এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > প্রধানমন্ত্রী হওয়া নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চ্যালেঞ্জ জানালেন দিলীপ ঘোষ

প্রধানমন্ত্রী হওয়া নিয়ে মুখ্যমন্ত্রীকে চ্যালেঞ্জ জানালেন দিলীপ ঘোষ

ফের তৃণমূল বিরোধীতায় ময়দানে দিলীপ ঘোষ! নিজের চিরাচরিত স্টাইলেই চাঁচাছোলা ভঙ্গিতে রাজ্যের শাসকদলকে আক্রমণ শানালেন রাজ্যের পদ্মবাহিনীর সেনাপতি। গতকাল উত্তর ২৪ পরগনার নৈহাটির গৌরীপুরে দলীয় সভায় উপস্থিত ছিলেন তিনি। সেখান থেকেই গর্জে উঠে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে বললেন,”ওরা ৪২ টা আসন পাওয়ার স্বপ্ন দেখছে। আগে এর অর্ধেক আসন পেয়ে দেখাক।”

লোকসভা ভোটের প্রস্তুতির প্রথম থেকেই তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ অন্যান্য দলীয় হেভিওয়েট নেতারা বারবার বিরোধীদের হুঁশিয়ারী দিয়ে বলেছে,আসন্ন নির্বাচনে তৃণমূল ৪২টি আসনেই সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে। সেই প্রসঙ্গেই গতকাল দিলীপ বাবু তৃণমূলকে পাল্টা দিলেন।

এর পাশাপাশি পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল সরকারকে কটাক্ষ করে বললেন,ইউপিএ জমানার থেকেই এখন ৪ গুন টাকা বেশি দেয় বিজেপি সরকার। তবু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এবং তাঁর অনুচরদের ক্ষিদে মিটছে না। সেকারণে মানুষের পয়সা লুট করতেও দুবার ভাবছে না তাঁরা। আর সেজন্যেই উত্তর ২৪ পরগনা থেকে বালি,আসানসোল তেকে কয়লা এবং বীরভূম থেকে পাথর চুরি হচ্ছে। এমনকি গোরু বাংলাদেশে পাচার করেও ফায়দা লুটছে তৃণমূল।

বিজেপি শাসকদলের এসব দুর্নীতিমূলক কর্মকাণ্ডের কথা ফাঁস করে দেবে বলে সেই ভয়ে বিজেপিকে সভা করার অনুমতি দিচ্ছে না পশ্চিমবঙ্গ সরকার। অভিযোগের সুর চড়া করে জানালেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি। এসব করেও তাঁরা কেন্দ্রীয় সরকারের টাকা নেবে অথচ কেন্দ্রীয় আইন মানবে না। এরপর সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে বলেন,”বর্তমানে ওদের ৩৪ জন সাংসদ। সামনের নির্বাচনে ৪২-এর মধ্যে আবার ৩৪ টা আসনই পেয়ে দেখাক তাহলে মানব উনি প্রধানমন্ত্রী হওয়ার যোগ্য।”

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রাম, হোয়াটস্যাপ, ফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

লোকসভা ভোটের প্রস্তুতি ঠিকভাবে চলছে কিনা তা খতিয়ে দেখতে নির্বাচন কমিশনের ফুলবেঞ্চ এসেছে রাজ্যে। গতকাল তাঁদের কাছে অবাধ এবং শান্তিপূর্ণ নির্বাচনের আবেদন জানিয়েছে বিজেপির প্রতিনিধি দল। এছাড়া শাসকদলের সন্ত্রাসজনক কর্মকান্ড সহ লাগাতার রাজ্যে বিজেপির সভায় বাধাদানের একাধিক অভিযোগ করেছে তাঁরা নির্বাচন কমিশনের প্রতিনিধিদের কাছে। এ প্রসঙ্গে দিলীপ বাবু জানান,লোকসভা ভোটের খাতিরেই ভোটারদের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করার জন্যে নির্বাচন কমিশনের প্রতিনিধিদের কাছে আবেদন জানানো হয়েছে।

রাজ্যের সাধারণ মানুষ আরেকটা পঞ্চায়েত নির্বাচনের সন্ত্রাস দেখতে চায় না। আর সেজন্যেই গত পঞ্চায়েত ভোটসহ বিভিন্ন সময়ে রাজ্যের শাসকদলের সন্ত্রাসের ভিডিও নির্বাচন কমিশনের আধিকারিকদের কাছে জমা দিয়েছেন তিনি। ভোটারদের নিরাপত্তায় যাতে কোনো খামতি না থাকে তার জন্যে আগে থেকেই কেন্দ্রীয় নিরাপত্তা বাহিনী দেওয়ার আবেদন করা হয়েছে। সবই শান্তিপূর্ণ এবং সুষ্ঠুভাবে নির্বাচন প্রক্রিয়া মেটানোর স্বার্থেই এভাবে উদ্যোগর হয়েছে রাজ্যবিজেপি,এমনটাই আশ্বাস দিলেন দিলীপ ঘোষ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!