এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > নদীয়া-২৪ পরগনা > মুকুল পুত্রকে নিয়ে জ্যোতিপ্রিয়-দিলীপের জোর লড়াই, জোর চাপানউতোর রাজ্যে

মুকুল পুত্রকে নিয়ে জ্যোতিপ্রিয়-দিলীপের জোর লড়াই, জোর চাপানউতোর রাজ্যে

কিছুদিন আগেই দিল্লিতে বিজেপির সদর দপ্তরে গিয়ে গেরুয়া শিবিরের পতাকা হাতে তুলে নিয়েছিলেন বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের পুত্র তথা বীজপুরের তৃণমূল বিধায়ক শুভ্রাংশু রায়। আর দলবদলের কারণ হিসেবে তৃণমূল নেত্রীর তাকে অভিহিত করে “গদ্দারের ছেলে” বলাটাকে উল্লেখ করেন মুকুল পুত্র।

আর বঙ্গ রাজনীতির চাণক্য তথা হেভিওয়েট বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের পুত্র শুভ্রাংশু রায়ের দলবদলের পরেই এবার গতকাল উত্তপ্ত হয়ে উঠল কাঁচরাপাড়া। সূত্রের খবর, এদিন কাঁচরাপাড়ায় তৃণমূল নেত্রী আলো রানী সরকারের বাড়িতে দলীয় বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন উত্তর 24 পরগনা জেলা তৃণমূল সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, তাপস রায়, সুজিত বসুর মতো হেভিওয়েট নেতারা। আর তৃণমূল নেতাদের দেখা মাত্রই সেখানে জয় শ্রীরাম স্লোগান তুলে ধ্বনী দিতে থাকেন বিজেপি কর্মীরা‌।

আর এতেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে পরিস্থিতি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ বিক্ষোভকারীদের ওপর লাঠিচার্জ করে বলেও অভিযোগ ওঠে। আর কাঁচরাপাড়ায় এহেন উত্তপ্ত পরিস্থিতির মাঝেই এবার শাসক বনাম বিরোধী নেতাদের মধ্যে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক তরজা। এদিন এই প্রসঙ্গে তৃণমূল নেতা তথা রাজ্যের দমকলমন্ত্রী সুজিত বসু বলেন, “নির্বাচনে কেউ জিতবে, কেউ হারবে। এটাই সিস্টেম। কিন্তু এটা রাজ্যের সংস্কৃতি নয়। যারা দখলদারি রাজনীতি করছে তাদের মনে রাখতে হবে মানুষ এই রাজনীতি পছন্দ করে না।”

অন্যদিকে বীজপুরের তৃণমূল বিধায়ক শুভ্রাংশু রায়ের বিজেপিতে যোগদান নিয়ে এদিন পাল্টা তাকে গদ্দার বলে আখ্যা দেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক। তিনি বলেন, “গদ্দার গদ্দারই থাকে। গদ্দারের কোনো ক্যারেক্টার হয় না। শুভ্রাংশু বাচ্চা ছেলে। ও শুধু 2019 দেখেছে। বাবা এখন ছেলেকে এগিয়ে দিয়ে বলছে, তুই লড়াই কর। কোনো চিন্তা নেই। আমরা জিরো থেকে শুরু করলাম, একশোয় গিয়ে পৌঁছাব।”

এদিকে সদ্য তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া মুকুল রায়ের পুত্র শুভ্রাংশু রায়কে গদ্দার বলে কটাক্ষ করায় পাল্টা এদিন উত্তর 24 পরগনা জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিককে কটাক্ষ করেছেন মেদিনীপুরের বিজেপি সাংসদ তথা রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

এদিন তিনি বলেন, “আগে জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক নিজের আসন ধরে রাখুন। আমরা ওই জেলাতে দুটো আসুন জিতেছি। এবারে ওর মন্ত্রিত্বও যাবে, জেলা সভাপতির পদও যাবে।” রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে, শুনতে তেতো হলেও বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের এই দাবি কিছুটা হলেও সত্য।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের চোখে দক্ষ সংগঠক হিসেবে পরিচিত উত্তর 24 পরগনা জেলা তৃণমূল সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকও এবার রাজ্যে প্রবল গেরুয়া ঝড়ে তার জেলার অন্যান্য আসন ধরে রাখলেও দুটি আসন হাতছাড়া করেছেন। যা নিয়ে কিছুটা হলেও চাপে পড়তে হয়েছে এই হেভিওয়েট তৃনমূল নেতাকে।

আর এবার সেই উত্তর 24 পরগনা জেলাজুড়ে প্রবল বিজেপি হাওয়া ওঠায় সদ্য তৃণমূল ত্যাগী শুভ্রাংশু রায়কে তৃনমূলের জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক কটাক্ষ করলে পাল্টা সেই জ্যোতিপ্রিয়র বিরুদ্ধেই মুখ খুলে রাজ্য রাজনীতিতে শোরগোল তুলে দিলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!