এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > এনআরসিতে বাদ পড়া ব্যক্তিদের নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের বড়সড় প্রশ্ন

এনআরসিতে বাদ পড়া ব্যক্তিদের নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের বড়সড় প্রশ্ন

নাগরিক পঞ্জীকরন বিতর্কে নয়া ভূমিকায় দেশের শীর্ষ আদালত। প্রসঙ্গত কেন্দ্রীয় সরকার নাগরিক পঞ্জীর সম্প্রতি প্রকাশিত খসড়া রিপোর্টে  যাদের নাম নেই তাদের নাম নথিভুক্ত করার জন্য সকলকে নতুন করে আইনি নথি জমা করার প্রস্তাব দিয়েছিলো। কিন্তু কেন্দ্রীয় সরকারের এই পদক্ষেপে এদিন সংশয় প্রকাশ করলো সুপ্রিম কোর্ট।

এদিন শীর্ষ আদালত অসমের এনআরসি-র রাজ্য কো অর্ডিনেটর প্রতীকা হাজেলাকে সওয়াল করে জানতে চায় যে  যাদের নাম বাদ গিয়েছে, তাদের কেন নতুন করে নথি জমা দেওয়ার সুযোগ দেওয়া হবে ? এতে করে কী আদৌ তাদের উল্লিখিত পূর্ববর্তী বংশলতিকায় বদল হওয়া সম্ভব। উল্লেখ্য অসমের নাগরিকপঞ্জির (এনআরসি) চূড়ান্ত খসড়া তালিকা থেকে ৪০ লক্ষ বসবাসকারীর নাম বাদ গিয়েছিল। এই সময়ে অভিযোগ ওঠে বহু বৈধ ভারতীয় নাগরিকের নাম নাগরিক পঞ্জীকরণের তালিকা থেকে স্বতঃপ্রণোদিত ভাবেই বাদ দেওয়া হয়েছে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তাই এদিন সুপ্রিম কোর্ট  কোনও প্রকৃত ভারতীয় নাগরিকের নাম যাতে বাদ না পড়ে তা সুনিশ্চিত করতে বাদ পড়া নাগরিকদের তালিকার অন্তত দশ শতাংশের নথি পুনরায় পরীক্ষা করে দেখার নির্দেশ দিল। সেক্ষেত্রে এই সমীক্ষা হবে জেলাভিত্তিক বলেও জানানো হয়েছে। একইসাথে চূড়ান্ত খসড়ার ক্ষেত্রে আপত্তি জানিয়ে নতুন নথি নেওয়ার প্রস্তাবিত দিন স্থগিত করে দিলো। নথি জমা দেওয়ার প্রস্তাবিত দিন ৩০ শে অগষ্ট থেকে ২৮শে সেপ্টেম্বরের মধ্যে ছিলো। মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে প্রতীকা হাজেলাকে  বিচারপতি রঞ্জন গগৈ ও বিচারপতি আর এফ নরিম্যানের বেঞ্চ এই রিপোর্ট পেশের নির্দেশ দিয়েছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!