এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > মালদা-মুর্শিদাবাদ-বীরভূম > নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বিরোধী আন্দোলনে যখন উত্তাল রাজ্য,মুর্শিদাবাদে শুরু ভোটার তালিকা সংশোধনের কাজ

নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বিরোধী আন্দোলনে যখন উত্তাল রাজ্য,মুর্শিদাবাদে শুরু ভোটার তালিকা সংশোধনের কাজ


নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বিরোধী আন্দোলনে যখন উত্তাল রাজ্য, ঠিক সেই আবহের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গের মুর্শিদাবাদে শুরু হলো ভোটার তালিকায় নাম তোলা, সংশোধন, সংযোজন-বিয়োজনের কাজ। গত 16 ই ডিসেম্বর থেকে এই কাজ শুরু হয়েছে। চলবে আগামী 15 ই জানুয়ারী 2020 পর্যন্ত।  নির্বাচন কমিশন সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী, প্রতিবছর ভোটার তালিকায় নতুন করে নাম সংযোজন ও সংশোধনের বিশেষ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়।  এ বছরেও সেই বিশেষ কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়েছে।

গত 16 ই ডিসেম্বর থেকে আগামী 15 জানুয়ারি পর্যন্ত এই একমাস ধরে বুথ লেভেল অফিসাররা জেলার প্রতিটি ভোটারের বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার তালিকার তথ্য ঠিক আছে কিনা দেখবেন এবং তার জন্য ভোটারদের ভোটার স্লিপ দেবেন। এছাড়া এই সময়ের মধ্যে প্রতি শনি ও রবিবার বুথে বুথে বিশেষ শিবির করা হবে, যেখানে খসড়া ভোটার তালিকা থাকবে। সেই তালিকায় নিজের তথ্য মিলিয়ে যেমন দেখা যাবে, তেমনি ভোটার তালিকায় নাম তোলা, সংশোধনসহ অন্যান্য ব্যাপারে আবেদনপত্র জমা নেওয়া হবে।

সব শেষে আগামী 7 ফেব্রুয়ারি চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করা হবে বলে জানা গেছে মুর্শিদাবাদ জেলা প্রশাসন সূত্রে। এ প্রসঙ্গে মুর্শিদাবাদের নির্বাচন দপ্তরের অফিসার ইনচার্জ ম্যাঘপোন ডি লামা বলেন, ‘‘ভোটার তথ্য যাচাইয়ের সময় মুর্শিদাবাদের ১৪ লক্ষ ভোটার সংশোধনের জন্য এবং সাড়ে পাঁচ হাজার নতুন ভোটার নাম তোলার আবেদন করেছিলেন। ১৬ ডিসেম্বর প্রকাশিত খসড়া ভোটার তালিকায় তাঁদের নাম যেমন তোলা হয়েছে, তেমনি সংশোধনও করা হয়েছে।’’

WhatsApp-এ প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর পেতে – ক্লিক করুন এখানে

আমাদের অন্যান্য সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপের লিঙ্ক – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউব, ফেসবুক পেজ

আমাদের Subscribe করতে নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।

এবার থেকে আমাদের খবর পড়ুন DailyHunt-এও। এই লিঙ্কে ক্লিক করুন ও ‘Follow‘ করুন।



আপনার মতামত জানান -

মাস চারেক আগে অসমে নাগরিক পঞ্জিকরণ এর চূড়ান্ত তালিকা প্রকাশ করা হয়। দেখা যায়, সেই তালিকা থেকে 19 লক্ষ মানুষের নাম বাদ গেছে। প্রশ্নচিহ্ন ওঠে সেই সব বাদ পড়া মানুষের নাগরিকত্ব নিয়ে। ঠিক সেই সময়ে নির্বাচন কমিশন সারা দেশজুড়ে ইলেকট্রন ভেরিফিকেশন প্রোগ্রাম বা নির্বাচক তথ্য যাচাই কর্মসূচি শুরু করেছে। অন্যদিকে, ডিজিটাল রেশন কার্ড দেওয়া, রেশন কার্ড সংশোধনের কাজও সমানতালে চলতে থাকে। মুর্শিদাবাদেও নাগরিকপঞ্জি তালিকার রেশ এসে পড়ে সেই সময়। বিডিও অফিসগুলিতে রেশন কার্ড সংশোধনের জন্য লক্ষ লক্ষ মানুষ ভিড় জমিয়েছিলেন। তেমনি অনলাইনে ভোটার তথ্য যাচাইয়ের জন্য 14 লক্ষ মানুষ সংশোধনের আবেদন করেছিলেন।

এবার আবার ভোটার তালিকা সংশোধনের কাজ শুরু হয়েছে। দেখা যাচ্ছে 16 ই ডিসেম্বরের খসড়া ভোটার তালিকা অনুযায়ী মুর্শিদাবাদের ভোটার সংখ্যা 51 লক্ষ 58 হাজার 887 জন। মুর্শিদাবাদের জেলা প্রশাসনের এক কর্তা জানিয়েছেন, খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশ হওয়ার পর তা প্রতিটি রাজনৈতিক দলের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। শুধু তাই নয়, সর্বদলীয় বৈঠক করে ভোটার তালিকার কাজের কথা জানানো হয়েছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকেও এ বিষয়ে সচেতনতা প্রচার করা হয়েছে। ভোটার লিস্টের সংশোধনের কাজ প্রতি বছর সেপ্টেম্বর মাসে শুরু হলেও এবার ভোটার তথ্য যাচাই কর্মসূচির কারণে এ বছর তা পিছিয়ে 16 ই ডিসেম্বর থেকে শুরু হয়েছে।

এরাজ্যে আপাতত পরপর পুরভোট ও বিধানসভা ভোট। এই নির্বাচন গুলিকে নজরে দেখে মুর্শিদাবাদের ভোটার তালিকা সংশোধনের কাজ শুরু হয়েছে। আপাতত খসড়া ভোটার তালিকাগুলি নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলো নিজেদের মতো নির্বাচনী তালিকা তৈরি করতে প্রস্তুত হচ্ছে। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, নাগরিকত্ব আইন, জাতীয় নাগরিকপঞ্জি এবং জাতীয় জনসংখ্যা রেজিস্টার নিয়ে যখন চারিদিকে গণআন্দোলন শুরু হয়েছে, সেসময় মুর্শিদাবাদে ভোটার তালিকা সংশোধনের কাজ উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখতে পারে। আপাতত পরিস্থিতির ওপর নজর রেখে কর্মসূচি পালনে ব্যস্ত নির্বাচন কমিশন।

আপনার মতামত জানান -

Top
error: Content is protected !!