এখন পড়ছেন
হোম > জাতীয় > নারদ-ফুটেজ নিয়ে সত্যি বলছেন না ম্যাথু? ২ গুরুত্ত্বপূর্ন সাক্ষী বিদেশে? কি হবে ভবিষ্যৎ?

নারদ-ফুটেজ নিয়ে সত্যি বলছেন না ম্যাথু? ২ গুরুত্ত্বপূর্ন সাক্ষী বিদেশে? কি হবে ভবিষ্যৎ?

২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনের আগে হঠাৎ করে সামনে আসে নারদ স্টিং অপারেশন। সাংবাদিক ম্যাথু স্যামুয়েলের করা সেই স্টিং অপেরেশনে দেখা যায় রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসের একাধিক গুরুত্ত্বপূর্ন নেতা-মন্ত্রী-সাংসদ-বিধায়ক ছদ্মবেশী ম্যাথুর কাছ থেকে বান্ডিল বান্ডিল টাকা নিচ্ছেন, যা নিয়ে রীতিমত শোরগোল পরে যায় রাজ্য রাজনীতিতে। কিন্তু শাসকদলের তরফে স্পষ্ট জানানো হয় এই স্টিং অপারেশন আদতে ভুয়ো। এরপর বিষয়টি নিয়ে আদালতের নির্দেশে সিবিআই তদন্ত শুরু হয়। তৎকালীন সময়ে এই নিয়ে বহু প্রভাবশালীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডাকা হয়, শোনা যায় শাসকদলের অনেক নেতাকেই নাকি এরফলে জেলে যেতে হতে পারে। কিন্তু পরবর্তীকালে মামলার অগ্রগতিতে যেন ভাটা পরে যায়। এই বিষয়ে খোঁজ নিলে দেখা যাচ্ছে নারদ তদন্ত এখন বেশ কিছু ‘টেকনিকাল’ ব্যাপারের জন্য যথেষ্ট ব্যাকফুটে।

প্রথমেই জানা যাচ্ছে, তদন্তকারীদের হাতে মোট ৮২৮ মিনিটের ৭২ টি ভিডিও ক্লিপ তুলে দেন ম্যাথু। কিন্তু পরে দেখা গেছে ওই ভিডিও ক্লিপের আগে বা পরে থাকা অংশ পাওয়া যাচ্ছে না। ম্যাথু জেরার মুখে জানিয়েছেন সেই অংশ তিনি ‘ডিলিট’ করে দিয়েছেন। যা মেনে নিতে পারছেন না তদন্তকারী অফিসাররা। তাঁদের মতে এই স্টিং অপারেশন যে আদালত পর্যন্ত গড়াবে তা স্পষ্ট ছিল, সেখানে ম্যাথুর মত অভিজ্ঞ সাংবাদিক কি করে ভিডিও ‘ডিলিট’ করলেন! দ্বিতীয়ত, পরবর্তীকালে ম্যাথু তদন্তকারীদের হাতে আরো ২৮ মিনিটের ৮ টি ক্লিপ তুলে দেন, যেখানে কারোর ছবি দেখা যাচ্ছে না, কিন্তু গলা শোনা যাচ্ছে। এই ব্যাপারে আরো তদন্ত করার জন্য অভিযুক্তদের ‘ভয়েস-স্যাম্পল’-এর দরকার। কিন্তু মুকুল রায়, ফিরহাদ হাকিম ও সুব্রত মুখোপাধ্যায় ছাড়া আর কেউ সেই ভয়েস-স্যাম্পল দিতে রাজি নয়। তৃতীয়ত, ম্যাথু জানিয়েছিলেন, এই স্টিং অপারেশনের টাকা জুগিয়েছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ কেডি সিং আর গোটা বিষয়টার সাক্ষী ছিলেন তাঁর সেক্রেটারি মোনিকা এবং বিশ্বস্ত কর্মী রাগা। কিন্তু জানা গেছে এই দুই ব্যক্তিই বর্তমানে বিদেশে এবং কবে দেশে ফিরবেন সেই বিষয়ে কোনো কিছু জানা যাচ্ছে না। ফলে সবমিলিয়ে নারদ-তদন্ত আপাতত বিষ বাঁও জলে বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!