এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পঞ্চায়েতে বিজেপির জয়ীদের তৃণমূলে যোগদান অব্যাহত, আরও জেতা পঞ্চায়েত সমিতি হাতছাড়া

পঞ্চায়েতে বিজেপির জয়ীদের তৃণমূলে যোগদান অব্যাহত, আরও জেতা পঞ্চায়েত সমিতি হাতছাড়া

পঞ্চায়েত নির্বাচনে ভালো ফল করেও রঘুনাথপুর – ১ ব্লকে বিজেপির পায়ের তলা থেকে মাটি সরছে। বিজেপিকে টেক্কা দিতে দলবদলের জেরে পঞ্চায়েত সমিতি এবং বেশ কয়েকটা পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠন করতে শাসকদল পাল্লা দিচ্ছে। পঞ্চায়েত নির্বাচনে রঘুনাথপুর ব্লক-১ এর পঞ্চায়েত সমিতির ২১ টি আসনের মধ্যে বিজেপি পেয়েছে ১৭ টি আসন।

অন্যদিকে তৃণমূল এবং নির্দল যথাক্রমে তিনটি এবং একটি আসন দখল করতে পেরেছে। এতে বিজেপি জয়ের উল্লাসে মাতলেও তাঁদের হাসি ফ্যাকাশে হয়ে যায় কিছুদিনের মধ্যেই। পঞ্চায়েত বোর্ড গঠন শুরু হতেই একজন নির্দল সদস্যা এবং পরপর তিন জন বিজেপি সদস্য হঠাৎ করেই তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেন। এর জেরে মাত্র তিনটি আসনে জিতেও তৃণমূলের দখলে আসে সাতটি আসন। ফলত,খারাপ ফলের ধাক্কা কাটিয়ে ফের নিজেদের পায়ের তলার মাটি ফিরে পেতে শুরু করেছে এলাকার তৃণমূল কংগ্রেস।

পঞ্চায়েত সমিতির বোর্ড বিজেপির দখলে হলেও রাতের ঘুম উড়েছে রঘুনাথপুর বিজেপি নেতৃত্বদের।  তাঁদের চিন্তা আরো বাড়িয়ে তফসিলি উপজাতি মহিলা সংরক্ষিত সভাপতির আসনে বসতে চলেছেন তৃণমূলের সদস্যা বাসন্তি হেমব্রম। এমনটাই জানা গিয়েছে। আজ সমিতির বোর্ড গঠন রয়েছে। টানটান উত্তেজনা রয়েছে বিজেপি-তৃণমূল দুই যুযুধান গোষ্ঠীর মধ্যে।

অন্যদিকে,চোরাপাহাড়ি ও খাজুরা গ্রাম পঞ্চায়েতেও বোর্ডগঠন নিশ্চিত করে ফেলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। পঞ্চায়েতে বোর্ডগঠন নিয়ে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলছে শাসকদল ও বিজেপির মধ্যে। ১১ টি আসনের মধ্যে শাসকদলের ঝুলিতে এসেছে ৬ টি এবং বিজেপির দখলে এসেছে ৫ টি আসন। পঞ্চায়েতের বোর্ড দখল করলেও প্রধান পদে বসার জন্য তপসিলি জাতির কোনো প্রার্থী জিততে পারেননি। তাই ২৭ আগষ্ট পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনের দিন উপপ্রধান নির্বাচিত হলেও প্রধানের পদ শূন্য থেকে যায়। তবে প্রধান তৃণমূলেরই একজন হবেন এমনটাই জানিয়েছেন তৃণমূলের জেলা পরিষদের জয়ী সদস্য অনাথবন্ধু মাঝি। এমনকী আগামী দিন চোরপাহাড়ি পঞ্চায়েত বিরোধী শূন্য হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনার কথা জানালেন তিনি। যুক্তিতে জানালেন,ইতিমধ্যেই বিজেপির চারজন সদস্য বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন। আগামী দিন আরো বিজেপি নেতা কর্মীরা তৃণমূলের উন্নয়নে গা ভাসাবেন বলেই দাবী করলেন তিনি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

একইরকমভাবে খাজুরা গ্রাম পঞ্চায়েতেও বিজেপির ভাঙন অব্যাহত রয়েছে। ১২ টি আসনের মধ্যে ৯ টি আসন পেয়েও দলবদলের জেরে বোর্ড গঠন হাতছাড়া হল বিজেপির।  এখানে সিপিএম পেয়েছে তিনটি আসন। বিজেপির জয়ী ৫ জন সদস্য তৃণমূলে যোগ দেওয়ায় বোর্ড গঠনে এগিয়ে রয়েছে তৃণমূল। এ প্রসঙ্গে,রঘুনাথপুর বিধানসভা আসনের তৃণমূলের চেয়ারম্যান বিধায়ক পূর্ণচন্দ্র বাউরি বলেছেন, “এই কয়েকদিনেই মানুষ বুঝতে পেরেছেন, বিজেপি কী জিনিস! তাই উন্নয়নের কাজে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত শক্ত করতে বিজেপির জয়ী সদস্যদের সঙ্গে নেতারাও তৃণমূলে যোগদান করছেন।” অন্যদিকে,জেলা বিজেপি সভাপতি বিদ্যাসাগর চক্রবর্তী জানান, তৃণমূল কংগ্রেস ভয় পেয়েই পঞ্চায়েত ও সমিতির বোর্ড গঠন করতে মরিয়া হয়ে পড়েছে। বিজেপি দুর্নীতির হাত ধরে সন্ত্রাসের রাজনীতি করে না। নীতি এবং আদর্শেই বিশ্বাস রাখে গেরুয়া শিবির। মানুষের রায়কেই বরাবরই মান্যতা দিয়ে এসেছে তাঁরা, এমনটাই দাবী জেলা বিজেপি সভাপতির।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!