এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > রথযাত্রা নিয়ে আদালতের অনুমতি মিললেও নিজেদের ‘জালে’ নিজেরাই কাহিল বঙ্গ বিজেপি, সমাধান সূত্রের জন্য ভরসা দিল্লি!

রথযাত্রা নিয়ে আদালতের অনুমতি মিললেও নিজেদের ‘জালে’ নিজেরাই কাহিল বঙ্গ বিজেপি, সমাধান সূত্রের জন্য ভরসা দিল্লি!

দীর্ঘ টালবাহানা ও আইনি লড়াইয়ের পর রাজ্যের গেরুয়া শিবিরের বহু প্রতীক্ষিত রথযাত্রা বা গণতন্ত্র বাঁচাও যাত্রার অনুমতি আদালত থেকে হাসিল করে এনেছে বঙ্গ বিজেপি। যদিও, এর বিরুদ্ধে কলকাতা হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির কাছে দরবার করতে চলেছে রাজ্য সরকার। কিন্তু, তার আগে বড়সড় অস্বস্তিকর পরিস্থিতি তৈরী হল বঙ্গ বিজেপির অন্দরমহলে।

আদালতের অনুমতি মিলতেই – বঙ্গ বিজেপির তরফে কলকাতা হাইকোর্টকে হলফনামা দিয়ে জানানো হয় আগামী ২২, ২৪ ও ২৬ শে ডিসেম্বর রাজ্যের ৩ জায়গা থেকে ৩ টি রথ বের করা হবে। ফলে, প্রথম রথ বেরোনোর জন্য হাতে মাত্র মাঝের একটি দিন। যে গণতন্ত্র বাঁচাও যাত্রাকে কেন্দ্র করে – রাজ্য-রাজনীতির মোড় ঘুরিয়ে দিতে চাইছে রাজ্য বিজেপি, চাইছে গোটা রাজ্য জুড়ে গেরুয়া ঝড় তুলে দিতে তা একদিনের নোটিশে কিভাবে সুষ্ঠুভাবে করা যাবে?

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

কেননা, এই রথযাত্রা রাজ্যের উদ্যোগে হলেও – বাংলায় গেরুয়া ঝড় তুলতে সেখানে হাজির থাকবেন একাধিক শীর্ষ কেন্দ্রীয় নেতা। তাছাড়া, রথ হিসাবে যে বাসগুলিকে ব্যবহার করা হবে – তা নিরাপত্তার খাতিরে পার্শ্ববর্তী রাজ্যে গোপনস্থানে রাখা আছে। সেখান থেকে তা আনার পর – কেন্দ্রীয় নেতাদের সামনে দলীয় নেতা-কর্মীদের বিপুল সংখ্যায় হাজির করিয়ে দেখিয়ে দিতে হবে বাংলা সত্যিই পরিবর্তনের জন্য তৈরী!

তার জায়গায় একদিনের ‘নোটিশে’ যদি তা নমো নমো করে হয় – তাহলে এত ঝঞ্ঝাটের পর হা হাসিল হল তা কার্যত জলে যাবে। এই অবস্থায় সত্যিই কপালের ভাজ চওড়া হয়ে যাচ্ছে গেরুয়া শিবিরের নেতাদের বলে খবর। কিন্তু, এই দিনক্ষণ আদালতকে রীতিমত হলফনামা দিয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। এখন সেই হলফনামা বদল করে অন্যদিনে কিভাবে তা করা যায় – তা নিয়ে ঘনঘন আলোচনা চলছে কেন্দ্রীয় নেতৃত্ত্বের দিকে। কোন পথে এগোলে প্রথম দিনের রথযাত্রা সুষ্ঠুভাবে করা যায় বা কোন আইনের প্যাঁচে এই দিনের পরিবর্তন করা যায় – তা চূড়ান্ত করতে বঙ্গ শিবিরের ভরসা আপাতত দিল্লির দিকনির্দেশ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!