এখন পড়ছেন
হোম > রাজ্য > কলকাতা > মিথ্যা মামলা, দেবশ্রী থেকে শোভন- সব বিষয়েই অকপট হয়ে মুখ খুললেন মুকুল রায়

মিথ্যা মামলা, দেবশ্রী থেকে শোভন- সব বিষয়েই অকপট হয়ে মুখ খুললেন মুকুল রায়

কেউ বলেন ‘চাণক্য’, কেউ বলেন ‘গদ্দার’ – মুকুল রায় এখন এভাবেই পরিচয় পাচ্ছেন বঙ্গ-রাজনীতিতে। নিন্দুকদের মতে সারদা, নারদা থেকে বাঁচার জন্যই মুকুল রায় একসময় তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। কিন্তু নারদা মামলা এখনো মুকুল রায়ের পিছু ছাড়েনি। সিবিআই এর সামনে এখনো প্রায়ই হাজিরা চলছে তাঁর। বৃহস্পতিবার দিল্লি সিবিআই দপ্তর থেকে নারদার জেরা সেরে কলকাতার বিমানবন্দরে ফেরেন মুকুল রায়।

সেখানে দাঁড়িয়েই তিনি এদিন বলেন, ‘আমি সব ধরনের তদন্তের মুখে দাঁড়াতে প্রস্তুত। বুধবার এবং বৃহস্পতিবার মিলে আমি আটঘণ্টা সিবিআইকে ফেস করেছি। কারণ, আমি বলেছি তদন্তকারীরা তদন্ত করতে এসেছে, সে তো পায়ে হেঁটে আসেনি! সুপ্রিম কোর্টের তত্ত্বাবধানে এসেছেন আগেও বলেছি এখনও বলছি যে কোন তদন্তের মুখোমুখি হতে প্রস্তুত।’ প্রসঙ্গত, নারদ কাণ্ডে বুধবার সিবিআইয়ের মুখোমুখি হন মুকুল রায়। বলা হচ্ছে, আটঘন্টা ধরে সিবিআই তাঁকে জেরা করে।

ফেসবুকের কিছু টেকনিক্যাল প্রবলেমের জন্য সব আপডেট আপনাদের কাছে সবসময় পৌঁচ্ছাছে না। তাই আমাদের সমস্ত খবরের নিয়মিত আপডেট পেতে যোগদিন আমাদের হোয়াটস্যাপ বা টেলিগ্রাম গ্রূপে।

১. আমাদের Telegram গ্রূপ – ক্লিক করুন
২. আমাদের WhatsApp গ্রূপ – ক্লিক করুন
৩. আমাদের Facebook গ্রূপ – ক্লিক করুন
৪. আমাদের Twitter গ্রূপ – ক্লিক করুন
৫. আমাদের YouTube চ্যানেল – ক্লিক করুন

প্রিয় বন্ধু মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের নোটিফিকেশন আপনার মোবাইল বা কম্পিউটারের ব্রাউসারে সাথে সাথে পেতে, উপরের পপ-আপে অথবা নীচের বেল আইকনে ক্লিক করে ‘Allow‘ করুন।


আপনার মতামত জানান -

অন্যদিকে, রেলবোর্ড প্রতারণা মামলায় হাইকোর্ট মুকুল রায়ের গ্রেফতারি খারিজ করে দিয়েছে। নির্দেশ দিয়েছেন 5 সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মুকুল রায়কে গ্রেপ্তার করা যাবে না। এদিন সেই প্রসঙ্গে তিনি জানান, ‘পশ্চিমবঙ্গ যেটা চলছে – মিথ্যা মামলা দিয়ে মানুষকে হেনস্থা করা হচ্ছে। আমার বিরুদ্ধে 29 টা মামলা হয়েছিল। এই নিয়ে ত্রিশটা। প্রত্যেকটা তে আমি আইনি লড়াইয়ে আছি। ধন্যবাদ জানাই বিচারব্যবস্থাকে, সঠিক সময়ে সঠিক জায়গায় দাঁড়িয়ে বিচারের বাণী নীরবে থামেনি। আমার বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে, আমি মহামান্য হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছি মহামান্য হাইকোর্ট রায় দিয়েছে।’

এদিন তিনি দেবশ্রী রায় প্রসঙ্গেও মুখ খোলেন। তিনি জানান, ‘এ ব্যাপারে কোন কথা নেই। দিলীপদা রাজ্য সভাপতি, দিলীপদার কাছে যেকোন মানুষ যেতেই পারেন। সুতরাং এটার মধ্যে অন্য কোন গল্প খোঁজা ঠিক নয়।’ সাথে অরবিন্দ মেনন পরিচালিত বিজেপির বৈঠকে শোভনের অনুপস্থিতির প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘দলের বৃদ্ধির জন্য সে দৌড়ঝাঁপ করতেই পারে এটাকে অন্যভাবে ব্যাখ্যা করার কোনো কারণ নেই।’ সবমিলিয়ে সিবিআইকে ‘ফেস’ করে এসে কলকাতা হাইকোর্টেও ‘প্রতারণা মামলায়’ স্বস্তি পেয়ে বেশ ফুরফুরে মেজাজেই এদিন পাওয়া গেল গেরুয়া শিবিরের অন্যতম শীর্ষনেতা মুকুল রায়কে।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!