এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > লক্ষ লক্ষ মিউটেশনের কেস ঝুলে বছরের পর বছর ধরে – আশু সমাধানে বিশেষ পদক্ষেপ প্রশাসনের

লক্ষ লক্ষ মিউটেশনের কেস ঝুলে বছরের পর বছর ধরে – আশু সমাধানে বিশেষ পদক্ষেপ প্রশাসনের

দীর্ঘদিন ধরে জমি মিউটেশনের ভুরি ভুরি কেস মুর্শিদাবাদ জেলায় পড়ে থাকায় এবার তা সমাধান করতে উদ্যোগী হচ্ছে জেলা ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তর। প্রসঙ্গত, রাজ্যের অন্যান্য জেলাগুলির মতই এই মুর্শিদাবাদ জেলাতেও বহুদিন আগেই ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের পক্ষ থেকে অনলাইন পরিষেবা চালু করা হয়েছিল।

কিন্তু অনলাইন প্রক্রিয়ার মাধ্যমে জমি মিউটেশনের আবেদন করার কথা বলা হলেও এখনও পর্যন্ত এই মুর্শিদাবাদ জেলায় মোট 26 টি ব্লকের মধ্যে 13 টিতেই প্রায় 1 লক্ষ 7 হাজার 910 টি পেন্ডিং মিউটেশন কেস রয়েছে। সূত্রের খবর, এর মধ্যে মুর্শিদাবাদের বহরমপুরে 31 হাজার 423 টি, নবগ্রামে 9 হাজার 757 টি, জলঙ্গিতে 8073 টি, খড়গ্রামে 7754 টি, বেলডাঙ্গা 1 এ 7516 টি, কান্দিতে 6718 টি, ভরতপুর 2 তে 6394 টি, সাগরদিঘিতে 5904 টি, বেলডাঙা 2 তে 5580 টি, ভগবানগোলায় 5098 টি, ডোমকলে 4783 টি, ভরতপুর 1 এ 4493 টি এবং মুর্শিদাবাদ-জিয়াগঞ্জে 4717 ঝুলে রয়েছে।

জানা গেছে, কিছুদিন আগেই জেলার এক প্রশাসনিক বৈঠকে এই ব্যাপারে একটি রিপোর্ট পেশ করে জেলা ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তর। আর সেই বৈঠকেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে, এবার থেকে ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তর জমির মিউটেশন বা মালিকের নাম পরিবর্তনের ব্যাপারে প্রচার অভিযান করবে।

অভিযোগ, এই জমি কেনার পর একাংশ জমির মালিকের নাম পরিবর্তনের জন্যই ভূমি বা ভূমি সংস্কার দপ্তরে কোনোরূপ যোগাযোগই করেন না। ফলে নিজেদের জমি দখল করে তারা দীর্ঘদিন তা ফেলে রাখেন। ঘরে তৈরি হয় প্রবল বিভ্রান্তি তাই এবার এই অবস্থাকে কমাতে জেলার বিভিন্ন গ্রামে ক্যাম্প করার পাশাপাশি বাসিন্দাদের সচেতন করতে লিফলেট ছড়িয়ে দিয়ে একটি প্রচার অভিযানে নামার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রশাসন।

এদিন এই প্রসঙ্গে মুর্শিদাবাদ জেলার অতিরিক্ত জেলা শাসক (ভূমি ও ভূমি সংস্কার) অংশুল গুপ্তা বলেন, “বর্তমানে মিউটেশনের জন্য সরাসরি অফিসে বা অনলাইনে আবেদন করার সুযোগ থাকলে অনেক বাসিন্দারাই তা করেন না। এমনকি জমি রেজিস্ট্রির সময় অনেকের ফোন নম্বর ভুল দেওয়া হয়ে থাকে। আর এইসব কারণেই অনেক মিউটেশন কেস এখনো মেটানো সম্ভব হয়নি। তাই এই ব্যাপারে সকলকে সচেতন করতে গ্রামে গ্রামে প্রচার চালানোর কর্মসূচি নেওয়া হচ্ছে।” তবে জেলা প্রশাসনের এহেন দাবি মানতে নারাজ বাসিন্দাদের একাংশ।

ফেসবুকের কিছু টেকনিকাল প্রবলেমের জন্য সব খবর আপনাদের কাছে পৌঁছেছে না। তাই আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

 

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

তাদের অভিযোগ, ভূমি দপ্তরে আবেদন করার পরও নির্দিষ্ট সময়ে মিউটেশন হচ্ছে না। তবে বাসিন্দাদের এই দাবিকে সম্পূর্ণরূপে খারিজ করে দিয়েছেন মুর্শিদাবাদ জেলার ভূমি ও ভূমি সংস্কার দপ্তরের অতিরিক্ত জেলা শাসক। আর জেলা প্রশাসন এবং বাসিন্দাদের এই দাবি-পাল্টা দাবির মাঝেই এবার জেলায় মিউটেশনের লক্ষ্য লক্ষ্য কেসের সমাধান করতে বিশেষ পদক্ষেপ নিতে চলেছে মুর্শিদাবাদ জেলা প্রশাসন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!