এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > অযোধ্যা রামমন্দির মামলার শুনানির শুরুতেই চূড়ান্ত নাটক – চলে গেল অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে!

অযোধ্যা রামমন্দির মামলার শুনানির শুরুতেই চূড়ান্ত নাটক – চলে গেল অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে!

আজ দেশের সর্বোচ্চ আদালত সুপ্রিম কোর্টে বহু প্রতীক্ষিত অযোধ্যার রামমন্দির মামলার চূড়ান্ত শুনানি শুরু হওয়ার কথা ছিল। সেই মত, সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের বিচারপতির সাংবিধানিক বেঞ্চে শুরু হয় শুনানি। সাংবিধানিক বেঞ্চের বাকি চারজন ছিলেন বিচারপতি এসএ বোবড়ে, বিচারপতি এন বি রমণ, বিচারপতি ইউইউ ললিত এবং বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়।

কিন্তু শুনানির শুরুতেই চূড়ান্ত নাটকীয়তা। পাঁচ সদস্যের বেঞ্চের এক সদস্য ইউইউ ললিতের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন মুসলিম সংগঠনের আইনজীবী রাজীব ধওয়ান। তাঁর বক্তব্য, উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী কল্যাণ সিংয়ের আইনজীবী ছিলেন ইউইউ ললিত। এছাড়াও, তিনি বাবরি মসজিদ মামলারও বিচারপতি ছিলেন। আর তাই এই মামলায় তিনি কতখানি নিরপেক্ষ থাকবেন তাই নিয়ে প্রশ্ন ওঠে।

আমাদের খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে, নীচের যে কোন একটি করুন –

১. যোগ দিন আমাদের WhatsApp Group – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে
২. যোগ দিন আমাদের Telegram Group – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে
৩. যোগ দিন আমাদের Facebook Group – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে
৪. যোগ দিন আমাদের Twitter Handle – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে
৫. যোগ দিন আমাদের Google+ Group – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে
৬. যোগ দিন আমাদের LinkedIn Group – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে
৭. যোগ দিন আমাদের Tumblr গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে
৮. বুকমার্ক করে রাখুন আমাদের Official Home Page – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে
৯. যোগ দিন আমাদের YouTube Chanel – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে
১০. যোগ দিন আমাদের Facebook Page – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর এইভাবে তাঁর বিরুদ্ধে নিরপেক্ষতার প্রশ্ন ওঠায়, এই মামলা থেকে নিজেকে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন বিচারপতি ললিত। এরপরই শুনানি আজকের মত মুলতুবি করতে বাধ্য হন প্রধান বিচারপতি। তিনি জানান, বিচারপতি ললিতের জায়গায় বেঞ্চে স্থান পাবেন অন্য বিচারপতি। ফলে নতুন করে বেঞ্চ গঠন করা হবে। সেই বেঞ্চেই হবে অযোধ্যা মামলার শুনানি।

কিন্তু এরপরেই মুসলিম সংগঠনের আইনজীবীরা দাবি করেন, এই মামলা সংক্রান্ত বহু নথি হিন্দি, উর্দু এবং সংস্কৃত ভাষাতে রয়েছে। সেই নথিগুলি ইংরেজিতে অনুবাদ না হওয়া পর্যন্ত চূড়ান্ত শুনানি সম্ভব নয়। এই কথা শোনার পর, প্রধান বিচারপতি জানিয়ে দেন – মামলার পরবর্তী শুনানি ২৯ জানুয়ারি। সেদিন অযোধ্যা মামলার শুনানির দিন ঠিক করা হবে। কিন্তু, মুসলিম সংগঠনের আইনজীবীদের শেষোক্ত দাবির ভিত্তিতে তা আদৌ কবে শুরু হবে তা নিয়ে সন্দিহান সংশ্লিষ্ট মহল।

Top
Close
error: Content is protected !!