এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > পঞ্চায়েতে মোবাইল ব্যবহার নিতে কড়া নির্দেশিকা কমিশনের, উঠে গেল একাধিক প্রশ্ন

পঞ্চায়েতে মোবাইল ব্যবহার নিতে কড়া নির্দেশিকা কমিশনের, উঠে গেল একাধিক প্রশ্ন

রাজ্য নির্বাচন কমিশন আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে নিরাপত্তার প্রয়োজনে বেশ কয়েকটি নিষেধাজ্ঞা জারী করলো। এদিন কমিশনের পক্ষ থেকে একটি নির্দেশে জানানো হয়েছে এই নির্বাচনে বুথের ভিতর মোবাইল নিয়ে ঢুকতে পারবেন কেবলমাত্র প্রিসাইডিং অফিসার, রিটার্নিং অফিসার এবং অবজার্ভাররা (পর্যবেক্ষক) কমিশনের নির্দেশে একথা স্পষ্ট যে নির্বাচন চলাকালীন সময়ে বুথের মধ্যে উপস্থিত পোলিং অফিসার, ও রাজনৈতিক দলের পোলিং এজেন্টরা কোনোমতেই মোবাইল ব্যবহার করতে পারবেন না। তাঁদের নিজেদের মোবাইল ,নির্বাচনে শান্তি পূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার জন্য , বুথের বাইরে জমা দিতে হবে।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

একজন প্রিসাইডিং অফিসার কেন নির্বাচন চলাকালীন সময়ে বুথের মধ্যে মোবাইল ফোন সহ প্রবেশ করতে পারবেন তার ব্যাখ্যায় কমিশন জানালো এসএমএস নির্ভর এক প্রযুক্তিগত পদ্ধতির মাধ্যমে তাঁদের বুথের পরিস্থিতি জানাতে হবে।এই পদ্ধতিটি ‘জেমস’ নামে পরিচিত। নির্বাচন পর্বের প্রতি মুহূর্তের খুটিনাটি তথ্য এই পদ্ধতির মাধ্যমে এসএমএস কোড মারফত জানাতে হবে। এদিকে, কমিশনের এই নির্দেশের প্রেক্ষিতে বিরোধীরা নানা অভিযোগ তুলেছে। তাদের দাবি, যদি তৃণমূলের পোলিং এজেন্টরা মোবাইল নিয়ে ঢোকেনও তাঁদের আটকাবে কে? প্রশাসন কি আদৌ এই নির্দেশ কড়াভাবে পালন করতে সক্ষম হবে ? গোটা বিষয়টির সুষ্ঠু পরিচালনার জন্য কমিশনকে সক্রিয়া ভূমিকা প্রয়োজন বলেও জানায় বিরোধীরা। উল্লেখ্য নির্বাচন কমিশন নির্বাচনের সময়ে রাজ্যের নিরাপত্তার প্রয়োজনে কেন্দ্রীয় বাহিনীর দাবি জানালে রাজ্য সরকার সেই দাবি পূরণেও প্রস্তুত। নিরাপত্তা নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে নিয়মিত চিঠি জমা জমা পড়ে নির্বাচন কমিশনের দফতরে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!