এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > নাগেরবাজার বিস্ফোরণকাণ্ডের তদন্তের অগ্রগতি নিয়ে বড়সড় প্রশ্ন ওঠা শুরু

নাগেরবাজার বিস্ফোরণকাণ্ডের তদন্তের অগ্রগতি নিয়ে বড়সড় প্রশ্ন ওঠা শুরু

ঘটনাটি ঘটেছিলো অহিংস আন্দোলনের জনক গান্ধীজীর জন্মদিন ২ অক্টোবরে। তারপর কেটে গেল প্রায় এক মাসের মতো সময়। কিন্তু নাগেরবাজার বিস্ফোরণ কান্ডের রহস্য উন্মোচন হলো না এখনও। যা নিয়ে এখন প্রশ্ন তুলতে শুরু করেছেন অনেকেই।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, চলতি মাসের ২ অক্টোবর কলকাতার নাগেরবাজার বিস্ফোরণে মৃত্যু হয় তিনজনের। হঠাৎই বিস্ফোরণে আতঙ্কিত হয়ে পড়ে গোটা এলাকাবাসি। পরিস্থিতি সামলাতে ঘটনাস্থলে হাজির হয় ব্যারাকপুর কমিশনারেটের পদস্থ আধিকারিক থেকে শাসকদলের হেভিওয়েট নেতা মন্ত্রীরা। বিস্ফোরণের প্রকৃত কারণ কি তা জানতে চাইলে ব্যারাকপুর কমিশনারেটের পক্ষ থেকে বলা হয় যে, সকেট বোমা ফাটাতেই এই বিস্ফোরণ ঘটেছে। ত

বে শুধু ব্যারাকপুর কমিশনারেটই নয়, ঘটনাস্থলে এসে লোহার পাইপ উদ্ধার করেন সিআইডি বম্ব ডিটেকশন ও ডিসপোজাল স্কোয়াডের সদস্যরা। এদিকে এতসবের পরেও এই নাগেরবাজার বিস্ফোরণকান্ডের প্রকৃত সত্য উদঘাটিত করতে পুরো ঘটনার সিআইডি তদন্তের নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর প্রশাসনিক প্রধানের নির্দেশ পেয়েই এই ঘটনার তদন্তে ময়দানে নেমে পড়েন সিআইডি কর্তারা।

যে এলাকায় বিস্ফোরণ হয়েছে সেখানে গিয়ে বিভিন্ন বিভিন্ন জনকে জেরা করার পাশাপাশি ক্যাম্প করে গোটা পরিস্থিতি পর্যালোচনা শুরু করে রাজ্যের এই তদন্তকারী সংস্থা। পাশাপাশি এই নাগেরবাজার বিস্ফোরণকাণ্ডের সাথে সম্প্রতি ঘটে যাওয়া বিভিন্ন বিস্ফোরণের বিস্ফোরক দ্রব্যের কোন মিল রয়েছে কিনা তাও খতিয়ে দেখেন তদন্তকারীরা। এমনকি এলাকায় ঠিক কতজন কূখ্যাত দুষ্কৃতী রয়েছে তার তালিকাও তৈরি করা হয় তদন্তকারীদের তরফে।

সূত্রের খবর, ইতিমধ্যেই এই নাগেরবাজার বিস্ফোরণকাণ্ডে গুরুত্বপূর্ণ কিছু তথ্যও চলে এসেছে তদন্তকারীদের হাতে। কিন্তু তাও তা প্রকাশ্যে আনতে পারছেন না সিআইডি আধিকারিকেরা। এখানেই তৈরি হয়েছে প্রবল ধন্দ। একাংশের প্রশ্ন, বিভিন্ন সময়ে যারা গুরুত্বপূর্ণ অনেক অপরাধীর কিনারা করেছেন! সেখানে একটা সাধারন বিস্ফোরণের ঘটনা কে ঘটাল তা জানতে তাদের এত সময় কেন লাগছে?

জানা গেছে, এই বিস্ফোরণকাণ্ডে নাম জড়িয়ে গেছে রাজ্যের বিশেষ একটি রাজনৈতিক দলের। ফলে ইচ্ছে থাকলেও এই তদন্তের তথ্য প্রকাশ্যে আনতে পারছেন না সিআইডি আধিকারিকেরা। কিন্তু ঠিক কোন রাজনৈতিক দলের নাম রয়েছে এতে?

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

আর কেনই বা একটা স্বশাসিত তদন্তকারী সংস্থা হয়ে একটি রাজনৈতিক দলের নাম প্রকাশ্যে আশায় সেই চাপের কাছে নতি স্বীকার করে থাকবে তারা? এইরকমই প্রশ্ন যখন ঘোরাফেরা করছে সর্বত্র, ঠিক তখনই সিআইডির তরফে দাবি করা হচ্ছে যে, ঘটনার সঙ্গে রাজনীতির কোনো সম্পর্ক নেই। খুব শীঘ্রই এই নাগেরবাজার তদন্তের জট খুলবে তারা। কিন্তু ঠিক কবে এই জট খুলবে? আর কবেই বা প্রকাশ্যে আসবে বিস্ফোরণের রিপোর্ট! এখন তার দিকেই তাকিয়ে সকলে।

Top
error: Content is protected !!