এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনের সময় আর এক দফা গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের আশঙ্কায় জেরবার শাসক-নেতারা

পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনের সময় আর এক দফা গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের আশঙ্কায় জেরবার শাসক-নেতারা

গত বৃহস্পতিবার নেতাজি ইন্ডোরে দলের কোর কমিটির বৈঠক থেকে তৃণমূল কংগ্রেস ও তৃনমূল যুব কংগ্রেসের বিভাজন নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন, “তৃণমূল ও তৃণমূল যুব একটাই সংগঠন। কিন্তু দলীয় নেতাদের কানে সেই কথা আদৌ কতটা পৌঁছেছে, তা নিয়ে রীতিমতো চিন্তায় রাজ্যের ঘাসফুল শিবির। সূত্রের খবর, আগামী আগস্ট মাসেই রাজ্যের ত্রিস্তর পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনের সম্ভাবনা রয়েছে। সেখানে তৃনমূল নাকি তৃনমূল যুব নিজেদের আধিপত্য বজায় রাখবে তা নিয়ে চরম সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে। জানা গেছে, 2011 সালে এরাজ্যে তৃনমূল কংগ্রেস ক্ষমতায় আসার পর থেকেই বিভিন্ন দল থেকে একাধিক সিপিএম কংগ্রেস ও বিজেপি কর্মীরা তৃনমূলে যোগদান করেন।স্বাভাবিকভাবেই তখন নব্য এবং পুরনো তৃণমূলের মধ্যে তীব্র দ্বন্দ্ব শুরু হয়। জেলায় জেলায় গোষ্ঠী রাজনীতির তীব্র আকার ধারন করে। এদিকে 2014 সালে তৃনমূলের যুব সভাপতি হিসেবে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সক্রিয় হয়ে ওঠে। ধীরে ধীরে এই যুব তৃনমূলের বিস্তার ঘটতে শুরু করলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উত্তরাধিকারী হিসেবে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় নামে সিলমোহর দেয় তৃণমূল কংগ্রেস।আর এর পর থেকেই উত্তরবঙ্গ থেকে দক্ষিণবঙ্গে তৃণমূলের সঙ্গে তৃণমূল যুব কংগ্রেসের তীব্রতম দ্বন্দ্ব আর যার ফলশ্রুতি হিসেবে বিগত পঞ্চায়েতে দলের পুরনোদের মূল স্রোতে নিয়ে আসার জন্য রীতিমতো বিজ্ঞপ্তি জারি করতে হয়েছে তৃনমূলকে। কিন্তু তাতেও যে খুব একটা কাজ হয়নি তা মানছেন তৃণমূলের নেতারা। বিভিন্ন জেলায় বেশ কিছু বিতর্কিত ব্যক্তি ঢুকে পড়তে শুরু করেছে যার ফলে প্রবল গোষ্টীদ্বন্দ্বে জেরবার দল।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

রাজ্যেরই এক তৃনমূল নেতার মতে, বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনে অভিষেক ব্যানার্জীর নাম ভাঙিয়ে অসামাজিক ব্যক্তিরাই পঞ্চায়েতের টিকিট পেয়েছে। আর তাতে তীব্র অপমানিত বোধ করছেন তৃনমূলের পুরোনো লড়াকু কর্মীরা। অপরদিকে এ প্রসঙ্গে তৃনমূলের আরেক নেতার মন্তব্য, বিভিন্ন জেলার রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকেরা যাকে দলীয় প্রতীক অনুমোদন করেছে কার্যক্ষেত্রে দেখা গেছে স্থানীয় স্তরে তা বদলে সুবিধাভোগী অন্য দল থেকে আসা কর্মীদের কাছেই চলে গেছে। আর সেই টিকিট তারা পেয়েছেন মূলত তৃণমূল যুব সভাপতি অভিষেক উপাধ্যায়ের নাম ভাঙ্গিয়ে।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

সম্প্রতি দলের কোর কমিটির বৈঠক থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পঞ্চায়েত সমিতি ও পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠনের দায়িত্ব দিয়েছেন দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক সুব্রত বক্সী ও দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় হাতে। অন্যদিকে জেলা পরিষদের সভাধিপতি যে তিনিই ঠিক করবেন তাও জানিয়ে দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। স্বাভাবিকভাবেই দলনেত্রী যেভাবে তৃনমূল ও তৃনমূল যুব ভাগ হওয়াতে ক্ষুন্ন, তাতে পুরনো দিনের নেতাকর্মীরা আশার আলো দেখলেও নব্য তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীদের মধ্যে এ নিয়ে তীব্র হতাশা তৈরি হয়েছে। স্বাভাবিকভাবেই যা নিয়ে বোর্ড গঠনের আগে ফের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের আঁচ পাচ্ছে রাজ্য তৃণমূল কংগ্রেস। আগামী আগস্টে এই বোর্ড গঠনে তৃণমূল ও তৃণমূল যুব নিজেদের মধ্যে সমন্বয় বজায় রেখে আদৌ সুষ্টভাবে এই প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে পারে কিনা, সেদিকেই তাকিয়ে তৃনমূলের নীচুতলার কর্মীরা।

 

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!