এখন পড়ছেন
হোম > বিশেষ খবর > সিবিআই তদন্ত নিয়ে জল্পনা বাড়িয়ে ২০১৯-এ তৃণমূল কত আসন পাবে জানালেন মুকুল রায়

সিবিআই তদন্ত নিয়ে জল্পনা বাড়িয়ে ২০১৯-এ তৃণমূল কত আসন পাবে জানালেন মুকুল রায়

তৃণমূল কংগ্রেস থেকে বিজেপিতে নাম লিখিয়েই সমানে তাল থকা জারি রেখেছেন মুকুল রায়। তখনই জানিয়েছিলেন তৃণমূলের সংগঠন বলের কথা যে বলা হয় তা আদতে ‘মেকি’, সময় এলেই দেখিয়ে দেবেন তা কিভাবে ঝুরঝুর করে উইয়ের ঢিপির মত ভেঙে পড়ছে। তারপরের বিভিন্ন উপনির্বাচনে বিজেপির ভোট বাড়াতে পারলেও, তৃণমূলের ভোট কিন্তু কমাতে পারেননি একসময় তৃণমূলের ‘চানক্য’ নামে পরিচিত এই বর্ষীয়ান নেতা। কিন্তু পঞ্চায়েত নির্বাচনের দায়িত্ত্ব বিজেপি তাঁর কাঁধে দিতেই ‘জাত’ চিনিয়েছেন তিনি। আর তারপর থেকেই বাংলায় আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে দুর্দান্ত ফলাফল করতে আশাবাদী গেরুয়া শিবিরের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ত্ব। আর তাই তাল থকাৰ পরিমান বহুলাংশে বাড়িয়ে দিয়েছেন মুকুল রায়। আগামী লোকসভা নির্বাচনে কোনোমতেই পিছিয়ে নেই বিজেপি বরং জেতার জন্যই এবার ময়দানে নামবে গেরুয়া শিবির মাঠে নামবে তা তাঁর প্রতিটা সভায়, প্রতিটা বক্তৃতায় পরিস্ফুট হচ্ছে।

এবার থেকে প্রিয় বন্ধুর খবর পড়া আরো সহজ, আমাদের সব খবর সারাদিন হাতের মুঠোয় পেতে যোগ দিন আমাদের হোয়াটস্যাপ গ্রূপে – ক্লিক করুন এই লিঙ্কে

গতকাল নদীয়ার কৃষ্ণনগরে এক দলীয় কর্মসূচিতে গিয়ে প্রথমেই তিনি তৃণমূল কংগ্রেস ও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর সিবিআই তদন্ত নিয়ে চাপ বাড়ান। মুকুলবাবু বলেন, ২০১৪ সালে আমি যখন বললাম কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা আসছে তদন্ত করতে। তাতে সবার সহযোগিতা করা উচিত। মমতাদেবী হুংকার দিয়ে বললেন, আমাদের সরকার সহযোগিতা করবে না। এটা মোদি চক্রান্ত করছে আমাদের সরকারের সঙ্গে। তখন আমি বলেছিলাম, আমি তো সহযোগিতা করবই। তাতে যদি আমার দোষ প্রমাণিত হয় তাহলে আমি তো জেলে যাবই বাকি যাদের দোষ প্রমাণ হবে তারাও জেলে যাবে। কিন্তু, উনি সেদিকে যাবেন না। কারণ তদন্ত যদি গুটিগুটি পায়েও এগোয় তা হলে কতদূর যেতে পারে তার সম্যক ধারণা আমার আছে।

এখানেই না থেমে ২০১৯ এর লোকসভা নির্বাচন নিয়েও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপর চাপ বাড়িয়ে বলেন, বাম সরকারের হাতে বাংলার গণতন্ত্র খুন হচ্ছিল। তাই বাংলাকে বাঁচাতে আমি তাঁর সঙ্গে গেছিলাম। কিন্তু, আজ মমতাদেবী মিথ্যে মামলা দিয়ে মানুষকে জেলে ঢোকাচ্ছেন। এটা বেশিদিন চলবে না। উনি এখন ভারতবর্ষে ঘুরে ঘুরে বেড়াচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী হওয়ার জন্য। কেজরিওয়াল থেকে অখিলেশ আর মায়াবতী থেকে জগনের কাছে যাচ্ছেন একবার আমাকে প্রধানমন্ত্রী করে দাও। কিন্তু, মমতাদেবী জেনে রাখুন বাংলায় ফেডারেল ফ্রন্টও হবে না। আর আপনার প্রধানমন্ত্রী হবার স্বপ্নও কোনওদিন পূরণ হবে না। জেতা ৩৪ আসনের মধ্যে উনি ২০ টি আসনেই হারবেন।

আপনার মতামত জানান -
Top
error: Content is protected !!