এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > নরেন্দ্র মোদীকে তোপ দেগে মায়াবতী প্রসঙ্গে নতুন করে জল্পনা বাড়ালেন রাহুল গান্ধী

নরেন্দ্র মোদীকে তোপ দেগে মায়াবতী প্রসঙ্গে নতুন করে জল্পনা বাড়ালেন রাহুল গান্ধী

Priyo Bandhu Media

পুরানে শ্রীচৈতন্যকে কলসির কানা মারলেও জগাই মাধাইয়ের প্রতি ভালোবাসা প্রদর্শন করে মহাপ্রভু বলেছিলেন, “মেরেছ কলসির কানা, তাই বলে কি প্রেম দেব না?” এবার রাজনীতিতে সেই মহাপ্রভুর ভূমিকাতেই অবতীর্ন হয়ে 2019 এ মোদীকে সরাতে বিরোধী জোটের জন্য সকলকে আহ্বান জানালেন কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি রাহুল গান্ধী।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, কদিন আগেই কংগ্রেসের বিরুদ্ধে তোপ দেগে বিএসপি সুপ্রিমো মায়াবতী বলেন, “কংগ্রেস আমাকে শেষ করে দিতে চাইছে। তাই ছত্তিশগঢ়, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থানে কোন জোট করব না।” কেননা মধ্যপ্রদেশে জোটের ব্যাপারে মায়াবতীর সাথে আলোচনা চললেও হঠাৎই এক বৈঠকে কংগ্রেসের দিগ্বিজয় সিং এক বৈঠকে সেই মায়াবতীর সামনেই তার ভাইয়ের সিবিআই মামলার প্রসঙ্গ তোলায় কার্যত তিতিবিরক্ত হয়ে এই মধ্যপ্রদেশে কংগ্রেসের সাথে জোট করব না বলে জানিয়ে দেন। তবে তিনি কংগ্রেসের সোনিয়ি এবং রাহুল গান্ধীকে সম্মান করেন বলে জানান বহেনজী।

সূত্রের খবর, এদিন সর্বভারতীয় একটি ইংরেজী দৈনিক এবং একটি টিভি চ্যানেলের বার্ষিক অনুষ্টানে এক প্রশ্নের উত্তরে রাহুল গান্ধী বলেন, “লোকসভাতে এই জোট মায়াবতীর সায় আছে। ফলে সেখানে সমস্যা হবে না। তবে রাজ্যের নির্বাচনে কি হল তা নিয়ে মাথাব্যাথা নেই। রাজনৈতিক মহলের মতে, মায়াবতী কংগ্রেসের রাহুল গান্ধীকে সম্মান করেন বলে জানালে এদিন সেই রাহুলও মায়াবতীর প্রতি নিজের সফটকর্নারটাকেই প্রকাশ্যে আনলেন। তবে শুধু বিরোধী মহাজোট নয়, এই সাক্ষাৎকারে কেন্দ্রের বিজেপি সরকারের তুলোধোনা করেন কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সভাপতি।

বেকারত্ব সহ একগুচ্ছ ইস্যুতে কেন্দ্রের বিরোধীতা করে রাহুল গান্ধী বলেন, “ইউপিএ আমলে এনপিএর পরিমান মাত্র দুলক্ষ কোটি টাকা থাকলেও গত চার বছরে তা বেড়ে হয়েছে 12 লক্ষ কোটি টাকা। প্রধানমন্ত্রী যদি সামলাতে না পারেন তবে সরে দাড়ান। আমরা সামলে নেব।” পাশাপাশি এদিন কবিগুরুর চিত্ত যেথা ভয়শূন্য কবিতাটি আওড়ান কংগ্রেস সভাপতি।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর এরপরেই আরএসএসকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, “ভারতের চরিত্রই হল সকলকে নিয়ে চলা। কিন্তু এখানে বিজেপি আরএসএসের পার্থক্য রয়েছে। আমি মন্দিরে গেলেই ওরা প্রশ্ন তুলছে। এইভাবে কিছু চলতে পারে। বিজেপি এবং আরএসএসের মত ক্যাডারকেন্দ্রিক দল নয়, কংগ্রেস এগোবে মানুষের সমর্থন নিয়ে।” আর এই সমর্থনেই আসন্ন রাজস্থান, ছত্তিশগঢ়, মধ্যপ্রদেশ ও তেলেঙ্গানায় কংগ্রেস ভালো ফল করার পাশাপাশি আগামী 2019 এ লোকসভায় বিরোধী জোট কেন্দ্রে ক্ষমতায় আসার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী কংগ্রেসের রাহুল গান্ধী।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!