এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > রাজ্যের সব পৌরসভা দখল করতে পৃথক পৃথক পরিকল্পনা বিজেপির, জেনে নিন!

রাজ্যের সব পৌরসভা দখল করতে পৃথক পৃথক পরিকল্পনা বিজেপির, জেনে নিন!

লোকসভায় বাংলার 18 টি আসনে পদ্ম ফোটাতে সক্ষম হয়েছিলেন বিজেপি নেতারা। কিন্তু তারপর দিন গিয়েছে, সময় গিয়েছে। তবে লোকসভা ফলাফলের পরিপ্রেক্ষিতে বিজেপির অবস্থা কিছুটা হলেও খারাপ হয়েছে। আর এর ফলে বিজেপি বাংলা দখলের যে স্বপ্ন নিয়ে এগিয়ে চলেছে, তাদের সেই স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে যাবে বলে মনে করছে সমালোচক মহলের একাংশ। তাই এই পরিস্থিতিতে ভারতীয় জনতা পার্টি চাইছে, রাজ্যের আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে ভালো ফল করে বিধানসভায় চূড়ান্ত ফলাফল করতে। কিন্তু কিভাবে তারা পৌরসভা নির্বাচনের ভালো ফল করবে! এখন তা নিয়ে রণকৌশল বৈঠক করতে চলেছে ভারতীয় জনতা পার্টি।

সূত্রের খবর, শুক্র এবং শনিবার দুই দিনব্যাপী কলকাতায় বঙ্গ বিজেপির পক্ষ থেকে একটি বৈঠকের ডাক দেওয়া হয়েছে। আর সেই বৈঠকেই যে সমস্ত পৌরসভায় নির্বাচন হবে, সেই পৌরসভাগুলোর জন্য পৃথক পৃথকভাবে ইশতেহার প্রকাশ করা হবে বলে আলোচনা হতে পারে। অর্থাৎ রাজ্যের প্রতিটি পৌরসভা নির্বাচনে ভালো ফল করতে সেখানকার সমস্যার কথা তুলে ধরে ইশতেহারের মাধ্যমে তা সমাধানের আশ্বাস দিয়ে সেখানকার মানুষের সমর্থন নিজেদের দিকে আনতে সচেষ্ট হবে। আর তাই এই ইশতেহার প্রকাশ বলে মত বিশেষজ্ঞদের। কিন্তু ঠিক কী কী বিষয় সেখানে থাকবে!

দলীয় সূত্রে খবর, সংশ্লিষ্ট পৌরসভায় বিজেপি যদি বোর্ড দখল করে, তাহলে এলাকার কোন কোন উন্নয়নের ওপর তারা জোর দেবে, তা সেখানে লিপিবদ্ধ করা থাকবে। দ্বিতীয়ত, রাজ্যের বেশিরভাগ পৌরসভাই বর্তমানে তৃণমূলের দখলে। তাই সেদিক থেকে শাসক দল তৃণমূলকে হারাতে তাদের ব্যর্থতার দিকগুলো ইশতেহারে তুলে ধরবে ভারতীয় জনতা পার্টি।

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ার খবর আরও সহজে হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের যে কোনও এক্সক্লুসিভ সোশ্যাল মিডিয়া গ্রূপে। ক্লিক করুন এখানে – টেলিগ্রামফেসবুক গ্রূপ, ট্যুইটার, ইউটিউবফেসবুক পেজ

যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এখানে

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এছাড়াও এলাকার সমস্যার দিকগুলো তুলে ধরে, তা সমাধানের ব্যাপারেও ইশতেহারের প্রতিশ্রুতি দেবে বিজেপি। জানা যাচ্ছে, শুক্র এবং শনিবার বিজেপির দুদিনব্যাপী বৈঠকে এই ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হতে পারে। কিন্তু যেখানে তৃণমূল কংগ্রেস তাদের দখলে থাকা পৌরসভাগুলোতে প্রচারের সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের কথা বলবে, সেখানে বিজেপির এই ইশতেহার কি আদৌ প্রভাব ফেলবে!

এদিন এই প্রসঙ্গে বিজেপির কেন্দ্রীয় সম্পাদক তথা পশ্চিমবঙ্গের দায়িত্বপ্রাপ্ত বিজেপির নেতা সুরেশ পূজারী বলেন, “শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গে নয়, সারা দেশের যেকোনো পৌরসভা ভোটেই নির্বাচনী এজেন্ডায় একটি পৌরসভা থেকে অন্য পৌর এলাকায় ভিন্ন হয়। তাই ইশতেহার আলাদা করা প্রয়োজন। বিধানসভা নির্বাচনের আগে পৌরসভা বাংলায় বড় নির্বাচন। তাই এখানে সর্বশক্তি দিয়ে দলীয় নেতৃত্বকে ঝাপানোর কথা বলা হয়েছে। তবে পৌরসভা ভিত্তিক আলাদা ইশতেহার তৈরি করলেও, পরে সবগুলো একত্রিত করে একটা সামগ্রিক প্রতিশ্রুতিপত্র পূরণ করা যেতেই পারে।”

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বর্তমানে বাংলায় যে নির্বাচন আসে, সেই নির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস মমতা বন্দোপাধ্যায়ের উন্নয়নের কথা তুলে ধরে ব্যাপক প্রচার করে। ফলে সেদিক থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উন্নয়নের প্রচারকে ভাঙতে গেলে বিজেপিকে নিজেদের উন্নয়নমূলক প্রতিশ্রুতি দিয়ে মানুষের মন জয় করতে হবে। তাই পৌরসভা নির্বাচনে সাফল্য পেতে এখন বিভিন্ন পৌরসভা ভিত্তিক ইশতেহার প্রকাশের দিকে নজর দিতে শুরু করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি। তবে আজকে বিজেপির এই বৈঠকে ইশতেহার নিয়ে কি সিদ্ধান্ত হয় এবং পরবর্তীতে ইশতেহারে কতটা চমক থাকে, তার দিকেই নজর থাকবে সকলের।

আপনার মতামত জানান -
Top