এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > অন্যায়ের সঙ্গে আপোষ নয় বার্তা দিতেই নির্বাচন কমিশনের অনুমতি মিললেই নবান্ন নেবে এই কড়া পদক্ষেপ

অন্যায়ের সঙ্গে আপোষ নয় বার্তা দিতেই নির্বাচন কমিশনের অনুমতি মিললেই নবান্ন নেবে এই কড়া পদক্ষেপ

অবশেষে এবার আলিপুরদুয়ারের জেলা শাসক নিখিল নির্মলের বিরুদ্ধে কড়া পদক্ষেপ নিতে চলেছে রাজ্য সরকার। সূত্রের খবর, জেলাশাসক পদ থেকে তাঁকে সরিয়ে দিতে এবার রাজ্য নির্বাচন কমিশনের কাছে নবান্নর তরফে অনুমতি চেয়ে পাঠানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সম্প্রতি থানায় ঢুকে এই আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসক সস্ত্রীক নিখিল নির্মল তাঁর স্ত্রীকে সোশ্যাল মিডিয়ায় এক অপমানিত মন্তব্য করবার জন্য অভিযুক্ত বিনোদ সরকারকে বেধড়ক মারধর করেছেন। আর যে ঘটনা সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড হতেই মুহূর্তের মধ্যে তা ভাইরাল হয়ে যায়।

মুহুর্তের মধ্যে শোরগোল পড়ে যায় রাজ্যজুড়ে। কিভাবে একজন জেলাশাসক থানার ভেতরে ঢুকে লকআপের মধ্যে কোনো অভিযুক্তের গায়ে হাত তুলতে পারেন তা নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে নানা প্রশ্ন উঠতে শুরু করে। আর এই ঘটনার পরই সেই অভিযুক্ত বিনোদ সরকারের বাবা রাজমোহন সরকার সেই জেলাশাসক নিখিল নির্মল ও তাঁর স্ত্রীর বিরুদ্ধে স্থানীয় থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

 

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিকে একজন জেলাশাসক এইভাবে নিজেই আইন হাতে তুলে নেওয়ায় সরকারের পক্ষ থেকেও গত রবিবার এই ঘটনার পরই সেই নিখিল নির্মলকে 10 দিনের ছুটিতে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হয়। আর এবারে সেই জেলাশাসককে তাঁর দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়ার জন্য নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হল রাজ্য সরকার। কিন্তু নিখিল নির্মলের জায়গায় কে হবেন আলিপুরদুয়ার জেলার নতুন জেলাশাসক?

সূত্রের খবর, স্বাস্থ্য দপ্তরের অতিরিক্ত সচিবের দায়িত্বে থাকা এক আইএএসকেই আলিপুরদুয়ার জেলার জেলাশাসকের দায়িত্ব দিচ্ছে সরকার। তবে আপাতত ভারপ্রাপ্ত জেলাশাসক হিসেবে আলিপুরদুয়ারের অতিরিক্ত জেলাশাসক (উন্নয়ন) চিরঞ্জিত ঘোষই তাঁর দায়িত্বভার গ্রহণ করেছেন।

এদিকে আলিপুরদুয়ার জেলার জেলাশাসক পথ থেকে নিখিল নির্মল কে সরানোর জন্য যখন নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হচ্ছে রাজ্য ঠিক তখনই এই ঘটনায় ধৃত বিনোদ সরকার জামিনে ছাড়া পাওয়ার সাথে সাথেই অসুস্থ হয়ে পড়েন। এদিকে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের তরফে সুস্থ ও স্বাভাবিক হওয়ার পরই দুপুরে বিনোদকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে দাবি করা হলেও বিনোদের পরিবার অবশ্য এখনও তাঁর কোন সন্ধান পাননি বলে অভিযোগ।

এদিন এই প্রসঙ্গে ধৃত বিনোদ সরকারের কাকা ললিতমোহন সরকার বলেন, “হাসপাতালে পুলিশ বিনোদের সঙ্গে আমাদের দেখাই করতে দেয়নি। আর বিকেলের পর থেকে ওর কোন সন্ধানই পাচ্ছি না।”

সব মিলিয়ে আলিপুরদুয়ারের জেলাশাসক নিখিল নির্মলের এহেন অন্যায় ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হতেই রাজ্য যে কোনো অন্যায়ের সঙ্গে আপস করবে না সেই ব্যাপারে ফের এদিন নির্বাচন কমিশনের কাছে অনুমতি চাওয়াতেই স্পষ্ট করে দিল নবান্ন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!