এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > ক্রমশ বাড়ছে সংগঠন – যাদবপুরের শিক্ষাকর্মীদের মধ্যেও এবার গেরুয়া শিবিরের আবির্ভাব ঘটল

ক্রমশ বাড়ছে সংগঠন – যাদবপুরের শিক্ষাকর্মীদের মধ্যেও এবার গেরুয়া শিবিরের আবির্ভাব ঘটল

বিগত পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর রাজ্যের প্রধান বিরোধী দলের তকমা সরকারিভাবে এখন বিজেপির হাতে। আর তাই এবার রাজ্যের প্রধান বিরোধী থেকে শাসক হয়ে উঠতে মরিয়া গেরুয়া শিবির। আর এরজন্য বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ত্বের স্পষ্ট নির্দেশ সংগঠন বাড়াতে হবে। কিন্তু সেই সংগঠন শুধুমাত্র রাজনৈতিক কর্মী নয় – চারিয়ে দিতে হবে সমাজের সর্বস্তরে।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর তাই এবার সংগঠন বাড়ানোর ক্ষেত্রে গেরুয়া শিবিরের অন্যতম পাখির চোখ রাজ্যের অগনিত সরকারি কর্মচারী, শিক্ষাকর্মী ও শিক্ষক-অধ্যাপকরা। কেননা বঙ্গ বিজেপি নেতৃত্ত্ব মনে করেন, রাজ্য সরকারের বিভিন্ন কার্যকলাপে, বিশেষ করে বকেয়া ডিএ ও কেন্দ্রীয় হারে বেতন না দেওয়া সরকারি কর্মচারীদের মনে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে প্রবল ক্ষোভ সৃষ্টি করেছে, আর সেই ক্ষোভ ক্রমশ উর্ধমুখী।

আর তাই একের পর এক কর্মসূচি নিয়ে চলেছে বিজেপি প্রভাবিত সরকারি কর্মচারী, শিক্ষাকর্মী ও শিক্ষক-অধ্যাপক সংগঠনগুলি। আর তারই অঙ্গ হিসাবে এবার রাজ্যের অন্যতম প্রভাবশালী বিশ্ববিদ্যালয় যাদবপুরেও সংগঠনের বিস্তার করে ফেললেন তাঁরা। গত মঙ্গলবার একটি সাধারণ সভার মাধ্যমে ওয়েস্ট বেঙ্গল ইউনিভার্সিটিস কর্মচারী পরিষদ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ে তাদের শাখা বিস্তার করে।

এতদিনের গতানুগতিক ধারণা ছিল – যাদবপুর মানেই বাম বা অতিবাম এবং শাসকদল মনোভাবাপন্ন সংগঠন। আর তাই শুরুতেই তার সঙ্গে পাল্লা দিতে একেবারে একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি সহ আত্মপ্রকাশ করল সংগঠনটি। ওই কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন বিশ্বজিৎ দেব এবং সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন সৌরভ ভট্টাচার্য।

যাদবপুরকে যে সংগঠন বিস্তারের ক্ষেত্রে বিশেষ নজরে দেখা হচ্ছে তা প্রমাণিত হয়ে যায় ওই সাধারণ সভায় উপস্থিত মাদার সংগঠনগুলির হেভিওয়েট নেতৃত্ত্বের উপস্থিতি দেখেই। সেখানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন সরকারি কর্মচারী পরিষদের সভাপতি দেবাশিস শীল। অন্যদিকে, কেন্দ্রীয় কমিটি থেকে উপস্থিত ছিলেন ওয়েস্ট বেঙ্গল ইউনিভার্সিটিস কর্মচারী পরিষদের সভাপতি মন্মথ রঞ্জন বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক বিবেক প্রসাদ গোন্ড ও পলাশ মাঝি এবং সহ-সভাপতি মনোহর প্রাসাদ চৌধুরী সহ একঝাঁক শীর্ষনেতৃত্ত্ব।

এদিকে, যাদবপুরের মত ঐতিহ্যবাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে সংগঠনের আত্মপ্রকাশের সাথে সাথেই কর্মসূচি রূপায়নেও মন দিল বলে জানা গেছে। ঐদিনই সংগঠনের তরফে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য এবং রেজিস্ট্রারের কাছে নতুন কমিটির পরিচয় করানোর পাশাপাশি কর্মচারীদের বিভিন্ন দাবি-দাওয়া নিয়ে একটি ডেপুটেশন পত্র তুলে দেয় সংগঠনেরই একটি প্রতিনিধি দল।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!