এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > রাজ্য সরকারি কর্মীদের কোনো ডিএ বাকি নেই, আদালতে জানিয়ে দিল রাজ্য সরকার

রাজ্য সরকারি কর্মীদের কোনো ডিএ বাকি নেই, আদালতে জানিয়ে দিল রাজ্য সরকার

রাজ্য সরকারি কর্মীদের ডিএ মামলায় নতুন মোড়। গত বৃহস্পতিবার ডিএ মামলার শুনানিতে আদালত মামলাকারীর কাছে জানতে চায়, কীভাবে, কোন পদ্ধতিতে মহার্ঘ ভাতা বরাদ্দ করা হয়ে থাকে? এবং তা মেনে চলা বাধ্যতামূলক কি না? জবাবে মামলাকারীদের আইনজীবী সর্দার আমজাদ আলি জানান, মুদ্রাস্ফীতির সঙ্গে সরকারি কর্মীরা যাতে সামঞ্জস্য বজায় রেখে জীবনধারণ করতে পারেন, তার জন্য এই ভাতা দেওয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। তা সত্ত্বেও অন্তত ৪৮ মাসের পাওনা দেরিতে মেটানো হয়েছে।

কিন্তু রাজ্য সরকারের তরফে জানানো হয়েছে, জানুয়ারী মাসের শেষে সরকারি কর্মীরা ১০০ শতাংশ হারে মহার্ঘ ভাতা পাবেন। তার সঙ্গে অন্তর্বর্তী ভাতা হিসেবে আরও ১০ শতাংশ যোগ হবে। আর রোপা অনুযায়ী এই খাতে কর্মীদের কোনও বকেয়া নেই। তবে বিচারপতিদের ডিভিশন বেঞ্চ এর পরিপ্রেক্ষিতে ২০০৬ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত মহার্ঘ ভাতা যেভাবে বৃদ্ধি হয়েছে, তার বছরওয়াড়ি হিসেব রাজ্য সরকারকে মামলার পরবর্তী শুনানির দিন পেশ করতে নির্দেশ দিয়েছে। কবে তা বকেয়া হয়েছিল এবং কবে তা দেওয়া হয়েছিল তাও খুঁটিয়ে দেখতে চান বিচারপতিরা। এই কর্মীদের এমন ভাতা আদৌ বকেয়া আছে কি না, তা তাঁদের প্রাপ্য কি না, সেটি সর্বাগ্রে বিবেচনা করে দেখবেন তাঁরা। তারপরে বিবেচ্য হবে, কেন্দ্রীয় সরকারের মহার্ঘ ভাতা দেওয়ার হারের সঙ্গে রাজ্যের কতটা তফাত রয়েছে, সেই ফাঁক রাজ্যের পূরণ করা উচিত কি না।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!