এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পঞ্চায়েতে দলবিরোধী কাজ করার জন্য এবার কড়া পদক্ষেপের পথে শাসকদল

পঞ্চায়েতে দলবিরোধী কাজ করার জন্য এবার কড়া পদক্ষেপের পথে শাসকদল

দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার  বালুরঘাট ও হিলি ব্লকে তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থীদের শোচনীয় পরাজয়ের পরে দলের কর্মী ও সমর্থকদের কার্যত সংযত করলেন দলের জেলা সভাপতি বিপ্লব মিত্র। এদিন তিনি দাবি করলেন দলের কিছু নেতা দলের সদস্য হওয়া সত্ত্বেও দল বিরোধী প্রচার করছেন। অতি দ্রুত তাঁদের সনাক্ত করে দল থেকে বহিষ্কার করা হবে। এই হুমকিতে দলের জেলা সদস্য গন স্বভাবতই নড়ে চড়ে বসেছেন। এদিন বিপ্লব বাবু অতীতের ঘটনার জের টেনে বললেন, “সোনা পালকে বহিষ্কার করতে ১ মিনিট সময় লাগেনি। তেমনি বালুরঘাট ও হিলি ব্লকের কিছু নেতা রয়েছে যাঁরা ভোটে দলের বিরুদ্ধে কাজ করেছেন। তদন্ত শুরু করেছি। তাদের খোঁজ চলছে । তাঁদের তালিকা তৈরি করে দল থেকে বহিষ্কার করব। বালুরঘাট ব্লক ও অঞ্চল কমিটিগুলিতে সাংগঠনিক দুর্বলতাও কিছু রয়েছে। সে নিয়েও ভাবনাচিন্তা শুরু করেছি।”

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

দলের মধ্যে থেকে দলীয় সদস্যদের দল বিরোধী কার্যকলাপ ছাড়াও বিপ্লব বাবু বালুরঘাট ও হিলি ব্লকের গ্রাম পঞ্চায়েতে ও পঞ্চায়েত সমিতির আসনে তৃণমূল কংগ্রেসের পরাজয়ের কারণ হিসেবে দলের সাংগঠনিক দূর্বলতা সহ দলের আভ্যন্তরীণ কলহকে দায়ী করেছেন। কল্যাণ কুণ্ডু, বিভাস চট্টোপাধ্যায়, লগিন দাস সহ একাধিক উল্লেখযোগ্য নেতার হেরে যাওয়া ও বহু গ্রাম পঞ্চায়েত আসনে পরাজয়ের কারণ হিসেবে বিপ্লব বাবু মূলত দলের সদস্যদের আভ্যন্তরীণ বিবাদকেই দোষারোপ করছেন। বিপ্লব বাবু এদিন আরোও জানালেন দল বিরোধী কাজে কোনও বড় নেতা জড়িত থাকলে তাঁকে দলের সিদ্ধান্তে কোনো বাড়তি খাতির করা হবেনা ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!