এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > চিন্তা বাড়াচ্ছে নদীয়া, জেলার শীর্ষনেতা-মন্ত্রীদের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠক ঘিরে চূড়ান্ত জল্পনা

চিন্তা বাড়াচ্ছে নদীয়া, জেলার শীর্ষনেতা-মন্ত্রীদের সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর বৈঠক ঘিরে চূড়ান্ত জল্পনা

এবারে রাজ্যের পঞ্চায়েত নির্বাচনের পর মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃনমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভালোই বুঝে গিয়েছিলেন যে এ রাজ্যে ঠিক কোন কোন জেলায় দলের ভিত এখনও দুর্বল রয়েছে। আর তাইতো কিছুদিন আগেই নেতাজী ইন্ডোরে দলের কোর কমিটির মঞ্চ থেকেই দক্ষিনবঙ্গের নদীয়া জেলার একাধিক নেতাকে ধমক দেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

 এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

কারন পঞ্চায়েত নির্বাচনের ফলাফলে এই জেলার রানাঘাট ও তেহট্টে সব চাইতে খারাপ ফলাফলের জন্য কিছুটা বিমূর্ষ তৃনমৃলের শীর্ষনেতৃত্বও। যার কারন হিসাবে অনেকেই জেলায় দলীয় নেতাদের গন্ডগোল ও সরকারের প্রকল্প মানুষের কাছে না পৌছোনোর মত ব্যাপারগুলিকেই দায়ী করেছেন। এদিকে 2016 র বিধানসভার ফলাফল দেখলে বোঝা যাবে যে এখানে 17 টি আসনের মধ্যে 5 টিতেই হারতে হয়েছে তৃনমূলকে।

বাকি আসনগুলো বাম কংগ্রেস জোট পেলেও সেখান থেকে কংগ্রেসের তিন বিধায়ক শঙ্কর সিং, হাসানুজ্জামান ও অরিন্দম ভট্টাচার্য তৃনমূলে যোগ দিয়েছেন। কিন্তু তাতেও অবস্থার কোনো পরিবর্তন হয়নি। বরঞ্চ পঞ্চায়েতে এই জেলায় বিজেপির ভোট বহুগুনে বৃদ্ধি পেয়েছে। আর তাতেই শঙ্কিত মুখ্যমন্ত্রী গতকাল বিধানসভার অধিবেশনের মাঝে নিজের ঘরে জেলার এক মন্ত্রীকে ডেকে এব্যাপারে কড়া ধমক দেন।

শুধু এখানেই শেষ নয়, পরিস্থিতি যাতে আর প্রতিকূলে না যায় তার কারনে আজ দুপুরে নদীয়ায় সমস্ত জেলা নেতাদের নিয়ে ও জেলা পর্যবেক্ষক তথা শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সাথে একটি বৈঠকও করবেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজনৈতিক মহলের মতে, এবার লোকসভায় এরাজ্য থেকে সবকটি আসনই নিজের দখলে রাখতে চায় তৃনমূল। আর তাই এদিনের বৈঠকে নদীয়ার হারানো সংগঠন ফিরিয়ে আনতে জেলা নেতাদের ভবিষ্যৎ রননীতির পথ বাতলে দিয়ে জেলার সংগঠনকে মজবুত করারই বার্তা দেবেন তৃনমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!