এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > লালকেল্লায় প্রধানমন্ত্রী মোদির মনের কথা বাংলার ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে অভিনব উদ্যোগ

লালকেল্লায় প্রধানমন্ত্রী মোদির মনের কথা বাংলার ঘরে ঘরে পৌঁছে দিতে অভিনব উদ্যোগ

মিত্র হোক বা শত্রু – প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাগ্মিতা নিয়ে সম্ভ্রম দেখান সকলেই। আর তিনি প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর থেকেই প্রত্যেক বছর স্বাধীনতা দিবসে লালকেল্লায় দাঁড়িয়ে দেশবাসীর উদ্দেশ্যে বক্তব্য রাখার সময় কোনো না কোনো চমক দিয়ে থাকেন নরেন্দ্র মোদী। সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে ক্ষমতায় আসার পর এবং দ্বিতীয়বার প্রধানমন্ত্রী হওয়ার পর এবারের 15 আগস্টই ছিল তাঁর প্রথম স্বাধীনতা দিবস।

দলীয় প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীর মত টানা ৬ বার লালকেল্লায় স্বাধীনতা দিবসে ভাষণ দেওয়ার অধিকার অর্জনের পর, নরেন্দ্র মোদী দেশবাসীর প্রতি কি বার্তা দেন, সেদিকে নজর ছিল সকলেরই। আর দেশবাসীকে হতাশ না করে, এবারের ভাষণে একাধিক গঠনমূলক বিষয়ে জোর দিতে দেখা গেল প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে। আর প্রধানমন্ত্রীর এই ভাষণ এবার বাংলা অনুবাদ প্রকাশ করা হল।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

সূত্রের খবর, নিজের ইউটিউব চ্যানেলে, গত ১৫ ই আগস্ট দিল্লির লালকেল্লা দেড় ঘণ্টা ঘণ্টা ধরে যে ভাষণ তিনি দিয়েছেন, তা বাংলা অনুবাদে প্রকাশ করেছেন নরেন্দ্র মোদি। তবে বাংলার পাশাপাশি তামিল, তেলেগু, কন্নড় ভাষাতেও নিজের বক্তব্য প্রকাশ করতে দেখা গেছে প্রধানমন্ত্রীকে। তবে বাংলায় নিজের বক্তব্য অনুবাদ করে প্রধানমন্ত্রী বাঙ্গালীদের হৃদয় ছোঁয়ারই চেষ্টা করলেন বলে মনে করছে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের একাংশ।

অনেকে বলছেন, সদ্য সমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে বাংলায় বিজেপি অভূতপূর্ব ফলাফল করেছে। এবার তাদের পরবর্তী মিশন ২০২১-এ বাংলার বিধানসভা নির্বাচন। আর তাই তো তার আগে যখন রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে বিজেপিকে কটাক্ষ করে আটকানোর চেষ্টা করা হচ্ছে, ঠিক তখনই নিজের স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে রাখা বক্তব্যকে বাংলার মানুষের ঘরে ঘরে পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!