এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > তৃণমূল নেত্রীর চিন্তা বাড়িয়ে এবার প্রধানমন্ত্রীত্বের দৌড়ে ঢুকে পড়লেন এই হেভিওয়েট নেতাও

তৃণমূল নেত্রীর চিন্তা বাড়িয়ে এবার প্রধানমন্ত্রীত্বের দৌড়ে ঢুকে পড়লেন এই হেভিওয়েট নেতাও

আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে কেন্দ্র থেকে নরেন্দ্র মোদির নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকারকে হঠাতে মরিয়া বিরোধীরা। আর সেই লক্ষ্যে গত ১৯ শে জানুয়ারি কলকাতার ব্রিগেড প্যারেড গ্রাউন্ডে ২৩ দলের ২৬ জন শীর্ষনেতা উপস্থিত থেকে এক বিশাল জনসমাবেশে অংশগ্রহণ করেন। কিন্তু, সেই জোটকে তীব্র কটাক্ষ করে গেরুয়া শিবির প্রশ্ন তোলে – এই জোটের নেতা কে?

তার জবাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সহ বিরোধীরা জানান, আপাতত কেন্দ্র থেকে বিজেপি সরকারকে সরানোই মূল লক্ষ্য। আর তার জন্য যেখানে যে শক্তিশালী সে লড়াই করবে – বিজেপির বিরুদ্ধে একের বিরুদ্ধে এক ফর্মুলায় লড়বে। আর তারপর, সরকার গঠনের সময় এলে – সবাই মিলে বসে ঠিক করা হবে কে হবেন দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী। এই নিয়ে বিজেপির বেশি চিন্তা করার দরকার নেই। এই জোটে আমরা সবাই রাজা – বলে জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

আপনার মতামত জানান -

কিন্তু, তৃণমূল কংগ্রেসের অগণিত সমর্থকদের মনে আশা – দেশের পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী হবেন তাঁদের প্রিয় দিদি। আর সেই লক্ষ্যে বাংলার মানুষকে আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে ৪২ টির মধ্যে ৪২ টি আসনেই তৃণমূল কংগ্রেসকে জয়যুক্ত করার আহ্বান জানিয়েছেন তৃণমূল নেতারা। তাঁদের দাবি, দিদির হাতে ৪২ টি আসন দিন তাহলেই বাকিটা দিদি বুঝে নেবেন। এমনকি, এর পরিপ্রেক্ষিতে তৃণমূলের অন্দরে জল্পনা শুরু হয়ে গেছে – মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেশের প্রধানমন্ত্রী হলে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী কে হবেন সেই নিয়েও।

কিন্তু, এতদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পাশাপাশি জোটের প্রধানমন্ত্রী মুখ হিসাবে রাহুল গান্ধী, মায়াবতী বা অখিলেশ যাদবের নাম উঠে আসছিল। আর এবার সেদিনের সমাবেশে উপস্থিত থাকা প্রাক্তন বিজেপি মন্ত্রী যশবন্ত সিনহা জানিয়ে দিলেন তিনিও আছেন প্রধানমন্ত্রীত্বের দৌড়ে। দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয়ের শ্রীরাম কলেজে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে দুবারের কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে স্পষ্ট জানিয়ে দেন, সর্বোচ্চ পদের কাছাকাছি রয়েছেন তিনিও। ফলে, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পরিকল্পিত ফেডারেল ফ্রন্টে রোজই প্রধানমন্ত্রী হিসাবে নতুন নতুন নাম ভেসে উঠছে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!