এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > জাল নোট আর আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ব্যতিব্যাস্ত মুর্শিদাবাদ, আটকাতে বিশেষ ব্যাবস্থা প্রশাসনের

জাল নোট আর আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে ব্যতিব্যাস্ত মুর্শিদাবাদ, আটকাতে বিশেষ ব্যাবস্থা প্রশাসনের

রাজ্যের বড় জেলার মধ্যে বর্তমানে মুর্শিদাবাদ অন্যতম। এই জেলার সীমান্তে মালদহ. নদীয়া, বীরভূম. পূর্ব বর্ধমান এমনকী পাশেই ঝাড়খন্ড রাজ্য থাকায় পড়াশোনা, চিকিৎসা, ব্যাবসা, পার্সপোর্ট সহ বিভিন্ন কাজে এই জেলায় প্রচুর লোক আসেন। যার ফলে আগ্নেয়াস্ত্র ও মাদক কারবারি. গোরু পাচার সহ বিভিন্ন বেআইনি কাজে কিছু অসাধু ব্যাক্তির বাড়বাড়ন্তে
বিশৃঙ্খলি দেখা দিয়েছে এই জেলায়।

আরো খবর পেতে চোখ রাখুন প্রিয়বন্ধু মিডিয়া-তে

——————————————————————————————-

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে।

পরিস্থিতিকে নিয়ন্ত্রণে আনতে রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এই জেলায় বেশি করে নজরদাড়ি চালানোর নির্দেশও দেওয়া হয়েছে পুলিশ প্রশাসনকে। আর তাই কিছুদিন আগেই জেলায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের একটি নতুন পদ চেয়ে রাজ্য প্রশাসনের কাছে আবেদন পাঠালে গত এপ্রিল মাসেই এ নিয়ে অনুমোদন দেয় রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। জানা গেছে; নতুন অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের অফিস হবে জঙ্গিপুর মহকুমায়। যার অধীনে থাকবে জঙ্গিপুর ও লালবাগ মহকুমা।

অন্যদিকে এতদিন জঙ্গিপুর, লালবাগ, ডোমকল মহকুমার দ্বায়িত্বে ললাবাগের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার থাকলেও এবার সেইপদটি তুলে দিয়ে ডোমকলে একটি অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের পদ সৃষ্টি করে তার অধীনে ডোমকল, নওদা, হরিহরপাড়া ও রেজিনগর থানাকে রাখার পরিকল্পনা চলছে। এদিকে সদরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের অধীনে বহরমপুর মহকুমার কিছু অংশ,কান্দি মহকুমা রাখা হবে বলে খবর।

এছাড়াও ডিএসপি( ডিঅ্যান্ডটি) ডিএসপি (সদর), ডিএসপি (ডিআইবি), ডিএসপি(ট্রাফিক) এবং চারজন এসডিপিওকে কিছুটা বাড়তি দ্বায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে। এছাড়াও অপরিচিত লোকদের খুঁজেবের করতে পঞ্চায়েত ও পৌরসভাকে কাজে লাগাতে চায় জেলা পুলিশ। এমনকী বিভিন্ন পাড়াতেও এ নিয়ে কনভেনশনও চালানোর পরিকল্পনা করেছে পুলিশ প্রশাসনের। সব মিলিয়ে মুর্শিদাবাদের নিরাপত্তায় আটোঁসাটো করতে তৎপর জেলা পুলিশ।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!