রায়? কি জানাল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় হয় নিয়ে?

রাজ্যে পঞ্চায়েত মামলার দিনক্ষণ ঘোষণা থেকেই মামলার জটে পদে পদে ব্যতিব্যস্ত হতে হয়েছে রাজ্য নির্বাচন কমিশন ও রাজ্য সরকারকে। হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ, ডিভিশন বেঞ্চ হয়ে শেষ পর্যন্ত তা গিয়েছিল সুপ্রিম কোর্টে। আর সেখানে অন্য সব আসনে জয় নিয়ে আদালত কিছু না জানালেও যেসব আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় হয়েছিল, তা নিয়ে এর আগে বেশ অবাক হয়েছিল আদালত।

এর আগে দুদিন বিচারপতিরা উপস্থিত না থাকায় এই মামলায় শুনানি হয়নি, ফলে বহু জায়গায় বোর্ড গঠনের কাজ আটকে। আর গত পঞ্চায়েতের বর্ডার মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী ১৫ ই আগস্ট। এই অবস্থায় আদালত রাজ্যের প্রায় ৩৪% আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় নিয়ে কি রায় দেয়, সেদিকেই তাকিয়ে ছিল সংশ্লিষ্ট সব মহল।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

এই বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয় নিয়ে শাসকদলের বক্তব্য ছিল, বিরোধীরা প্রার্থী দিতে পারে নি। এমনকি এর থেকেও বেশি আসনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ের নজির ভারতের অন্য রাজ্যে আছে। অন্যদিকে, বিরোধীদের বক্তব্য ছিল শাসকদল ‘সন্ত্রাস’ করে এইসব আসনে তাঁদের প্রার্থীদের মনোনয়ন দিতে দেয় নি। আদালত যেখানে স্পষ্ট নির্দেশ দিয়েছিল, নির্বাচন কমিশনকে দেখতে হবে ইচ্ছুক সব প্রার্থী যাতে মনোনয়ন জমা দিতে পারে – কিন্তু বাস্তবে নির্বাচন কমিশন সেই দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়।

ফলে গত ১৭ ই মে পঞ্চায়েত নির্বাচনের ফলাফল বেরিয়ে গেলেও আজ সুপ্রিম কোর্টের রায়ের দিকে অধীর আগ্রহে তাকিয়েছিল রাজ্যের সব পক্ষই। তবে সব পক্ষকেই হতাশ করে, আজ এই মামলার আংশিক শুনানির পর এই মামলার পরবর্তী শুনানি হবে আগামীকাল – বলে জানানো হয়েছে সুপ্রিম কোর্টের তরফে। আগামীকাল দুপুর ২ টোয় পুনরায় এই মামলার শুনানি হবে। এই মামলার সব খুঁটিনাটি সবার আগে আপনাদের কাছে পৌঁছে দিতে আমাদের বিশেষ প্রতিনিধি আছেন সুপ্রিম কোর্ট চত্ত্বরের কাছেই, তাই এই মামলার সব আপডেট সবার আগে পেতে চোখ রাখুন একমাত্র প্রিয় বন্ধু বাংলায়।

আজকের শুনানিতে যে বিষয়গুলি উঠে এল, দেখে নিন একনজরে –
১. অবিলম্বে বোর্ড গঠন না হলে উন্নয়নের কাজ থমকে যাবে
২. বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জয়ের নজির অন্য রাজ্যেও আছে
৩. পশ্চিমবঙ্গেই এই ঘটনা প্রথম হয়েছে এমনটা নয়
৪. ব্যক্তিগতভাবে প্রার্থীরা কেউ অভিযোগ করেননি, রাজনৈতিক দল অভিযোগ করেছে
৫. রাজনৈতিক উদ্দেশেই এই মামলা দায়ের করা হয়েছে

বিচারপতির পর্যবেক্ষণ –
১. প্রার্থীদের মনোনয়ন পেশে বাধা দেওয়া হয়েছে
২. এটা সবচেয়ে বড় উদ্বেগের কারণ
৩. ভয় পেয়ে অনেকে অভিযোগ নাও করতে পারেন
৪. কেন প্রার্থীরা অভিযোগ দায়ের করেননি – কমিশন কী তা খতিয়ে দেখেছ?

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!