এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > ভোট না হওয়া 18 পুরসভায় প্রশাসকের পর এবার উপদেষ্টামন্ডলী, পুরভোট আরও পিছানো নিয়ে জল্পনা

ভোট না হওয়া 18 পুরসভায় প্রশাসকের পর এবার উপদেষ্টামন্ডলী, পুরভোট আরও পিছানো নিয়ে জল্পনা

গত বছরের ডিসেম্বর মাসেই রাজ্যের 17 টি পুরসভার বোর্ডের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়ে গিয়েছিল। আর হিসেবমতো কোনো পুরসভার মেয়াদ উত্তীর্ণ হলে সেইখানে সরকার নিযুক্ত প্রশাসক বসানো হয়। আর সেই মতো রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে এই 17 টি পৌরসভায় প্রশাসক বা সেই পুরসভার পুর কমিশনারকে নিয়োগ করা হয়। কিন্তু আর শুধু প্রশাসক নয়, এবার প্রশাসকের পাশাপাশি এই সমস্ত পৌরসভায় ছয়জনের একটি উপদেষ্টামন্ডলী গঠনের সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার।

প্রশাসন সূত্রের খবর, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের এই সিদ্ধান্ত ইতিমধ্যেই রাজ্যের হাওড়া, চন্দননগর এবং ডায়মন্ডহারবার পুরসভায় বাস্তবায়িত করা হয়েছে। আর বাকি পুরসভাগুলিতেও খুব তাড়াতাড়ি এই উপদেষ্টামন্ডলী গঠনের কাজ সম্পন্ন হবে বলে জানা গেছে। কিন্তু ঠিক কী এই উপদেষ্টামন্ডলী? এতে ঠিক কারা কারাই বা থাকবেন?

এদিন এই প্রসঙ্গে রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, “এই উপদেষ্টামন্ডলীতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ছাড়াও বিভিন্ন পেশার মানুষ থাকতে পারবেন। এটা মূলত পুরসভার কাজকর্মে পরামর্শ দেবে। তবে মূল কাজ করবে প্রশাসকই।” আর রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে প্রথমে প্রশাসক এবং পরে এই উপদেষ্টামন্ডলী গঠনের কাজে উদ্যোগ নেওয়া হলে এবার মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়া পৌরসভাগুলির ভোট যে আরও পিছিয়ে যাবে সেই ব্যাপারে একপ্রকার নিশ্চিত ওয়াকিবহাল মহলের একাংশ।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অনেকেই বলছেন, আগামী এপ্রিল থেকে মে মাস জুড়ে রাজ্যের লোকসভা নির্বাচন শুরু হয়ে যাবে। ফলে সেই দিক থেকে আগামী দু-তিন মাসের মধ্যে কোনরূপ ভোট করা সম্ভব না। তাই আগামী বছর রাজ্যের অনেক পুরসভার ভোট রয়েছে। তাই মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়া এই 18 টি পৌরসভার ভোট সেই পরের বছরই হওয়ার আশঙ্কা করছেন অনেকে।

সমালোচকদের একাংশের মতে, মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়া পৌরসভাগুলির ভোট করার ইচ্ছা যদি রাজ্য সরকারের থাকত, তাহলে তারা মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার সাথে সাথেই তা সম্পন্ন করতে পারত। কিন্তু রাজ্য সরকারের দীর্ঘসূত্রিতাই প্রমাণ করে দিচ্ছে যে, এখন এই পুরসভাগুলির নির্বাচন হলে তারা সেখানে বোর্ড গঠন করতে পারবে না। আর তাই প্রথমে সেখানে প্রশাসক, আর এবার উপদেষ্টামন্ডলী গঠন করে ভোট প্রক্রিয়াকে আরও পিছিয়ে দিতে চাইছে রাজ্য। সব মিলিয়ে মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়া রাজ্যের এই 18 টি পুরসভায় ঠিক কবে নির্বাচন হয় এখন সেদিকেই তাকিয়ে সকলে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!